‘ক্রোয়েশিয়াকে থামানোর শক্তি ফ্রান্সের নেই’

  স্পোর্টস ডেস্ক, ১৫ জুলাই ২০১৮, ০৫:৪৬ | অনলাইন সংস্করণ

ক্রোয়েশিয়া,

শেষ লগ্নে রাশিয়া বিশ্বকাপ। রোববার মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে শিরোপার লড়াইয়ে লড়বে ক্রোয়েশিয়া-ফ্রান্স। মাত্র পঞ্চমবারের মতো বিশ্বকাপ খেলতে এসেই বাজিমাত ক্রোয়েশিয়ার। এখন বিশ্বজয়ের দ্বারপ্রান্তে লুকা মড্রিচ-ইভান রাকিটিচরা। তাদের নিয়ে দারুণ আশাবাদী ক্রোয়েশিয়ার সাবেক কোচ মিরোস্লাভ ভ্লাজেভিক। তিনি মনে করেন, যেকোনো মূল্যে স্বপ্নের সোনালী ট্রফিটা জিতবে তারাই।

বিশ্বকাপে ক্রোয়েশিয়ার পথচলা শুরু ১৯৯৮ সালে। প্রথমবার খেলতে এসেই সবাইকে চমকে দেয় দলটি। বাঘা বাঘা দলকে টপকে হয় তৃতীয়। সেই স্বপ্নযাত্রার কোচ ছিলেন ভ্লাজেভিক, নিঃসন্দেহে আমরা এটি পেতে যাচ্ছি। আমরা হব বিশ্বচ্যাম্পিয়ন। এ নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই।

এ ফুটবল মস্তিষ্ককে আত্মবিশ্বাস জোগাচ্ছে মড্রিচদের আগুনে পারফরম্যান্স। তিনি বলেন, তারা ক্রোয়েশিয়ার সোনালী প্রজন্ম। প্রত্যেকেই মেধাবী ও প্রতিভায় ভাস্বর। মাঠে সবাই সবাইকে পড়তে পারে। তাদের মধ্যে দারুণ সমন্বয় আছে। সবাই ধারাবাহিক ও ক্ষীপ্রগতির। ওদের আটকানোর সাধ্য কারো নেই।

মুখে যতই বলুন, বাস্তব চিত্র কিন্তু ভিন্ন। চলতি বিশ্বকাপে দুর্দান্ত খেলছে ফ্রান্সও। তাদের কাছে পাত্তা পায়নি ফুটবলের অভিজাত দুই দল আর্জেন্টিনা ও উরুগুয়ে। বিদায়ঘণ্টা বেজেছে এবারের বিশ্বকাপে দুরন্ত খেলা বেলজিয়ামেরও।

তবু ক্রোয়েশিয়াকেই চ্যাম্পিয়ন দেখছেন ৮৩ বছর বয়সী কোচ, ফ্রান্স শক্তিশালী, ভয়ংকর। শিরোপার দাবিদার তারাও। হয়তো সেটিই বিশ্বাস করে বসে আছে ফরাসিরা। তবে ক্রোয়েশিয়ার এ দলকে থামানোর মতো সামর্থ্য তাদের নেই। এটি আগের যেকোনো দলের চেয়ে বহুগুণ শক্তিশালী। আমরাই বিশ্বকাপ জিতব।

ঘটনাপ্রবাহ : বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮

 

 

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.