‘ধৈর্য না ধরে মৌলিক কিছু ভুল করেছি’
jugantor
‘ধৈর্য না ধরে মৌলিক কিছু ভুল করেছি’

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৬ জুন ২০২২, ১৯:২৫:৪৪  |  অনলাইন সংস্করণ

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে অ্যান্টিগা টেস্টে চরম ব্যাটিং বিপর্যয়ের কারণে হারে বাংলাদেশ দল। সেন্ট লুসিয়ায় চলমান টেস্টেও সুবিধাজনক অবস্থানে নেই টাইগাররা।

শুক্রবার সেন্ট লুসিয়ায় টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে প্রথম ইনিংসে ২৩৪ রানেই অলআউট বাংলাদেশ। জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে প্রথম দিনের শেষ বিকালে কোনো উইকেট না হারিয়ে ৬৭ রান করে উইন্ডিজ।

শনিবার দ্বিতীয় দিনের প্রথম সেশনে দুর্দান্ত বোলিং করে স্বাগতিক দলের ব্যাটসম্যানদের চাপের মুখে রাখতে সক্ষম হন শরিফুল ইসলাম, মেহেদি হাসান মিরাজ ও খালেদ আহমেদরা।

দ্বিতীয় দিনের প্রথম সেশনে ৭০ রানে ক্যারিবীয় ৪ ব্যাটসম্যান জন ক্যাম্পবেল, ক্রেগ ব্রাথওয়েট, রায়মন রেফার ও এনকেরুমা বোনারকে ফেরান শরিফুল, মিরাজ, খালেদরা।

প্রথম সেশনে দুর্দান্ত বোলিং করা বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংসে খেই হারিয়ে ফেলে। এই সেশনে কোনো উইকেট না হারিয়ে ১১১ রান যোগ করে উইন্ডিজ।

জার্মেইন ব্লাকউডকে সঙ্গে নিয়ে পঞ্চম উইকেটে ১১৬ রানের পার্টনারশিপ গড়েন কাইল মায়ার্স। ১২১ বল খেলে ৬টি বাউন্ডারির সাহায্যে ৪০ রান করা ব্লাকউড চা-পান বিরতি থেকে ফিরেই আউট হন।

দ্বিতীয় দিনের শেষ সেশনে জশুয়া ডি সিলভাকে সঙ্গে নিয়ে নিয়ে ৯২ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েন কাইল মায়ার্স। আর এই জুটিতেই ক্যারিয়ারের ১৩তম টেস্টে দ্বিতীয় সেঞ্চুরি তুলে নেন মায়ার্স। এর আগে গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে বাংলাদেশ সফরে চট্টগ্রাম টেস্টে ২১০* রানের লড়াকু ইনিংস খেলেন মায়ার্স।

দ্বিতীয় দিনের প্রথম সেশনে ৭০ রানে ৪ উইকেট শিকার করা বাংলাদেশ দিনের শেষ দুই সেশনে ২০৩ রান খরচ করে মাত্র এক উইকেট শিকার করে।

দ্বিতীয় দিনের শেষ দুই সেশনে শরিফুল, খালেদ, সাকিব, এবাদত ও মিরাজদের বোলিং নিয়ে হতাশ কোচ রাসেল ডমিঙ্গো।

তিনি বলেন, প্রথম সেশনে আমরা অসাধারণ বোলিং করেছি। কিন্তু মধ্যাহ্ন বিরতির পর সেটা ধরে রাখতে পারিনি। উইকেটের জন্য বোলিং করতে গিয়ে কিছু আলগা বল করেছি। যখন ওভার দ্য উইকেট করার কথা, তখন রাউন্ড দ্য উইকেট করেছি। যথেষ্ট পরিমাণে ধৈর্য না ধরে মৌলিক কিছু ভুল করেছি।

‘ধৈর্য না ধরে মৌলিক কিছু ভুল করেছি’

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৬ জুন ২০২২, ০৭:২৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে অ্যান্টিগা টেস্টে চরম ব্যাটিং বিপর্যয়ের কারণে হারে বাংলাদেশ দল। সেন্ট লুসিয়ায় চলমান টেস্টেও সুবিধাজনক অবস্থানে নেই টাইগাররা। 

শুক্রবার সেন্ট লুসিয়ায় টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে প্রথম ইনিংসে ২৩৪ রানেই অলআউট বাংলাদেশ। জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে প্রথম দিনের শেষ বিকালে কোনো উইকেট না হারিয়ে ৬৭ রান করে উইন্ডিজ। 

শনিবার দ্বিতীয় দিনের প্রথম সেশনে দুর্দান্ত বোলিং করে স্বাগতিক দলের ব্যাটসম্যানদের চাপের মুখে রাখতে সক্ষম হন শরিফুল ইসলাম, মেহেদি হাসান মিরাজ ও খালেদ আহমেদরা। 

দ্বিতীয় দিনের প্রথম সেশনে ৭০ রানে ক্যারিবীয় ৪ ব্যাটসম্যান জন ক্যাম্পবেল, ক্রেগ ব্রাথওয়েট, রায়মন রেফার ও এনকেরুমা বোনারকে ফেরান শরিফুল, মিরাজ, খালেদরা। 

প্রথম সেশনে দুর্দান্ত বোলিং করা বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংসে খেই হারিয়ে ফেলে। এই সেশনে কোনো উইকেট না হারিয়ে ১১১ রান যোগ করে উইন্ডিজ। 

জার্মেইন ব্লাকউডকে সঙ্গে নিয়ে পঞ্চম উইকেটে ১১৬ রানের পার্টনারশিপ গড়েন কাইল মায়ার্স। ১২১ বল খেলে ৬টি বাউন্ডারির সাহায্যে ৪০ রান করা ব্লাকউড চা-পান বিরতি থেকে ফিরেই আউট হন।

দ্বিতীয় দিনের শেষ সেশনে জশুয়া ডি সিলভাকে সঙ্গে নিয়ে নিয়ে ৯২ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েন কাইল মায়ার্স। আর এই জুটিতেই ক্যারিয়ারের ১৩তম টেস্টে দ্বিতীয় সেঞ্চুরি তুলে নেন মায়ার্স। এর আগে গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে বাংলাদেশ সফরে চট্টগ্রাম টেস্টে ২১০* রানের লড়াকু ইনিংস খেলেন মায়ার্স। 

দ্বিতীয় দিনের প্রথম সেশনে ৭০ রানে ৪ উইকেট শিকার করা বাংলাদেশ দিনের শেষ দুই সেশনে ২০৩ রান খরচ করে মাত্র এক উইকেট শিকার করে। 

দ্বিতীয় দিনের শেষ দুই সেশনে শরিফুল, খালেদ, সাকিব, এবাদত ও মিরাজদের বোলিং নিয়ে হতাশ কোচ রাসেল ডমিঙ্গো।  

তিনি বলেন, প্রথম সেশনে আমরা অসাধারণ বোলিং করেছি। কিন্তু মধ্যাহ্ন বিরতির পর সেটা ধরে রাখতে পারিনি। উইকেটের জন্য বোলিং করতে গিয়ে কিছু আলগা বল করেছি। যখন ওভার দ্য উইকেট করার কথা, তখন রাউন্ড দ্য উইকেট করেছি। যথেষ্ট পরিমাণে ধৈর্য না ধরে মৌলিক কিছু ভুল করেছি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : বাংলাদেশের ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর ২০২২