‘এবার কাউকে কামড় দিও না সুয়ারেজ’

  যুগান্তর ডেস্ক    ১০ জুন ২০১৮, ০৩:৫৩ | অনলাইন সংস্করণ

সুয়ারেজ,

২০১৪ ব্রাজিল বিশ্বকাপে ইতালির ডিফেন্ডার গিওর্ঘি চিয়েলিন্নিকে কামড় দিয়ে নয় ম্যাচ নিষিদ্ধ হয়েছিলেন লুইস সুয়ারেজ। সেটাই তার প্রথম কামড়-কাণ্ড ছিল না। এবার আরও একটি বিশ্বকাপ দোরগোড়ায়। তার আগে উরুগুয়ে ফরোয়ার্ডকে সতর্কবার্তা পাঠিয়েছেন তার এক ভক্ত। একই ভুল যেন এবারও না হয়, স্মরণ করিয়ে দেয়া হয়েছে বার্সেলোনা তারকাকে। উরুগুয়ের অনুশীলনে অটোগ্রাফ নিতে আসা এক তরুণ ভক্ত সুয়ারেজকে বলেন, ‘বিশ্বকাপে কাউকে কামড়াতে যেও না।’

সেই কামড়-কাণ্ড নিয়ে কয়েকদিন আগে মুখ খুলেছিলেন সুয়ারেজও। সংবাদমাধ্যম প্লেয়ার্স ট্রিবিউনে বার্সা সতীর্থ জেরার্ড পিকের কাছে খোলা মনেই সব বলেছেন সুয়ারেজ। সুয়ারেজের ভাষ্য ছিল, ‘ভেবেছিলাম সব শেষ হয়ে গেছে। সেই ঘটনার কয়েকদিন পর, জুবি (আন্দোনি জুবিজারেতা, বার্সেলোনার তৎকালীন ফুটবল পরিচালক) ও সভাপতির সঙ্গে আমার কথা হয়। তারা আমাকে শান্ত থাকার পরামর্শ দিয়ে বলেছিলেন, বার্সেলোনা এখনও আমার ব্যাপারে আগ্রহী। কথাটা শুনে কেঁদেছি। কারণ যা ঘটিয়েছিলাম, তারপর নিজের ওপর বিশ্বাস রাখাই কঠিন। কিন্তু বার্সা ব্যাপারটা মেনে নিয়েছিল। আমি তাদের প্রতি সবসময় কৃতজ্ঞ থাকব।’

চিয়েলিন্নিকে কামড় দিয়ে যে বিপদে পড়তে যাচ্ছেন, সেটি সুয়ারেজ তাৎক্ষণিকভাবে বুঝতে পেরেছিলেন। সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘ঘটনার পরই বুঝতে পেরেছিলাম। প্রায় ১০ মিনিট পর গোডিন জয়সূচক গোলটা করল। আমি সেভাবে উদ্যাপন করতে পারিনি। কী ঘটতে পারে, সেটা নিয়ে চিন্তায় ছিলাম।’ আরেকটি বিশ্বকাপের মঞ্চে নেমে সেই ধরনের চিন্তার মধ্যে নিজে বা দলকেই নিশ্চয়ই ফেলতে চাইবেন না সুয়ারেজ। ১৫ জুন মিসরের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে উরুগুয়ের বিশ্বকাপ। গ্রুপে তাদের অপর সঙ্গী সৌদি আরব ও স্বাগতিক রাশিয়া।

ঘটনাপ্রবাহ : বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter