যে কারণে চোট নিয়েও এশিয়া কাপে সোহান
jugantor
যে কারণে চোট নিয়েও এশিয়া কাপে সোহান

  স্পোর্টস ডেস্ক  

১৪ আগস্ট ২০২২, ১২:৩৯:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে কিপিংয়ের সময় আঙুলে চোট পেয়ে জিম্বাবুয়ের সফরে মাঝপথেই ছিটকে পড়েন নুরুল হাসান সোহান। শেষ টি-টোয়েন্টি না খেলে ওয়ানডে সিরিজের আগেই দেশে ফেরেন। এর পর চলে যান সিঙ্গাপুরে।

গত ৮ আগস্ট সিঙ্গাপুরের রেফেলস হাসপাতালে তার আঙুলের অস্ত্রোপচারের পর ডা. অ্যান্থনি ফু জানান, চোট সারতে তিন থেকে চার সপ্তাহ সময় লাগবে সোহানের। অর্থাৎ এশিয়া কাপ খেলা হবে না তার।

কিন্তু শনিবার এশিয়া কাপের জন্য ১৭ জনের স্কোয়াডে দেখা গেল সেখানে সোহানের নাম ঠিকই আছে।

প্রশ্ন উঠেছে, সদ্য অস্ত্রোপচার হওয়া ক্রিকেটার এমন চোট নিয়ে কী করে এশিয়া কাপের দলে?

জবাবে বিসিবির প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু জানালেন, নির্দিষ্ট সময়েই সোহান সুস্থ হয়ে উঠতে পারে বলে আশাবাদী তারা। তাই তাকে স্কোয়াডে রাখা হয়েছে।

নান্নু বলেন, ‘সোহানের চোট থাকলেও একটা আপডেট হলো ২১ আগস্ট তার আঙুলের সেলাই খোলা হবে। আমরা আশা করছি ইতিবাচক ফলই পাব। সে যদি খেলতে পারে, সেই আশা থেকে দলে রাখা হয়েছে।’

সোহানকে দলভুক্তের আরেকটি কারণ জানা গেল। সেটি হলো ৬ দলের টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ যদি ফাইনালে উঠে তখন সোহানকে কাজে লাগানো যেতে পারে। টিম ম্যানেজমেন্টের এ ভাবনায় এ উইকেটকিপার-ব্যাটারকে নেওয়া। বিসিবি সূত্রে এমনটিই জানা গেছে।

তারা বলছেন, টিম ম্যানেজমেন্টের বিশেষ আলোচনায় সোহানকে নেওয়া হয়েছে। ম্যানেজমেন্টের একটি অংশ চেয়েছিল সোহানকে দলের সঙ্গী করতে। কারণ দল ফাইনালে উঠলে শেষ ২-৩ ম্যাচের আগেই ফিট হয়ে উঠবেন এই উইকেটরক্ষক। শেষ পর্যন্ত ১৭ সদস্যের দল করে সোহানকে অন্তর্ভুক্তি করা হয়েছে।

যে কারণে চোট নিয়েও এশিয়া কাপে সোহান

 স্পোর্টস ডেস্ক 
১৪ আগস্ট ২০২২, ১২:৩৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে কিপিংয়ের সময় আঙুলে চোট পেয়ে জিম্বাবুয়ের সফরে মাঝপথেই ছিটকে পড়েন নুরুল হাসান সোহান। শেষ টি-টোয়েন্টি না খেলে ওয়ানডে সিরিজের আগেই দেশে ফেরেন। এর পর চলে যান সিঙ্গাপুরে।

গত ৮ আগস্ট সিঙ্গাপুরের রেফেলস হাসপাতালে তার আঙুলের অস্ত্রোপচারের পর ডা. অ্যান্থনি ফু জানান, চোট সারতে তিন থেকে চার সপ্তাহ সময় লাগবে সোহানের।  অর্থাৎ এশিয়া কাপ খেলা হবে না তার।

কিন্তু শনিবার এশিয়া কাপের জন্য ১৭ জনের স্কোয়াডে দেখা গেল সেখানে সোহানের নাম ঠিকই আছে। 

প্রশ্ন উঠেছে, সদ্য অস্ত্রোপচার হওয়া ক্রিকেটার এমন চোট নিয়ে কী করে এশিয়া কাপের দলে? 

জবাবে বিসিবির প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু জানালেন, নির্দিষ্ট সময়েই সোহান সুস্থ হয়ে উঠতে পারে বলে আশাবাদী তারা। তাই তাকে স্কোয়াডে রাখা হয়েছে।

নান্নু বলেন, ‘সোহানের চোট থাকলেও একটা আপডেট হলো ২১ আগস্ট  তার আঙুলের সেলাই খোলা হবে। আমরা আশা করছি ইতিবাচক ফলই পাব। সে যদি খেলতে পারে, সেই আশা থেকে দলে রাখা হয়েছে।’

সোহানকে দলভুক্তের আরেকটি কারণ জানা গেল। সেটি হলো ৬ দলের টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ যদি ফাইনালে উঠে তখন সোহানকে কাজে লাগানো যেতে পারে। টিম ম্যানেজমেন্টের এ ভাবনায় এ উইকেটকিপার-ব্যাটারকে নেওয়া। বিসিবি সূত্রে এমনটিই জানা গেছে। 

তারা বলছেন, টিম ম্যানেজমেন্টের বিশেষ আলোচনায় সোহানকে নেওয়া হয়েছে। ম্যানেজমেন্টের একটি অংশ চেয়েছিল সোহানকে দলের সঙ্গী করতে। কারণ দল ফাইনালে উঠলে শেষ ২-৩ ম্যাচের আগেই ফিট হয়ে উঠবেন এই উইকেটরক্ষক।  শেষ পর্যন্ত ১৭ সদস্যের দল করে সোহানকে অন্তর্ভুক্তি করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : এশিয়া কাপ-২০২২