এনামুলের সঙ্গী মুশফিক-সাকিব!
jugantor
এনামুলের সঙ্গী মুশফিক-সাকিব!

  স্পোর্টস ডেস্ক  

১৫ আগস্ট ২০২২, ১৯:৪৫:১০  |  অনলাইন সংস্করণ

২৭ আগস্ট থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে শুরু হবে এশিয়া কাপ। ৩০ আগস্ট আফগানিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচ।

আসন্ন এশিয়া কাপে ওপেনিং পজিশনে খেলার সম্ভাবনা রয়েছে অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ও সাবেক অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের।

এমনটি জানিয়ে জাতীয় দলের টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজন বলেন, আমাদের ওপেনাররা সাম্প্রতিক সময়ে কেউ ভালো করছে না। এটা মাথায় নিতে হবে। জিম্বাবুয়ে সফরে আমরা কয়েকজনকে দেখেছি, ভালো করেনি। আমাদের মেক-শিফট করতে হবে। বিভিন্ন উইকেটের পরিকল্পনা করে হয়তো আমরা মেক-শিফট করব। কে হবে বা কে করবে না- এটা এখনই বলছি না। তবে আমরা অনেক চিন্তা করেছি।

সোমবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে সাবেক অধিনায়ক সুজন বলেন, এশিয়া কাপের ঘোষিত দলে স্বীকৃত ওপেনার আছে এনামুল হক বিজয় ও পারভেজ ইমন। তবে বাকি অনেকেই কিন্তু লোকাল ক্রিকেটে ওপেন করেছে। আমরা ওভাবেই ভাবছি। মুশফিক হতে পারে, সাকিবও হতে পারে। মিরাজ হতে পারে, শেখ মেহেদিও ওপেন করেছে। সুতরাং অনেক অপশন আছে আমাদের হাতে।

সুজন আরও বলেন, অভিজ্ঞদের মধ্যে থেকে খুঁজে বের করতে চাই, যারা টি-টোয়েন্টি অনেক খেলেছে। কিংবা যারা ঘরোয়া ক্রিকেটে কিছু কিছু ক্ষেত্রে ওপেন করেছে তাদের আমরা চিন্তা করতে পারি, কারও ব্যাটিং পজিশন বদলে দিয়ে- এশিয়া কাপে আমরা করতে পারি এসব।
জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সবশেষ টি-টোয়েন্টি সিরিজের স্কোয়াডে রাখা হয়েছিল পাঁচ ওপেনার। এশিয়া কাপের স্কোয়াডে আবার স্বীকৃত ওপেনার কেবল দুজনই। দল ঘোষণার দিনই নির্বাচকরা জানিয়েছিলেন, মিডল অর্ডার থেকে বানানো হবে মেক-শিফট ওপেনার। এবার টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ বললেন- ওপেন করার ভাবনায় আছেন মুশফিকুর রহিম ও সাকিব আল হাসানও।

এ বছর ৮টি টি-টোয়েন্টি খেলে ৫টি ভিন্ন উদ্বোধনী জুটি ব্যবহার করেছে বাংলাদেশ। এশিয়া কাপে নিশ্চিতভাবে দেখা যাবে নতুন আরেক জুটি।

এনামুলের সঙ্গী মুশফিক-সাকিব!

 স্পোর্টস ডেস্ক 
১৫ আগস্ট ২০২২, ০৭:৪৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

২৭ আগস্ট থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে শুরু হবে এশিয়া কাপ। ৩০ আগস্ট আফগানিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচ। 

আসন্ন এশিয়া কাপে ওপেনিং পজিশনে খেলার সম্ভাবনা রয়েছে অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ও সাবেক অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের। 

এমনটি জানিয়ে জাতীয় দলের টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজন বলেন, আমাদের ওপেনাররা সাম্প্রতিক সময়ে কেউ ভালো করছে না। এটা মাথায় নিতে হবে। জিম্বাবুয়ে সফরে আমরা কয়েকজনকে দেখেছি, ভালো করেনি। আমাদের মেক-শিফট করতে হবে। বিভিন্ন উইকেটের পরিকল্পনা করে হয়তো আমরা মেক-শিফট করব। কে হবে বা কে করবে না- এটা এখনই বলছি না। তবে আমরা অনেক চিন্তা করেছি।

সোমবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে সাবেক অধিনায়ক সুজন বলেন, এশিয়া কাপের ঘোষিত দলে স্বীকৃত ওপেনার আছে এনামুল হক বিজয়  ও পারভেজ ইমন। তবে বাকি অনেকেই কিন্তু লোকাল ক্রিকেটে ওপেন করেছে। আমরা ওভাবেই ভাবছি। মুশফিক হতে পারে, সাকিবও হতে পারে। মিরাজ হতে পারে, শেখ মেহেদিও ওপেন করেছে। সুতরাং অনেক অপশন আছে আমাদের হাতে।

সুজন আরও বলেন, অভিজ্ঞদের মধ্যে থেকে খুঁজে বের করতে চাই, যারা টি-টোয়েন্টি অনেক খেলেছে। কিংবা যারা ঘরোয়া ক্রিকেটে কিছু কিছু ক্ষেত্রে ওপেন করেছে তাদের আমরা চিন্তা করতে পারি, কারও ব্যাটিং পজিশন বদলে দিয়ে- এশিয়া কাপে আমরা করতে পারি এসব।
জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সবশেষ টি-টোয়েন্টি সিরিজের স্কোয়াডে রাখা হয়েছিল পাঁচ ওপেনার। এশিয়া কাপের স্কোয়াডে আবার স্বীকৃত ওপেনার কেবল দুজনই। দল ঘোষণার দিনই নির্বাচকরা জানিয়েছিলেন, মিডল অর্ডার থেকে বানানো হবে মেক-শিফট ওপেনার। এবার টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ বললেন- ওপেন করার ভাবনায় আছেন মুশফিকুর রহিম ও সাকিব আল হাসানও।

এ বছর ৮টি টি-টোয়েন্টি খেলে ৫টি ভিন্ন উদ্বোধনী জুটি ব্যবহার করেছে বাংলাদেশ। এশিয়া কাপে নিশ্চিতভাবে দেখা যাবে নতুন আরেক জুটি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : এশিয়া কাপ-২০২২