জিপি-রবির পাওনা নিষ্পত্তিতে সংসদে আলোচনার আহ্বান

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৮ জুলাই ২০১৯, ১৮:১৭ | অনলাইন সংস্করণ

জিপি-রবির পাওনা নিষ্পত্তিতে সংসদে আলোচনার আহ্বান
জিপি-রবির পাওনা নিষ্পত্তিতে সংসদে আলোচনার আহ্বান

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) সঙ্গে গ্রামীণফোন ও রবি’র পাওনা সম্পর্কিত বিষয় নিষ্পত্তি ও গ্রাহক ভোগান্তি নিরসনে সংসদে আলোচনার আহ্বান জানিয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি বরাবর চিঠি দিয়েছে বাংলাদেশ মুঠোফোন গ্রাহক অ্যাসোসিয়েশন।

সোমবার দুপুরে বাংলাদেশ মুঠোফোন গ্রাহক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মহিউদ্দীন আহমেদ এ চিঠি প্রেরণ করেন।

চিঠিতে তিনি বলেন, গত বৃহস্পতিবার বিটিআরসি গ্রামীণফোন ও রবির নিকট পাওনা যথাক্রমে ১২ হাজার ৫৮০ কোটি টাকা ও ৮৬৭ কোটি টাকা পাওনা আদায় করতে না পেরে শাস্তি স্বরূপ গ্রামীণফোনের ৩০% ও রবির ১৫% ব্যান্ডউইথ কম সরবরাহের জন্য আইআইজি অপারেটরদের নির্দেশ প্রদান করে।

এতে করে অপারেটররা ক্ষতিগ্রস্ত না হয়ে উল্টো গ্রাহকরা ক্ষতিগ্রস্ত ও হয়রানির শিকার হচ্ছে। অন্যদিকে অপারেটররা এতে করে লাভবান হচ্ছে। কারণ আইআইজি অপারেটরদের বিল কম দিতে হচ্ছে। বর্তমান সরকার যে ডিজিটাল দেশ গড়তে যাচ্ছে তার অন্যতম মাধ্যম ইন্টারনেট।

মহিউদ্দীন আহমেদ বলেন, নিয়ন্ত্রক সংস্থা গ্রাহকদের অধিকার রক্ষায় সর্বোচ্চ গুরুত্বারোপ করার কথা। অথচ গ্রাহকদের প্রদেয় অর্থই আদায় করার জন্যই যে ব্যবস্থা; তা রক্ষক হয়ে ভক্ষক হওয়ার মত। বর্তমানে দেশে মোবাইল ফোনে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় ৮ কোটি ৭৫ লক্ষ। এর মধ্যে ৯০% গ্রাহকই এ দুই অপারেটরের।

মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, দীর্ঘদিনের অমীমাংসিত দাবী ও বিপুল পরিমাণ রাজস্ব আদায় বর্তমানে গৃহীত ব্যবস্থায় আদায় করা সম্ভব নয়। যে কোন সমস্যা আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করাই অতি উত্তম। তার জন্য প্রয়োজনে তৃতীয় পক্ষের সহযোগিতা (আরবিট্রেশন) গ্রহণ করা যেতে পারে।

১৯৯৭ সালে অপারেটরদের লাইসেন্স প্রদানের সময় বিটিআরসি আইনে ও লাইসেন্সের শর্তের মধ্যে বিষয়টি থাকলেও টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন আইন ২০০১ এ উঠিয়ে দেওয়া হয়। প্রতিবেশী দেশ ভারতে এ ধরনের সংকট নিরসনে আরবিট্রেশনের ব্যবস্থা রয়েছে।

তিনি বলেন, জনস্বার্থে বিষয়টি নিষ্পত্তি করার জন্য মহান সংসদে বিষয়টি নিয়ে আপনার মূল্যবান মতামত প্রকাশ করে গ্রাহক অধিকার রক্ষা করে রাষ্ট্রের পাওনা অর্থ আদায়ের ব্যবস্থা গ্রহণের দিকনির্দেশনা মহান সংসদ থেকে আমরা আশা করি।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×