পরিশ্রম এবং ধৈর্যের ফল পেয়েছি :আরিফুল হক

  আল-মামুন ০২ অক্টোবর ২০১৮, ২২:৪৯ | অনলাইন সংস্করণ

আরিফুল হক
আরিফুল হক-ছবি সংগৃহীত

অলরাউন্ডার হিসেবে জাতীয় দলে অভিষেক হয় আরিফুল হকের। কিন্তু এখন নিজেকে নিয়মিত করতে পারেনি। ৬টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলা আরিফুল দলের সঙ্গে দুবাই সফরে গেলেও এশিয়া কাপে খেলার সুযোগ পাননি।

দেশে ফিরেই মঙ্গলবার বরিশাল বিভাগের বিপক্ষে জাতীয় লিগে রংপুরের হয়ে ৩২৫ বলে ২১ চার ও ৪টি ছক্কায় ২৩১ রান করেন। ২৬ বছর বয়সী এই অলরাউন্ডার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলেছেন যুগান্তরের সঙ্গে।

যুগান্তর: দুবাই থেকে ফিরেই ডাবল সেঞ্চুরি...

আরিফুল: আসলে ভালো একটা ইনিংস হয়েছে। আমার কিছু টেকটিক অ্যাপ্লাই করার দরকার ছিল, সেটা করতে পেরেছি। ভালো একটা ম্যাচ হয়েছে। আশা করছি, এর ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারব।

যুগান্তর: লংগার ভার্সনে ডাবল সেঞ্চুরি করে টেস্ট দলে জায়গা করে নেয়ার ইঙ্গিত দিলেন?

আরিফুল: আসলে এ ব্যাপারে কর্তৃপক্ষ ভালো বলতে পারবে। সবারই স্বপ্ন থাকে টেস্ট খেলার। টেস্ট হলো মর্যাদার খেলা। আমারও স্বপন আছে টেস্ট খেলার। চার দিনের ম্যাচ যেহেতু খেলতেছি, আশা করছি ধারাবাহিক পারফর্ম করলে একটা সময়ে টেস্টে খেলার সুযোগ আসবে। তার আগে জাতীয় লিগ, ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি ভালো খেলতে হবে।

যুগান্তর: ঘরোয়া ক্রিকেটের উইকেট নিয়ে নেতিবাচক ধারণা আছে?

আরিফুল: আসলে উইকেটে অনেক ঘাস আছে। ফ্লাট উইকেট। অনেক ধৈর্য নিয়ে খেলতে হয়। বাজে বল খেলা থেকে নিজেকে বিরত রেখেছি। একটা মিস হলেই আউট হয়ে যেতাম। কারণ জাতীয় দলের পেস বোলার কামরুল ইসলাম রাব্বি এবং অফ স্পিনার সোহাগ গাজী ভালো বোলিং করেছে। তবে আমি ঠান্ডা মাথায় ব্যাটিং করে গেছি, একটা ভুল হলেই আউট হয়ে যেতাম।

যুগান্তর: প্রচণ্ড গরমে জাতীয় লিগ হচ্ছে, কোনো সমস্যা হয়নি তো?

আরিফুল: না ভাই। আসলে দুবাইয়ে যে গরম ফেস করেছি, সেই তুলনায় আমাদের দেশে গরমই পড়ে না। আমাদের এখানে বাতাস আছে। বিদেশ থেকে আসার পর এখানে কোনো গরমই মনে হয়নি।

যুগান্তর: ঘরোয়া ক্রিকেটে রান পাচ্ছেন, কিন্তু আন্তর্জাতিকে প্রত্যাশিত ব্যাটিং হচ্ছে না?

আরিফুল: আমাকে টি-টোয়েন্টিতে সুযোগ দেয়া হয়েছে। ওখানে উড়াদুরা মারতে হয়, পারফরম্যান্স শো করার কম সময় পাওয়া যায়। ভবিষ্যতে ওয়ানডে এবং টেস্ট দলে সুযোগ আসলে চেষ্টা করব এই পারফরম্যান্সের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে।

যুগান্তর: এশিয়া কাপের দলে ছিলেন, কিন্তু একটি ম্যাচেও খেলার সুযোগ পাননি। তবে দেশত্যাগের আগে যুগান্তরকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, ভারতীয় তারকা হার্দিক পান্ডিয়ার পরামর্শ পেতে চান...

আরিফুল: হ্যাঁ, সেই টার্গেট ছিল। কিন্তু দুর্ভাগ্য প্রথম ম্যাচেই ইনজুরিতে আক্রান্ত হয়ে দেশে চলে যান পান্ডিয়া যে কারণে তার পরামর্শ নেয়ার সুযোগ পাইনি।

যুগান্তর: জাতীয় লিগের শুরুর ম্যাচেই ডাবল সেঞ্চুরি পেলেন, লিগে আপনার টার্গেট কী?

আরিফুল: প্রথম ম্যাচেই ডাবল সেঞ্চুরি পেয়েছি, খুব ভালো লাগছে ক্যারিয়ারে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি করতে পেরে। এখন আমার লক্ষ্য জাতীয় লিগের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হওয়া। সেই লক্ষ্যেই এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করব।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×