আমার জন্য এটা সত্যিই বিশেষ মৌসুম: ওয়াটসন

প্রকাশ : ২৮ মে ২০১৮, ০০:২৮ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক

ছবি: এএফপি

আইপিএলের ১১তম আসরের ফাইনালে এক অনবদ্য সেঞ্চুরির বদৌলতে ম্যান অব দা ম্যাচ হওয়া শেন ওয়াটসন বলেছেন, এটা সত্যিই আমার জন্য একটা বিশেষ মৌসুম। গতবারের পর নতুন এই সুযোগ পাওয়া আমার জন্য অবিশ্বাস্য। আজ রাতের সবকিছু সুন্দরভাবেই পার করেছি। এই বিশাল ক্রিকেট আসরে যা করেছি, সত্যিই অসাধারণ।  ধোনী, ফ্লেমিং ও সিমসেকের সহায়তা ছিল অসাধারণ।

৩৬ বছর বয়সী ওয়াটসনের সেঞ্চুরিতে সাকিব আল হাসানের সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে হারিয়ে আইপিএলের শিরোপা জয় করেছে চেন্নাই সুপার কিংস। ৫৭ বলের এক অসাধারণ ইনিংসে এই অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার আটটি ছয় ও ১১টি চার হাঁকিয়ে ফাইনালে নায়কে পরিণত হয়েছেন।

১১তম আসরের ফাইনালের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে আগে ব্যাট করে ১৭৮ রান সংগ্রহ করে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ।

শিরোপা জেতার লড়াইয়ে মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বাধীন চেন্নাই সুপার কিংসকে একাই টেনে নিয়ে যান এ ম্যাচে শতক হাঁকানো শেন ওয়াটসন। তার অনবদ্য ব্যাটিংয়েই জয় পেয়েছে ধোনিরা।

শেন ওয়াটসন মাত্র ৫৭ বলে ১১৭ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন। তার সঙ্গে যোগ্য সঙ্গ দেন সুরেশ রায়না। রায়না ২৪ বলে ৩২ রানের কার্যকর একটি ইনিংস খেলেন।

চতুর্থ ওভারের শেষ বলে দলীয় মাত্র ১৬ রানে উদ্বোধনী জুটি ভেঙে গেলেও রায়না-ওয়াটসনের একটি কার্যকর জুটিতে ১৩ ওভারে এক উইকেটে পৌঁছে যায় ১৩১ রানে।

১৪তম ওভারে দলীয় ১৩৪ রানে রায়না ফিরে গেলেও ম্যাচ প্রায় ফসকে যায় হায়দরাবাদের কাছ থেকে। ১৬ ওভারে দলীয় ১৫৪ রান সংগ্রহের পরই চেন্নাই সুপার কিংসের কাছে ম্যাচ হেলে পড়ে।

প্রথম তিন ওভারে দুই ওপেনার মাত্র ১০ রান করেন। কিন্তু চতুর্থ ওভারের শেষ বলে সাজঘরে ফিরে যান আগের ম্যাচের জয়ের নায়ক ডুপ্লেসিস। ব্যাক্তিগত ১০ রান করে বিদায় নেন দক্ষিণ আফ্রিকান এ ব্যাটসম্যান।

দলীয় ১৬ রানে উদ্বোধনী জুটি ভেঙে যাওয়ার পর ক্রিজে আসেন সুরেশ রায়না। তাদের অনবদ্য জুটিই রোমাঞ্চকর ফাইনালে হেসেখেলে জিতে যায় ধোনিরা।

রোববার মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড় স্টেডিয়ামে আইপিএলের ফাইনাল ম্যাচে টসে হেরে আগে ব্যাটিংয়ে নেমে ৬ উইকেটে ১৭৮ রান সংগ্রহ করে হায়দরাবাদ। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৭ রান করেন অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন।

৩৬ বলে দুই ছক্কা ও পাঁচটি চারে সাজানো তার ইনিংস। এছাড়া শেষ দিকে ৪৫ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন ইউসুফ পাঠান। মাত্র ২৫ বলে করা তার অপরাজিত ইনিংসটি ছিল দুটি ছক্কা ও ৪টি চারে সাজানো।

সাকিব আল হাসান ১৫ বলে ২৫ রান ও শেখর ধাওয়ান ২৬ রান করেন ।

এর আগে টস হেরে আগে ব্যাটিংয়ে নেমে মাত্র ১৩ রানে ওপেনার গোস্বামীর উইকেট হারিয়ে টেনশনে পড়ে গিয়েছিল সানরাইজার্স। পরে সাকিব-উইলিয়ামসনে চালকের আসনে চলে যায় হায়দরাবাদ। ভুল বোঝাবুঝির কারণে রান আউটের ফাঁদে পড়েন হায়দরাবাদের ওপেনার গোস্বামী।

দ্বিতীয় উইকেটে অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনকে সঙ্গে নিয়ে ৫১ রান যোগ করেন অন্য ওপেনার শেখর ধাওয়ান। রবীন্দ্র জাদেজাকে সজোরে হাঁকাতে গিয়ে বিভ্রান্ত হন ধাওয়ান। সাজঘরে ফেরার আগে ২৫ বলে ২৬ রান করেন শেখর। ১৫ বলে ২৩ রানের ঝলমলে এক ইনিংস উপহার দিয়ে রায়নার দুর্দান্ত ক্যাচে বিদায় নেন এ বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। ম্যাচ শেষে ওই ক্যাচের বদৌলতে পারফ্যাক্ট ক্যাচের পুরস্কার পান সুরেশ রায়।