হৃদয়ে লালের ছাপ, মস্তিষ্কে নীলের জোয়ার : জিকো

  যুগান্তর রিপোর্ট ১০ জুলাই ২০১৮, ১১:৫১ | অনলাইন সংস্করণ

লুকাকু বনাম এমবাপ্পে
লুকাকু বনাম এমবাপ্পে। ছবি: ইন্টারনেট

নানা ঘটন অঘটনের মধ্য দিয়ে বিশ্বকাপ চলে এলো শেষ চারের লড়াইয়ে। এবারের বিশ্বকাপ ফুটবলবোদ্ধাদের সমীকরণকে বুড়ো আঙুল দেখিয়েছে অনেকবার।

ফেভারিটের তকমা লাগানো দলগুলোই যেন আগভাগে ছিটকে পড়ে যাওয়ার পাল্লায় ছিল।

খুব কম ম্যাচই আছে, যেগুলো ক্রীড়ামোদীদের স্মৃতিতে চিরকালের জন্য গেঁথে থাকে।

আজ মঙ্গলবার রাত ১২টায় বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে সে রকমই একটি ম্যাচ দেখতে চলেছে বিশ্ব।

আজকের ম্যাচেই বিশ্বকাপ কার ঘরে যাবে এমনটি নির্ধারণ করে ফেলতে চান ফুটবলপণ্ডিতরা। আজ বেলজিয়ামের সোনালি প্রজন্মের ফুটবলের সঙ্গে ফ্রান্সের ফুটবল নবজাগরণের লড়াই।

হেক্সা মিশন নিয়ে খেলতে আসা লাতিন ফুটবলের রাজা ব্রাজিলকে হারিয়ে দিয়ে বেলজিয়াম, ফ্রান্সের কাছে অনেক বড় একটা প্রতিপক্ষ হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে।

ম্যাচটি নিয়ে ভবিষ্যদ্বাণী আর কেউ করতে চাচ্ছেন না। সমানে সমানে লড়াই হিসেবে দেখছে দুদলকে।

রাজিলিয়ান কিংবদন্তি সাদা পেলে বলে খ্যাত জিকোর মতে, দুদলের কোচই ‘হট সিটে’ বসে আছেন। নিজের অভিব্যক্তি প্রকাশ করেছেন তিনি এভাবে- আমার হৃদয়ে লালের ছাপ, মস্তিষ্কে নীলের জোয়ার। অর্থাৎ হৃদয় বলছে বেলজিয়াম, মস্তিষ্ক ফ্রান্স।

জিকো বলেন, ‘বেলজিয়াম আমার হৃদয়ে আছে বলা মানে এই নয় যে আমি ফরাসি দল বা ওদের সমর্থকদের কোনোভাবে অপমান করতে চাইছি। তবে এটি বলতে বাধ্য হচ্ছি- বেলজিয়াম এখন দুরন্ত ফর্মে আছে।

পাশাপাশি ওদের সাপোর্ট স্টাফের তালিকায় রয়েছে ধুরন্ধর কোচ রবের্তো মার্টিনেস আর সহকারী কোচ থিয়েরি অঁরি। ভাগ্যটাও যে সঙ্গে আছে বেলজিয়ামের, সেটি তো কোয়ার্টার ফাইনালের ম্যাচেই বোঝা গেছে।

বেলজিয়ামের সঙ্গে তুমুল লড়াই হবে বলে মনে করেন গ্রিজম্যান। কেননা এই বিশ্বকাপে বেলজিয়াম পাঁচ ম্যাচে ১৪ গোল করে তাদের আক্রমণের শক্তিটা দেখিয়ে দিচ্ছে। বেলজিয়ামের লুকাকুতে যত ভয় ফরাসিদের। ফরাসি দুর্গে হানা দিতে থাকবে এই গতিমানব। লুকাকু ও অ্যাজারকে বল অ্যাসিস্ট করতে রয়েছেন দে ব্রুইন। পেছনে ফেলাইনি ও উইতসেলতো আছেই।

রক্ষণে কিছুটা দুর্বল বেলজিয়াম ত্রয়ী ভার্তোমেন, কোম্পানি ও আল্দারওয়েল্দের, ফ্রান্সের গ্রিজ়ম্যান, দেম্বেলে এবং এমবাপ্পেকে সামলানোর ক্ষমতা আছে কিনা, সেটিই এখন দেখার বিষয়।

বেলজিয়াম বিগত সব ম্যাচেই গোল দিতে মুন্সিয়ানা দেখিয়েছে। তবে ফরাসিদের দেয়াল বার্সেলোনার উমতিতি এবং রিয়াল মাদ্রিদের ভারানকে ভেদ করা যে বড়ই দুষ্কর তা ইতিমধ্যে বিশ্ব জেনে গেছে।

তাদের সামনে রয়েছে কন্তে। মাঝখানে পগবার সঙ্গে থাকবে মাতুইদি। মাঝমাঠ ও স্ট্রাইকারের মধ্যে যোগসূত্র হবে গ্রিজ়ম্যান। গোলের আশায় চেয়ে থাকা এমবাপ্পে ও দেম্বেলকে বল জোগান দিয়ে যাবে গ্রিজ়ম্যান। এ ছাড়া তার টর্নেডো গতির কিকতো রয়েছেই।

অতএব মাঝমাঠে তুমুল যুদ্ধ চলবে নীল বনাম লাল রঙে। পগবা, মাতুইদি, গ্রিজম্যান, কন্তে বনাম ফেলাইনি, উইতসেল, দে ব্রুইন, অ্যাজার। এ লড়াই হবে আজ চরম উপভোগ্য। আক্রমণ, প্রতি আক্রমণের উচ্ছ্বাস ঠেকিয়ে দিতে পারেন কেবল দুজন। হুগো লরিস ও থিবো কোরটইস। জি হ্যাঁ, দুদলের গোলরক্ষকের কথা বলছি। দুদলেরই গোলরক্ষকের সামর্থ্য রয়েছে প্রতিপক্ষের সব আক্রমণের আগুনে পানি ঢেলে দেয়ার।

তাই আর রাত অপ্রতিরোধ্য ফ্লেমিশভাষী বেলজিয়ামের সঙ্গে ফরাসিদের একটি চরম দ্বৈরথ দেখতে যাচ্ছে বিশ্ব।

ঘটনাপ্রবাহ : বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮

 

 

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.