স্পেনের হারের কারণ

  যুগান্তর ডেস্ক    ০৩ জুলাই ২০১৮, ০৪:৪৪ | অনলাইন সংস্করণ

স্পেন,

রাশিয়ার কাছে হেরে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিয়েছে স্পেন। শক্তিমত্তা, কৌশল, স্কিল-সবদিক দিয়ে এগিয়ে থাকলেও কেন এ পরিণতি দলটির? এর উত্তর খুঁজতে চুলচেরা বিশ্লেষণ হাজির করছেন ফুটবল বোদ্ধারা। সেই দলের অন্যতম সদস্য সেস ফ্যাব্রিগাস।

টিকিটাকা ফুটবলের পসরা সাজিয়ে ২০১০ বিশ্বকাপ জিতেছিল স্পেন। বিশ্বকাপজয়ী সেই দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন এ মিডফিল্ডার। তিনি খুঁজে বের করার চেষ্টা করেছেন বিশ্বকাপে স্পেনের ব্যর্থতার কারণ।

চেলসি তারকার মতে, টিকিটাকা ফুটবল ঠিকই খেলেছে স্প্যানিয়ার্ডরা। তবে লক্ষ্যহীনভাবে। এ কারণেই রুশদের কাছে টাইব্রেকারে হেরে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় ঘটেছে তাদের।

বিবিসি স্পোর্টসকে দেয়া সাক্ষাৎকারে স্বাগতিকদের কাছে স্পেনের হারের ময়নাতদন্ত করেছেন ফ্যাব্রিগাস, টিকিটাকা ফুটবলের ভক্ত আমি। সুন্দর একটি কৌশল। তবে এবার কাজে আসেনি। প্রতিপক্ষের সীমানায় স্প্যানিশদের ভয়ংকর হয়ে উঠতে দেখিনি আমরা। একমাত্র ফরোয়ার্ড ডিয়েগো কস্তা যা কিছুটা চেষ্টা করেছে। আর বক্সের বাইরে থেকে ইসকো। ব্যর্থতার দায় বাকিদের নিতেই হবে।

স্পেনের পজেশন নির্ভর খেলার সমালোচনা করে ফ্যাব্রিগাস বলেন, প্রতি ম্যাচেই আক্রমণের সুযোগ এসেছে। কস্তা যতটা পেরেছে দ্রুত দৌড়েছে। কিন্তু আক্রমণে না উঠে আবারও পেছনে বল পাঠিয়েছে। তারা যেন শুধু বলটা পায়ে বেশি রাখতে চেয়েছিল। শুধু বল দখলে রাখলে সাফল্য আসে না। মাথায় রাখতে হবে এটি গোলের খেলা। যেকোনোভাবে গোল পেলেই হয়।

শুধু টিকিটাকার ভুল ব্যবহারই নয়, স্পেনের ব্যর্থতার পেছনে আরও একটি নাম বড় করে উচ্চারিত হচ্ছে। তিনি হলেন তারকা গোলকিপার ডেভিড ডি গিয়া। পরিসংখ্যানেও তার ব্যর্থতা চোখে পড়ছে। ১৯৬৬ সালের পর গিয়াই একমাত্র গোলকিপার, যিনি তিন ম্যাচে তিনটি সেভও করতে পারেননি!

ঘটনাপ্রবাহ : বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter