দেশে তৈরি হচ্ছে স্মার্টফোন এবং কম্পিউটারের সিমুলেশন সফটওয়্যার

প্রকাশ : ১৮ মার্চ ২০১৯, ১২:৫৭ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর রিপোর্ট

স্মার্টফোন এবং কম্পিউটারের সিমুলেশন সফটওয়্যার তৈরি করছে বাংলাদেশ

বিশ্বজুড়ে ব্র্যান্ডের স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো ফোন তৈরির আগে অভ্যন্তরীণ গুরুত্বপূর্ণ কিছু পরীক্ষা করে থাকে। এসব ফোন অভ্যন্তরীণ পরীক্ষার জন্য যে প্রযুক্তির প্রয়োজন তা তৈরি করছে বাংলাদেশের ইঞ্জিনিয়াররা। 

জাপানের প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান হলোর টেকনোলজি আইএনসি এ ব্যাপারে সার্বিক সহযোগিতা করছে। এর ফলে বাংলাদেশে দক্ষ কর্মী তৈরি, কর্মসংস্থান এবং বিশ্ববাজারে বাংলাদেশের অবস্থান আরও দৃঢ় হচ্ছে। এ ধারা অব্যাহত রাখতে সম্প্রতি দ্বিপক্ষীয় চুক্তি স্বাক্ষর করেছে ক্লাউড কোডার লিমিটেড (বাংলাদেশ) ও হলোর টেকনোলজি আইএনসি (জাপান)। 

সোমবার গুলশানের ক্লাউড কোডারের নিজ অফিসে দুই প্রতিষ্ঠানের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন হলোর টেকনোলজির চীফ অপারেটিং অফিসার মিতসুমাসা সুৎসুই, সিটিও আশরাফুল ইসলাম, ক্লাউড কোডারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) রাফসান জানি সামির, হেড অফ মার্কেটিং এন্ড সেলস সোহেল মল্লিক রণ, পরামর্শক তোহিদুল ইসলাম রাহিদ, ক্লাউড কোডারের এক্সেকিউটিভ ডিরেক্টর রাশেদুল ইসলাম প্রমুখ। 

জাপানের বিখ্যাত ইলেকট্রনিক্স কোম্পানি তোসিবাতে ৩২ বছর কর্মজীবন অতিবাহিত করা হলোর টেকনোলজির চীফ অপারেটিং অফিসার মিতসুমাসা সুৎসুই চুক্তির বিষয়ে বলেন, ইলেকট্রনিক্স চিপ ডিজাইনে (বিশেষ করে অ্যানালগ সার্কিট ডিজাইন) বিশ্বমানের ইলেকট্রনিক্স ইন্ডাস্ট্রিজের জন্য যথেষ্ট নয়। 

যারা এ বিষয়ে আগ্রহী, তাদের আমরা পরামর্শ এবং প্রশিক্ষণের মাধ্যমে ইলেকট্রনিক্স ইন্ডাস্ট্রিজের উপযোগী করে তুলতে চাই। ক্লাউড কোডারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) রাফসান জানি সামির বলেন, আমরা দীর্ঘ দিন ধরে এমন একটি সম্ভাবনার অপেক্ষায় ছিলাম। 

এই চুক্তির ফলে বাংলাদেশের ছেলে-মেয়েদের জন্য কর্মসংস্থান এবং বৈশ্বিক পর্যায়ে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে উচ্চমাত্রার পদ মর্যাদা ছাড়াও  প্রশিক্ষণের সুযোগ পাবে। এর মাধ্যমে কাজের অভিজ্ঞতা এবং বিশ্ব বাজারে বাংলাদেশের চাহিদাও বেড়ে যাবে। 


তিনি আরও বলেন ডিজিটাল বাংলাদেশ নির্মাণে বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো হার্ডওয়্যার সিমুলেশন সফটওয়ারের মতো জটিল প্রযুক্তি নিয়ে কাজ শুরু করছি। এ প্রযুক্তি দেশে তৈরি যেকোনো ধরণের কম্পিউটার মাদারবোর্ড, মোবাইল ফোন, সার্কিট সিমুলেশন করতে পারবে। 

এ ধরণের প্রযুক্তি দিয়ে যেকোনো ধরণের ইলেকট্রনিক্স প্রোডাক্ট তৈরি করার আগেই তার বাস্তব পর্যবেক্ষণ, পরিবেশের প্রভাব এবং মান নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে। কম্পিউটার হার্ডওয়ার এবং মোবাইল ফোনের ক্ষেত্রে মেইড ইন বাংলাদেশ শব্দটি যাতে বিশ্বব্যাপী আস্থা অর্জন করতে পারে তার জন্য আমাদের এই প্রচেষ্টা।