বাণিজ্য মেলায় অন্যরকম বিজ্ঞানবাক্স

প্রকাশ : ২৩ জানুয়ারি ২০১৯, ১৯:২৫ | অনলাইন সংস্করণ

  আইটি ডেস্ক

বাণিজ্য মেলায় অন্যরকম বিজ্ঞানবাক্স দেখছে দুই শিশু

শিশু কিশোরদের জন্য শিক্ষামূলক বিনোদন উপকরণ তৈরির জন্য পরিচিত অন্যরকম বিজ্ঞানবাক্স গত তিন বছরের মত এবারও ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার অন্যতম আকর্ষণ হিসেবে থাকছে। 

অন্যরকম বিজ্ঞানবাক্স বাংলাদেশে তৈরি প্রথম সায়েন্স কিট, যা উৎপাদন এবং বিপণন করে থাকে অন্যরকম ইলেকট্রনিক্স। বিজ্ঞানবাক্সের ভেতরে নানারকম উপাদান দেয়া থাকে, যা দিয়ে বিজ্ঞানের নানারকম পরীক্ষণ করা যায়। 

এর সঙ্গে সহায়ক বই এবং সিডি দেয়ার কারণে শিশু-কিশোরেরা খুব সহজেই অন্যের সাহায্য ছাড়াই এক্সপেরিমেন্টগুলো করতে পারে। 

বিজ্ঞানবাক্সের মাধ্যমে পাঠ্যবইয়ে বিজ্ঞানের বিভিন্ন সূত্র হাতে কলমে পরীক্ষা করে দেখার ফলে বিজ্ঞান শিক্ষা তাদের কাছে সহজতর হয়। এই মুহূর্তে আলো, রসায়ন, তড়িৎ এবং শব্দ বিষয়ক ৬টি বিজ্ঞানবাক্স রয়েছে। 

এগুলো হচ্ছে- আলোর ঝলক, চুম্বকের চমক, তড়িৎ তাণ্ডব, রসায়ন রহস্য, অদ্ভুত মাপজোখ এবং শব্দকল্প। সবগুলোতে প্রায় ২০০টি এক্সপেরিমেন্ট রয়েছে। 

প্রতিটিরই ইংরেজি সংস্করণ রয়েছে, যাতে সহায়ক বই এবং সিডি ইংরেজিতে বর্ণিত। এবারে মেলা উপলক্ষ্যে বিজ্ঞানবাক্সে রয়েছে আকর্ষণীয় ডিসকাউন্ট এবং সারপ্রাইজ গিফট। 

বিজ্ঞানবাক্স কর্তৃপক্ষ জানান, ৫০ থেকে ৫০০ টাকা পর্যন্ত ডিসকাউন্ট থাকছে। এছাড়াও থাকছে বিজ্ঞানবাক্সের পক্ষ থেকে বিশেষ উপহার পাবার সুযোগ, যেমন- খাতা, ব্যাজ, স্টিকার ইত্যাদি। 

কোন বয়স থেকে বিজ্ঞানবাক্স ব্যবহার করা যাবে? এ প্রশ্নের জবাবে স্টলকর্মী দিদার জানান, আমরা ৭ থেকে ১৬ বছর বয়সীদের জন্য ব্যবহারের পরামর্শ দিয়ে থাকলেও ৪ থেকে ৬ বছরের কৌতূহলী বাচ্চারাও বিজ্ঞানবাক্সের প্রতি আগ্রহ প্রকাশ করে থাকে। 


তাদের উপযোগী বেশ কিছু এক্সপেরিমেন্ট রয়েছে আমাদের বাক্সগুলোতে। বিজ্ঞানবাক্সের স্টলে কৌতূহলী শিশু এবং সচেতন অভিভাবকদের সমাগম থাকছে সবসময়ই। 

অনেক অভিভাবকই জানিয়েছেন বাচ্চাদের মোবাইল এবং টিভি আসক্তি কমাতে বিজ্ঞানবাক্স সাহায্য করছে। বিজ্ঞানবাক্সের স্টল নাম্বার পিএস ১৩/এ, দ্বিতীয় গেট দিয়ে ঢুকলেই স্টলটি পাওয়া যাবে। 

অফার এবং যাবতীয় আপডেট বিস্তারিত পাওয়া যাবে বিজ্ঞানবাক্সের ওয়েব সাইটে www.bigganbaksho.com থেকে।