সাকিবের ওভারেই কলকাতার ধস!

প্রকাশ : ২৫ মে ২০১৮, ২৩:২২ | অনলাইন সংস্করণ

  অনলাইন ডেস্ক

সাকিবের প্রথম দুই ওভারেই উইকেট পড়েছে। প্রথম ওভারে রান আউট, দ্বিতীয় ওভারে বোল্ড। নারিন-লিন ঝড়ে যখন ম্যাচ একেবারে কলকাতার দিকেই হেলে গিয়েছিল ঠিক ওই সময় বল করতে এসে হায়দরাবাদের ত্রাতা হিসেবে উপস্থিত হন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান।

তার প্রথম ওভারে রান আউট হয়ে ফিরে যান নিথিশ রানা।

১২তম ওভারে দলীয় রান তখন দুই উইকেটে ১০৮। ওই সময় সাকিব তার দ্বিতীয় ওভার করতে আসেন। শেষ বলে অসাধারণ এক ডেলিভারিতে দিনেশ কার্তিককে বোল্ড করে সাজঘরে ফেরান। ম্যাচের রঙ পাল্টাতে থাকে। ভারতীয় ধারাভাষ্যকাররাও মেতে উঠেন সাকিবের প্রশংসায়।

পরের কাজগুলো করেন আগে ঝড়ো ব্যাটিং করে হায়দরাবাদকে চ্যালেঞ্জিং স্কোর এনে দেয়া রশিদ খান। একে একে লিন ও আন্দ্রে রাসেলকে ফিরিয়ে দিয়ে ম্যাচটি নিজেদের মধ্যে নিয়ে আসেন তিনি।

যেখানে ৮৭ রান ছিল এক উইকেটে। সেখানে আর মাত্র ৩০ রান যোগ করতেই পাঁচ উইকেট পড়ে যায়।

এর আগে রশিদ খানের ‘অবিশ্বাস্য’ ইনিংসে ১৭৪ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর সংগ্রহ করে হায়দরাবাদ।

আজ হায়দরাবাদের মিডল অর্ডারের ব্যর্থতার দিনে সেই রশিদ খানই অবিশ্বাস্য এক ইনিংস খেললেন। মাত্র ১০ বলে ৩৪ রানের ইনিংস। তার ঝড়ো ইনিংসটি ছিল দুই চার ও চারটি নান্দনিক ছক্কায় সাজানো। তার ইনিংসটিই ছিল আজকের আইপিএলের হায়দরাবাদের ইনিংসে টক অব দ্য নিউজে পরিণত হয়েছে।

পরে  চার ওভারে ১৯ রান দিয়ে গুরুত্বপূর্ণ তিন উইকেট নিয়ে কলকাতার ইনিংস জুড়ে আলোচনায় সেই রশিদ খান। শেষ ওভারের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে দুটি ক্যাচও তালুবন্দি করেছেন এ আফগান তরুণ।

আর সাকিব ৩ ওভার বোলিং করে মাত্র ১৬ রান দিয়ে কার্তিককে বধ করাটাই ম্যাচ জয়ের জন্য টার্নিং পয়েন্ট ছিল। তার সঙ্গে ম্যাচ জয়ের নেপথ্যে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন সাকিব সে কথা ক্রিকেটবোদ্ধারা স্বীকার করতে কার্পণ্য করবেন না।