‘জাতি ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনার উপর যথেষ্ট বিরক্ত’

প্রকাশ : ১৩ জুন ২০১৮, ১৭:০০ | অনলাইন সংস্করণ

  মোহাম্মাদ জাকারিয়া

দরজায় কড়া নাড়ছে বিশ্বকাপ। পাড়া-মহল্লা, স্কুল-বিশ্ববিদ্যালয়, অফিস-আদালতে শুরু হয়ে গেছে ফুটবল উন্মাদনা।

জমে উঠেছে যক্তি-তর্ক আর গল্প? কে সেরা? আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল? নাকি জার্মানি, স্পেন? এই নিয়েই জার্মানি ফুটবল সমর্থক গোষ্ঠীর আজকের এই বিশেষ সংবাদ সম্মেলন। 

উপস্থিত প্রিয় সাংবাদিক ভাই ও বোনেরা। 

জাতি ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা এই দুই দলের উপর যথেষ্ট বিরক্ত। ফুটবলের নামে দুই দলের সমর্থকদের কামড়াকামড়ি ফুটবলতন্ত্রের জন্য অশনি সংকেত।

পুরো ফুটবল প্রিয় জাতি জানে জার্মানি ফুটবল উন্নয়নে বিশ্বাসী, কথায় নয়। 

এই দুই দল মুখে লম্বা লম্বা কথা বলে। জার্মানি লম্বা লম্বা কথা বলে না, লম্বা লম্বা পাসে নান্দনিক ফুটবল খেলে।

ফুটবল শুধু পায়ের খেলা নয়; মাথা দিয়েও খেলতে হয়। মাথা মানে হেড দিয়ে গোল করতে জার্মানিই সেরা।

আর এই দুই দল ফুটবলকে হ্যান্ডবল এবং রেসলিং খেলা বানিয়ে ছেড়েছে। এই দুই দল শুধু নিজেদের শ্রেষ্ঠ বলে দাবি করে।

ভাবে নিজেরাই সেরা। আমরা কি কেউ নই? আমরাও তো চার বার বিশ্বকাপ জিতেছি। ভেসে তো আসিনি। ফুটবল প্রিয় জনগণ তা ভালো করেই জানে।

আমরা ব্রাজিলকে সেভেন-আপ খাইয়েছি। অথচ, আমরা তা খুব বেশি বলি না। কিন্ত, একটি দল আমরা সে-দলের নাম মুখে উচ্চারিত করতে চাই না।

তারা কথায় কথায় এতো বেশি সেভেন-আপের কথা বলে যেন তারাই ব্রাজিলকে সাত গোল দিয়েছে। আমাদের ক্রেডিট তারা ছিনিয়ে নিয়ে নিচ্ছে।

(সংবাদ সম্মেলনের এ পর্যায়ে এক জার্মানি ভক্ত সেই দলের নাম আর্জেন্টিনা বললে, প্রেসিডিয়াম সদস্য উত্তেজিত হয়ে বলেন, তুমি আবার আর্জেন্টিনার নাম বলতে গেলে কেন?)

এবার জার্মানির পক্ষের জোয়ার দেখে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা রীতিমতো ভয়ে কাঁপছে।

প্রিয় সাংবাদিক ভাইয়েরা আপনারা জানেন, জার্মানি ফুটবলতন্ত্রের উন্নয়নে কাজ করে, নিজেদের আখের গোছাতে নয়। আসন্ন বিশ্বকাপে জার্মানি সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে দেবে।

(এ পর্যায়ে জার্মানির সমর্থকেরা, জার্মানি, আমরা জিততে জানি... এই বলে শ্লোগান দিলে প্রেসিডিয়াম সদস্য সবাইকে থামিয়ে দিয়ে বলেন, ও ভাই শ্লোগান দিয়েন না।)

-প্রেসিডিয়াম সদস্য, জার্মানি সমর্থক গোষ্ঠী। 

আগামী পর্বে থাকছে- 
যে দল ভালো ফুটবল খেলবে আমরা তাদের সাথেই ফুটবলীয় জোট গঠন করব: ইতালি ও নেদারল্যান্ড সমর্থক গোষ্ঠী