মেসি-রোনাল্ডোর মধ্যে পার্থক্য ব্যাখ্যা করলেন তেভেজ

প্রকাশ : ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২০:৫৯ | অনলাইন সংস্করণ

  স্পোর্টস ডেস্ক

বর্তমান বিশ্ব ফুটবলের দুই উজ্জ্বল নক্ষত্র লিওনেল মেসি ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো।  দুজনই সর্বকালের অন্যতম সেরা।  নানা সময়ে তাদের নিয়ে সুচিন্তিত মতামত দিয়েছেন ফুটবলবোদ্ধারা।  এবার দুই মহাতারকার মধ্যে পার্থক্য ব্যাখ্যা করলেন কার্লোস তেভেজ।  

মেসি-রোনাল্ডো উভয়ের সঙ্গেই কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে খেলার অভিজ্ঞতা আছে তেভেজের।  জাতীয় দল আর্জেন্টিনার হয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ছোট ম্যাজিশিয়ানের সঙ্গে খেলেছেন তিনি।  আর সিআর সেভেনের সঙ্গে জুটি বেঁধে মাঠ দাপিয়ে বেড়িয়েছেন ক্লাবপর্যায়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে। ফলে দুজনকেই কাছ থেকে দেখার অভিজ্ঞতা আছে তার।  স্বাভাবিকভাবেই দুই মহারথীর মধ্যে সহজ-সরল সমীকরণে পার্থক্য খুজে বের করেছেন এ আর্জেন্টাইন।

তেভেজ বলেন, লিওনেল মেসি; আমি তাকে কখনো জিমে দেখিনি।  বিশ্রামের সময়ে (লিজার টাইম) নিজেকে আরও শাণিয়ে নিতে তাকে কখনো বাড়তি অনুশীলন করতে দেখিনি। কখনো টেকনিক্যাল সক্ষমতা বাড়াতে ব্যায়াম বা অনুশীলন দেখিনি।

তিনি বলেন, তার (মেসি) সবকিছুই প্রাকৃতিক।  ঈশ্বর বা প্রকৃতি প্রদত্ত।  বাড়তি অনুশীলনের দরকার হয় না।  তবে সেটপিস নিয়ে অনুশীলন করেন।  ক্যারিয়ারের প্রথমদিকে পেনাল্টি, কর্নার বা ফাউল থেকে পাওয়া শট নিত না।  এখন সব নেয়।

তবে রোনাল্ডোর ব্যাপরটি সম্পূর্ণ ভিন্ন।  তার এত দূর উঠে আসার নেপথ্যে রয়েছে কঠোর অধ্যাবসায়। এর কাছে অসংখ্যবার মাথা নত করেছেন তেভেজ।  তিনি বলেন, সে (রোনাল্ডো) সবসময় অনুশীলনের পর জিম করে।  সেখানে ঘাম ঝরায়। ভালো কিছুর জন্য সবকিছু করে ও।  যে কোনো কাজে সবসময় সবার আগে স্পটে পৌঁছায়।  তার বেশির ভাগ কৌশলই অর্জিত।

সাবেক আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড জানান, অনুশীলনের সময় সকাল ৯টায় নির্ধারণ করা হলে আমি যেতাম ৮টায়।  গিয়ে দেখতাম, রোনাল্ডো সেখানে।  এমনকি যদি সাড়ে ৭টায় গিয়ে পৌঁছাতাম, দেখতাম সে সেখানে।  তাকে হার মানানোর ফন্দি আঁটলাম।  তাই একদিন ৬টায় গিয়ে হাজির হলাম।  সেদিনও দেখি ও ওখানে।  ঘুমাচ্ছি, তবুও প্র্যাকটিসে সে।