‘চাপের মুহূর্তে কিভাবে জিততে হয় বুঝেছি’
jugantor
‘চাপের মুহূর্তে কিভাবে জিততে হয় বুঝেছি’

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২০:৩১:৩১  |  অনলাইন সংস্করণ

অতীতে স্নায়ুচাপে ভেঙে পড়ার কারণে অহরহ ম্যাচে হেরেছে বাংলাদেশ। এশিয়া কাপের ফাইনালের মতো গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচেও একই কারণে হেরে কান্নায় বুক ভাসাতে হয়েছে সাকিব-তামিম-মুশফিকদের।

রোববার সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে চাপ সামলে জিতেছে বাংলাদেশ। দুই ম্যাচের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ৭ রানের জয় পায় নুরুল হাসান সোহানের নেতৃত্বাধীন দলটি।

কষ্টার্জিত এ জয়ের পর জাতীয় দলের তারকা ক্রিকেটার মেহেদি হাসান মিরাজ বলেন, আমাদের যেটা দরকার ছিল, এ রকম চাপের মুহূর্তে কিভাবে ম্যাচ জিততে হয় আমরা বুঝেছি। এ অবস্থায় আমরা অনেক ম্যাচ হেরেছি। শেষ কয়েকটা সিরিজ, এশিয়া কাপের ম্যাচগুলো কাছাকাছি গিয়ে হেরে গেছি। কালকের অবস্থায়ও এমন ছিল। আমাদের বোলাররা দারুণভাবে ফিরেছে।

৪৭ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে যাওয়া দলকে সম্মানজনক স্কোর উপহার দিতে দায়িত্বশীল ব্যাটিং করেন আফিফ হোসেন। তার ৫৫ বলের অপরাজিত ৭৭ রানে ভর করে ৫ উইকেটে ১৫৮ রান করে বাংলাদেশ। দলের জয়ে ম্যাচসেরা হয়েছেন আফিফ।

তার দায়িত্বশীল ব্যাটিং নিয়ে মিরাজ বলেন, কোচিং স্টাফ যারা ছিলেন, তারা সবাই আমাদের প্রশংসা করেছেন। বিশেষ করে, আফিফ খুব ভালো ব্যাটিং করেছে। এছাড়া যারা ছোট ছোট অবদান রেখেছে, তাদেরও প্রশংসা করেছেন।

এই অফ স্পিনিং অলরাউন্ডার আরও বলেন, আমরা সংযুক্ত আরব আমিরাতে একটা উদ্দেশ্য নিয়ে এসেছি। বিশ্বকাপের প্রস্তুতি নিতে এখানে এসেছি। দুই-তিন দিন ভালো অনুশীলন করেছি এবং ম্যাচও খেলেছি। আমাদের যে সমস্যা ছিল এবং যে ভুলগুলো আমরা করছি, সেসব কমিয়ে আনার চেষ্টা করছি। এগুলোই আমরা পরের ম্যাচে কাজে লাগানোর চেষ্টা করব।

‘চাপের মুহূর্তে কিভাবে জিততে হয় বুঝেছি’

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৮:৩১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

অতীতে স্নায়ুচাপে ভেঙে পড়ার কারণে অহরহ ম্যাচে হেরেছে বাংলাদেশ। এশিয়া কাপের ফাইনালের মতো গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচেও একই কারণে হেরে কান্নায় বুক ভাসাতে হয়েছে সাকিব-তামিম-মুশফিকদের।

রোববার সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে চাপ সামলে জিতেছে বাংলাদেশ। দুই ম্যাচের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ৭ রানের জয় পায় নুরুল হাসান সোহানের নেতৃত্বাধীন দলটি। 

কষ্টার্জিত এ জয়ের পর জাতীয় দলের তারকা ক্রিকেটার মেহেদি হাসান মিরাজ বলেন, আমাদের যেটা দরকার ছিল, এ রকম চাপের মুহূর্তে কিভাবে ম্যাচ জিততে হয় আমরা বুঝেছি। এ অবস্থায় আমরা অনেক ম্যাচ হেরেছি। শেষ কয়েকটা সিরিজ, এশিয়া কাপের ম্যাচগুলো কাছাকাছি গিয়ে হেরে গেছি। কালকের অবস্থায়ও এমন ছিল। আমাদের বোলাররা দারুণভাবে ফিরেছে।

৪৭ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে যাওয়া দলকে সম্মানজনক স্কোর উপহার দিতে দায়িত্বশীল ব্যাটিং করেন আফিফ হোসেন। তার ৫৫ বলের অপরাজিত ৭৭ রানে ভর করে ৫ উইকেটে ১৫৮ রান করে বাংলাদেশ। দলের জয়ে ম্যাচসেরা হয়েছেন আফিফ। 

তার দায়িত্বশীল ব্যাটিং নিয়ে মিরাজ বলেন, কোচিং স্টাফ যারা ছিলেন, তারা সবাই আমাদের প্রশংসা করেছেন। বিশেষ করে, আফিফ খুব ভালো ব্যাটিং করেছে। এছাড়া যারা ছোট ছোট অবদান রেখেছে, তাদেরও প্রশংসা করেছেন।

এই অফ স্পিনিং অলরাউন্ডার আরও বলেন, আমরা সংযুক্ত আরব আমিরাতে একটা উদ্দেশ্য নিয়ে এসেছি। বিশ্বকাপের প্রস্তুতি নিতে এখানে এসেছি। দুই-তিন দিন ভালো অনুশীলন করেছি এবং ম্যাচও খেলেছি। আমাদের যে সমস্যা ছিল এবং যে ভুলগুলো আমরা করছি, সেসব কমিয়ে আনার চেষ্টা করছি। এগুলোই আমরা পরের ম্যাচে কাজে লাগানোর চেষ্টা করব।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ২০২২