‘ভারতের বড় ক্ষতি করেছে এবাদত’
jugantor
‘ভারতের বড় ক্ষতি করেছে এবাদত’

  স্পোর্টস ডেস্ক  

০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ২০:৩০:৫৮  |  অনলাইন সংস্করণ

সদ্য শেষ হওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাজে পারফরম্যান্সের পর নিউজিল্যান্ড সফরে ওয়ানডে সিরিজে হেরে সমালোচনার তীরে বিদ্ধ হয় ভারতীয় ক্রিকেট দল। সেই সমালোচনা এড়াতে বাংলাদেশ সফরে এসে জয়ে প্রত্যাশী ছিল রোহিত শর্মার নেতৃত্বাধীন দলটি।

কিন্তু সফরে এসেই পরাজয় দেখে ভারত। সাকিব আল হাসানের স্পিন আর এবাদত হোসেনের গতির মুখে পড়ে ৪১.২ ওভারে ১৮৬ রানে অলআউট হয় ভারত। ৫ ও ৪টি করে উইকেট শিকার করেন সাকিব ও এবাদত।

টার্গেট তাড়ায় জয়ের স্বপ্ন দেখা বাংলাদেশ হেরেই যাচ্ছিল। কিন্তু মেহেদি হাসান মিরাজ ও মোস্তাফিজুর রহমানের ৪১ বলের ৫১ রানের শেষ উইকেটের অবিশ্বাস্য জুটিতে ঐতিহাসিক জয় পায় বাংলাদেশ।

তিন ম্যাচের প্রথম ওয়ানডেতে হেরে ১-০তে পিছিয়ে যায় ভারত। বিরাট কোহলিদের এই হার নিয়ে ক্রিকবাজের ক্রিকেট বিশ্লেষণী অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে ভারতীয় তারকা ক্রিকেটার দীনেশ কার্তিক বলেন, বাংলাদেশে গেলে আপনি মন্থর উইকেট প্রত্যাশা করবেন। পেস ও বাউন্স উইকেট প্রত্যাশা করবেন না। কিন্তু প্রথম ওয়ানডের উইকেটে সেটাই ছিল। সাকিব তো উইকেট নিয়েছেই। এবাদতের ৪ উইকেটটাই ভারতের বড় ক্ষতি করে দিয়েছে।

ইবাদতের গতি ও বাউন্সের প্রশংসা করে দীনেশ কার্তিক বলেন, সে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের সামনের পায়ে আসতে দেয়নি। আপনি শর্ট বল তখনই ভালো খেলবেন, যখন শর্ট বলে আপনি সহজাত প্রতিক্রিয়া দেখাবেন। শর্ট বলের জন্য অপেক্ষা করে ভালো খেলতে পারবেন না।

তিনি আরও বলেন, এ ধরনের গতিময় বোলিং খেলার ক্ষেত্রে ব্যাটসম্যানকে সব সময় ফুল লেংথের জন্যই প্রস্তুত থাকতে হয়। আর কেউ যদি শর্ট বল করে বসে, তখন মস্তিষ্ক বিদ্যুৎগতিতে সহজাত প্রতিক্রিয়া দেখায়। ভারতীয়দের সেটা করতেই দেয়নি এবাদত।

‘ভারতের বড় ক্ষতি করেছে এবাদত’

 স্পোর্টস ডেস্ক 
০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮:৩০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সদ্য শেষ হওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাজে পারফরম্যান্সের পর নিউজিল্যান্ড সফরে ওয়ানডে সিরিজে হেরে সমালোচনার তীরে বিদ্ধ হয় ভারতীয় ক্রিকেট দল। সেই সমালোচনা এড়াতে বাংলাদেশ সফরে এসে জয়ে প্রত্যাশী ছিল রোহিত শর্মার নেতৃত্বাধীন দলটি।

কিন্তু সফরে এসেই পরাজয় দেখে ভারত। সাকিব আল হাসানের স্পিন আর এবাদত হোসেনের গতির মুখে পড়ে ৪১.২ ওভারে ১৮৬ রানে অলআউট হয় ভারত। ৫ ও ৪টি করে উইকেট শিকার করেন সাকিব ও এবাদত।

টার্গেট তাড়ায় জয়ের স্বপ্ন দেখা বাংলাদেশ হেরেই যাচ্ছিল। কিন্তু মেহেদি হাসান মিরাজ ও মোস্তাফিজুর রহমানের ৪১ বলের ৫১ রানের শেষ উইকেটের অবিশ্বাস্য জুটিতে ঐতিহাসিক জয় পায় বাংলাদেশ।

তিন ম্যাচের প্রথম ওয়ানডেতে হেরে ১-০তে পিছিয়ে যায় ভারত। বিরাট কোহলিদের এই হার নিয়ে ক্রিকবাজের ক্রিকেট বিশ্লেষণী অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে ভারতীয় তারকা ক্রিকেটার দীনেশ কার্তিক বলেন, বাংলাদেশে গেলে আপনি মন্থর উইকেট প্রত্যাশা করবেন। পেস ও বাউন্স উইকেট প্রত্যাশা করবেন না। কিন্তু প্রথম ওয়ানডের উইকেটে সেটাই ছিল। সাকিব তো উইকেট নিয়েছেই। এবাদতের ৪ উইকেটটাই ভারতের বড় ক্ষতি করে দিয়েছে।

ইবাদতের গতি ও বাউন্সের প্রশংসা করে দীনেশ কার্তিক বলেন, সে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের সামনের পায়ে আসতে দেয়নি। আপনি শর্ট বল তখনই ভালো খেলবেন, যখন শর্ট বলে আপনি সহজাত প্রতিক্রিয়া দেখাবেন। শর্ট বলের জন্য অপেক্ষা করে ভালো খেলতে পারবেন না।

তিনি আরও বলেন, এ ধরনের গতিময় বোলিং খেলার ক্ষেত্রে ব্যাটসম্যানকে সব সময় ফুল লেংথের জন্যই প্রস্তুত থাকতে হয়। আর কেউ যদি শর্ট বল করে বসে, তখন মস্তিষ্ক বিদ্যুৎগতিতে সহজাত প্রতিক্রিয়া দেখায়। ভারতীয়দের সেটা করতেই দেয়নি এবাদত।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন