এনামুল হক বিজয়ের হলো কী?

  স্পোর্টস ডেস্ক ২৬ জুলাই ২০১৮, ০৫:৩৪ | অনলাইন সংস্করণ

এনামুল হক বিজয়
এনামুল হক বিজয়-ফাইল ছবি

একটা ইনজুরিই শেষ করে দিলো এনামুল হক বিজয়ের ক্যারিয়ার। বিশ্বকাপে ফিল্ডিংয়ের সময়ে কাঁধে চোট পাওয়া বিজয় ফিট হয়ে জাতীয় দরে ফিরলেও নিজেকে আর ফিরে পাননি। প্রত্যাশিত পারফরম্যান্স করতে না পারায় জাতীয় দলে থিঁতু হতে পারছেন না তিনি।

ঘরোয়া ক্রিকেটে ভালো খেললেও জাতীয় দলে সেই পারফরম্যান্সের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারছেন না বিজয়। জাতীয় দলের হয়ে সর্বশেষ ১০টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলে করেছেন মাত্র ১৪৯ রান। এক ম্যাচেও ফিফটি গড়তে পারেননি এ ওপেনার।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে শূন্য রানে সাজঘরে ফেরা বিজয় আজ ভালো শুরুর পরও নিজের ইনিংসটাকে লম্বা করতে পারেননি। আলজারি জোসেফের গতির বলে বোল্ড হওয়ার আগে ৯ বলে দুই চার ও দুই ছক্কায় ২৩ রান করেন।

এই রিপোর্ট লেখা অবস্থায় বাংলাদেশ দলের সংগ্রহ ১৩ ওভারের খেলা শেষে ১ উইকেট হারিয়ে ৯১ রান। ৩৪ ও ৩২ রান নিয়ে ব্যাট করছেন তামিম ইকবাল ও সাকিব আল হাসান।

সিরিজ জয়ে বাংলাদেশের প্রয়োজন ২৭২ রান

টেস্টে বাজেভাবে পরাজিত হওয়া বাংলাদেশ দলকে ওয়ানডে সিরিজে জিততে হলে ২৭২ রান করতে হবে। তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় খেলায় আগে ব্যাট করে ২৭১ রান সংগ্রহ করেছে স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ১২৫ রান করেছেন সিমরন হিতমার। এছাড়া ৪৪ রান করেন রোভন পাওয়েল। বাংলাদেশের হয়ে ৩ উইকেট নেন রুবেল। দুটি করে উইকেট ভাগাভাগি করেন সাকিব-মোস্তাফিজ।

ভালো শুরুর পরও সেই ভালোর রেশ ধরে রাখতে পারেননি টাইগাররা। ইনিংসের শুরু থেকে অসাধারণ বোলিং করে ১০২ রানে ক্যারিবীয় টপঅর্ডার চার ব্যাটসম্যানের উইকেট তুলে নেন মাশরাফি-মিরাজ-সাকিব-রুবেলরা।

পঞ্চম উইকেটে প্রতিরোধ গড়ে তুলেন সিমরন হিতমার এবং রোভন পাওয়েল। তাদের মধ্যকার জুটি বেশি ভুগিয়েছে বাংলাদেশ দলকে। টাইগারদের দুর্বলতাকে কাজে লাগিয়ে ৪ উইকেটে ১০২ রান করা ওয়েস্ট ইন্ডিজ, পঞ্চম উইকেট তুলে নেয় ১০৩ রান।

পঞ্চম উইকেটে রোভন পাওয়েলকে সঙ্গে নিয়ে ১১০ বলে ১০৩ রানের জুটি গড়েন সিমরন হিতমার। ৬৭ বলে ৪৪ রান করা পাওয়েলকে বোল্ড করে সাজঘরে ফেরান রুবেল হোসেন। এর আগে প্রথম ওয়ানডেতে শূন্য রানে ফিরলেও আজ দ্বিতীয় ম্যাচে দলের প্রয়োজনে দায়িত্বশীল ব্যাটিং করেন ২৫ বছর বয়সী রোভন পাওয়েল।

সাকিবের এমন ক্যাচ ছেড়ে দেয়া ঠিক হয়নি

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ খেলে জাতীয় দলে সুযোগ করে নেয়া সিমরন হিতমারকে সেঞ্চুরি করতে সাহায্য করেছেন সাকিব আল হাসান। যে হিতমার ৭৯ রানে সাজঘরে ফিরে যাওয়ার কথা ছিল, সেই সিমরন ফিরলেন ১২৫ রান করে।

ইনিংসের ৪৩তম ওভারে রুবেল হোসেনের বলে ডিপ মিড উইকেটে ক্যাচ তুলে দেন হিতমার। কিন্তু অভিজ্ঞ সাকিব বলটি তালুবন্দি করতে পারেননি। শুধু ক্যাচ ড্রপ করেননি! সাকিবের হাত ফসকে বেরিয়ে যাওয়া বলটি ছক্কায় পরিণত হয়।

৭৯ রানে নতুন করে জীবন পাওয়া হিতমার স্লগ ওভারে আরও আক্রমণাত্নক হয়ে ওঠেন, ব্যাটিং তাণ্ডব চালান। একের পর এক বাউন্ডারি হাঁকিয়ে যাওয়া ক্যারিবীয় এই তরুণ ব্যাটসম্যান থামেন ইনিংসের শেষ ওভারে। শেষ দিকে মাত্র ২২ বল খেল ৪৭ রান করেন ২১ বছর বয়সী এই অলরাউন্ডার।

ইনিংস শেষ হওয়ার তিন বল পূর্বে রান আউটের ফাঁদে পরার আগে ৯৩ বলে সাত ছক্কা এবং তিন চারের সাহায্যে ১২৫ রানের ইনিংস সাজান হিতমার। তার কারণেই ২৭১ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর গড়তে সক্ষম হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

সাকিবের পর রুবেলের আঘাত বিপদে উইন্ডিজ

নিয়মিত বিরতিতে উইকেট তুলে নিয়েছেন বাংলাদেশি বোলাররা। স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজ ব্যাটসম্যানদের উইকেটে থিঁতু হতেই দেননি টাইগাররা।মাশরাফি, মিরাজ, সাকিব, রুবেলদের তোপের মুখে পড়ে একের পর এক সাজঘরে, ইভিন লুইস, ক্রিস গেইল, শাই হোপ ও জেসন মোহাম্মদরা।

আগের ম্যাচে ১০ রান করা ক্যারিবীয় দলের একমাত্র মুসলিম ক্রিকেটার জেসন মোহাম্মদ, রুবেল হোসেনের গতির বলে উইকেটকিপার মুশফিকুর রহিমের হাতে ক্যাচ তুলে দেয়ার আগে ১২ রান করেন।

সাকিব ফেরান শাই হোপকে, বাংলাদেশ দলেকে ব্রেক থ্রু এনেদেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। ব্যাটিং দানব ক্রিস গেইলকে ফেরান মেহেদি হাসান মিরাজ। তিনে ব্যাটিংয়ে নামা ওয়েস্ট ইন্ডিজের টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান শাই হোপকে ফেরান সাকিব আল হাসান। প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে মাত্র ৬ রান করা ক্যারিবীয় এই উদীয়মান ব্যাটসম্যানকে এদিন ২৫ রানে ফেরান বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব।

ব্যাটিং দানব গেইলকে ফেরান মিরাজ

ক্রিস গেইলকে নিয়েই যত ভয়! যে কোনো দিন যে কোনো দলের বিপক্ষে ব্যাটিং তাণ্ডব ঘটিয়ে দেয়ার সক্ষমতা রাখেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের এ ওপেনার। দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচে ২৯ রানেই গেইলকে সাজঘরে ফেরান অফ স্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজ। ইভিন লুইসের মতো গেইলও ফেরেন এলবিডব্লিউ হয়ে। এর আগে প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে রান আউটের ফাঁদে পরার আগে ৪০ রান করেছিলেন গেইল।

বাংলাদেশকে প্রথম সাফল্য এনে দেন মাশরাফি

প্রথম ওয়ানডের মতো দ্বিতীয় ম্যাচেও বাংলাদেশ দলেকে ব্রেক থ্রু এনে দেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। ওয়ানডে সিরিজের দুই ম্যাচেই বাংলাদেশ দলের অধিনায়কের গতির শিকার হয়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের ওপেনার ইভিন লুইস। আগের ম্যাচে ১৭ রানে আউট হওয়া লুইসকে এদিন ১২ রানে এলবিডব্লিউ করেছেন মাশরাফি।

টসে জিতে বোলিংয়ে বাংলাদেশ

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচে টসে জিতে আগে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। এই ম্যাচের মধ্য দিয়ে সিরিজ নিশ্চিত করতে চায় বাংলাদেশ দল। এর আগে সিরিজের প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে দাপুটে জয়ে পেয়েছে সাকিব-তামিমরা। প্রথম ম্যাচে জিতে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছে বাংলাদেশ। আজ একই ভেন্যুতে দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি দু’দল।

গায়ানার প্রভিডেন্স স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত খেলাটি সরাসরি সম্প্রচার করে গাজী টিভি ও চ্যানেল নাইন।

বাংলাদেশ একাদশ : তামিম ইকবাল, এনামুল হক বিজয়, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাব্বির রহমান, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মেহেদী হাসান মিরাজ, মাশরাফি বিন মুর্তজা, রুবেল হোসেন ও মোস্তাফিজুর রহমান।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ একাদশ: ক্রিস গেইল, এভিন লুইস, শাই হোপ, জেসন মোহাম্মদ, শিমরন হেটমায়ার, জ্যাসন হোল্ডার, রোভম্যান পাওয়েল, কিমো পল, দেবেন্দ্র বিশু, অ্যাশলে নার্স ও আলজারি জোসেফ।

ঘটনাপ্রবাহ : বাংলাদেশ ট্যুর অব ওয়েস্ট ইন্ডিজ-২০১৮

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter