কর্ম অ্যাপ যৌথভাবে চালু করল ইন-স্টোর ক্যারিয়ার ডেভেলপমেন্ট

প্রকাশ : ১৮ অক্টোবর ২০১৮, ১৯:০৩ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক   

কর্ম অ্যাপ। ছবি সংগৃহীত

বাংলাদেশের অন্যতম ডিজিটাল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান বাংলালিংক, গুগল ‘এরিয়া ১২০ গ্রুপ’-এর অন্তর্ভুক্ত চাকরি এবং ক্যারিয়ার উন্নয়নবিষয়ক অ্যাপ কর্ম-এর সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়ে ঢাকার মিরপুর, খিলগাঁও, বাড্ডা, মোহাম্মদপুর, উত্তরা ও পুরান ঢাকার বাংলালিংক গ্রাহকসেবা কেন্দ্রে চালু করল ‘ক্যারিয়ার ডেভেলপমেন্ট জোন।

কর্ম অ্যাপের মাধ্যমে চাকরি সন্ধানকারীদের চাকরির সুযোগ এবং ক্যারিয়ার উন্নয়নে বিভিন্ন সহায়তা দিতে এই উদ্যোগ নিয়েছে প্রতিষ্ঠান দুটি। বাংলালিংকের ভারপ্রাপ্ত  চিফ কমার্শিয়াল অফিসার রিতেশ কুমার সিং বাংলালিংকের প্রধান কার্যালয়ে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এই ঘোষণা দেন। 

উক্ত অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- বাংলালিংকের ডিজিটাল বিজনেস অ্যান্ড গ্লোবাল পার্টনারশিপ ডিরেক্টর গৌরভ কাক্কার, ও কর্ম-এর অপারেশন ম্যানেজার জেস বায়ের্নসহ উভয় প্রতিষ্ঠানের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা।

এই চুক্তির আওতায় বাংলালিংক আউটলেটে কর্ম অ্যাপের কিয়স্ক থাকবে, যার মাধ্যমে গ্রাহকরা কর্ম অ্যাপ ব্যবহারের নির্দেশনাবলিসহ কর্মসংস্থান এবং ক্যারিয়ারবিষয়ক বিভিন্ন তথ্য জানতে পারবেন। 

প্রোগ্রামটি পাইলট প্রোজেক্ট হিসেবে মিরপুর, খিলগাঁও, বাড্ডা, মোহাম্মদপুর, উত্তরা ও পুরান ঢাকার আউটলেটে চালু করা হয়েছে। আগামী কয়েক মাসের মধ্যে ঢাকার আরও  কিছু আউটলেটে চালু করা হবে প্রোগ্রামটি।

কর্ম গুগল-এর এরিয়া ১২০ ইনকুবেটরের তত্ত্বাবধানে নির্মিত একটি চাকরি এবং ক্যারিয়ার উন্নয়নবিষয়ক অ্যাপ। অপটিমাইজড অ্যালগরিদম ব্যবহার করে এবং বেস্ট ম্যাচের ওপর ভিত্তি করে একজন চাকরিপ্রার্থীকে তার জন্য উপযুক্ত চাকরি এবং ওই প্রতিষ্ঠানের নিয়োগকারীদের সঙ্গে সহজেই সংযুক্ত করতে সহায়তা করবে এই অ্যাপ। 

এই অ্যাপে চাকরিপ্রত্যাশী ও চাকরিদাতাদের জন্য রয়েছে “টু ওয়ে রেটিং” সিস্টেমের ব্যবস্থা। এই অ্যাপটির মাধ্যমে চাকরিপ্রত্যাশীরা সাইনআপ, সিভি তৈরি করা এবং ব্যক্তিগত দক্ষতা বৃদ্ধি সম্পর্কিত ভিডিওর অ্যাক্সেসসহ ক্যারিয়ার সংশ্লিষ্ট যাবতীয় দিকনির্দেশনা পাবেন। অ্যাপটি এ পর্যন্ত ১ হাজারের বেশি নিয়োগকারীর সঙ্গে ২১ হাজারের বেশি চাকরিপ্রত্যাশীকে সংযুক্ত করেছে।

বাংলালিংকের  ভারপ্রাপ্ত  চিফ কমার্শিয়াল অফিসার রিতেশ কুমার সিং বলেন, বাংলাদেশে প্রতি বছর গড়ে প্রায় ২০ লাখ তরুণ-তরুণী নতুন করে কর্মক্ষেত্রে যোগ দিচ্ছে। পর্যাপ্ত কর্মসংস্থান এবং প্রয়োজনীয় শিক্ষণীয় উপকরণ ব্যবহারের সুযোগ না পাওয়ায় তাদের সম্ভাবনা ক্রমেই সীমিত হয়ে যাচ্ছে।

কর্ম অ্যাপ্লিকেশনটি সহজে ব্যবহারযোগ্য একটি ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম তৈরি করে চাকরি সন্ধানকারী এবং নিয়োগকারীদের আরও সহজে সংযুক্ত করতে সাহায্য করবে।  এ রকম একটি উদ্যোগের প্রভাব বিস্তারের লক্ষ্যে গুগল টিমের সঙ্গে অংশ নিতে পেরে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত। নিত্যনতুন সব সেবাপ্রদানের মাধ্যমে জীবনযাত্রার মান উন্নয়নের লক্ষ্যে বাংলালিংক নিরলসভাবে কাজ করে আসছে। আমরা বিশ্বাস করি, কর্ম-এর সঙ্গে সম্পৃক্ততা আমাদের লক্ষ্য বাস্তবায়নের দিকে আরও এক ধাপ এগিয়ে নিয়ে যাবে।

কর্ম অপারেশন ম্যানেজার জেস বায়ের্নস বলেন, “উপযুক্ত চাকরি পাওয়ার ক্ষেত্রে জীবনবৃত্তান্ত তৈরি করা এবং চাকরির ইন্টারভিউয়ের জন্য নিজেকে প্রস্তুত করার মতো আরও অনেক চ্যালেঞ্জিং দিক রয়েছে। উন্নত কর্মসংস্থানের সুযোগ সহজে ও সুবিধামতো স্মার্টফোনের মাধ্যমে ঢাকার বাসিন্দাদের কাছে পৌঁছে দেয়া “কর্ম” অ্যাপটির প্রাথমিক লক্ষ্য। আমরা বাংলালিংকের সঙ্গে কাজ করতে পেরে অত্যন্ত আনন্দিত। তাদের অভিজ্ঞ টিম এবং শক্তিশালী নেটওয়ার্কের সাহায্যে আমরা কর্ম অ্যাপটি ব্যবহারকারীদের কাছে সহজে পৌঁছে গ্রাহকসেবার মান আরও উন্নত করতে পারব।

‘কর্ম’ অ্যাপটির অ্যানড্রয়েড ভার্সন গুগল প্লে স্টোরে পাওয়া যাবে। বর্তমানে অ্যাপটি শুধু ঢাকাভিত্তিক কর্মসংস্থানের জন্য প্রযোজ্য। কর্ম ও এরিয়া ১২০ গ্রুপ সম্পর্কে আরও জানতে ভিজিট করুন: www.kormo.com   ও www.area120.com