ক্যাসিনোর টাকা গ্রামের মানুষের কল্যাণে ব্যবহারের আহ্বান ব্যারিস্টার সুমনের
jugantor
ক্যাসিনোর টাকা গ্রামের মানুষের কল্যাণে ব্যবহারের আহ্বান ব্যারিস্টার সুমনের

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৭:৩৪:৫৫  |  অনলাইন সংস্করণ

ব্যারিস্টার সুমন।

সম্প্রতি রাজধানীতে শুরু হয়েছে শুদ্ধি অভিযান। এই শুদ্ধি অভিযানে ক্যাসিনো বা অবৈধভাবে উপার্জিত কয়েক কোটি টাকা জব্দ করেছে র ্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

জব্দ করা এসব টাকা গ্রাম-গঞ্জের মানুষের কল্যাণে ব্যবহারের আহ্বান জানিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন।

রোববার হবিগঞ্জের ৫ নম্বর শানখোলা ইউনিয়নের বাজেশতং গ্রামে একটি কাঠের ব্রিজ উদ্বোধনকালে ফেসবুক লাইভে এসে তিনি এ আহ্বান জানান।

ফেসবুক লাইভে ব্যারিস্টার সুমন বলেন, আমার নিজ এলাকা হবিগঞ্জের ৫ নম্বর শানখোলা ইউনিয়নের বাজেশতং গ্রাম। গ্রামের মানুষের আবেদন অনুযায়ী এখানে একটি ব্রিজ নির্মাণ করেছি। এ ব্রিজটি উদ্বোধন করতে এসেছি।

ক্যাসিনোর জুয়ার ঘরে ১২ কোটি টাকা পাওয়া গেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ক্যাসিনোর জুয়ার ঘরে ১২ কোটি টাকা পাওয়া গেছে। কেউ বলে দেড়শ' কোটি? কেউ বলে ২০০ কোটি টাকার এফডিআর পাওয়া গেছে। জুয়ার ঘরে এত টাকা পাওয়া যায়! কিন্তু যে জায়গাগুলোতে মানুষ কষ্ট পাচ্ছে সে জায়গাগুলোর কেউ খবর রাখে না। এটা ভিতরের একটা গ্রাম। এমন জায়গা সাধারণত নেতাদের চোখ পড়ে না। নেতারা এসব জায়গায় আসেন না।

তিনি বলেন, এই ব্রিজটা বানানোর মধ্য দিয়ে একটি কথা বলতে চাই। ক্যাসিনোর টাকা, যেগুলো অবৈধভাবে উপার্জনের টাকা, এ টাকাগুলো কী সরকারের মাধ্যমে গ্রামে-গঞ্জে নিয়ে আসা যায় কি-না।


তিনি প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন করেন অবৈধভাবে আয় করা এই টাকাগুলো গ্রামে নিয়ে আসা যায় কি-না।

ব্যারিস্টার সুমন বলেন, আমি আমার ব্যক্তিগত জীবনে যদি ২৬টি কাঠের ব্রিজ করতে পারি, আমি চাই যে এভাবে যারা সফল আছেন, তারা নিজেদের জন্মস্থানে গিয়ে খোঁজার চেষ্টা করেন। এ রকম বহু মানুষের কষ্ট হয়তো ১ লাখ টাকা দিয়ে একটা ব্রিজ বানিয়ে দিয়ে কমানো যাবে।

তিনি বলেন, আমি শুধু বলতে চাই আমার নেত্রী শেখ হাসিনা এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে যারা ধারণ করি, বঙ্গবন্ধুর প্রকৃত আদর্শকে ধারণ করতে হলে অবশ্যই মানুষের কষ্টে পাশে দাঁড়াতে হবে। পাশে না দাঁড়ালে আপনি যতই বলেন না কেনো আসলে আপনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধারণ করেন না।

তিনি আরও বলেন, আজকে ২৬তম ব্রিজ উদ্বোধন করে ২৭তম ব্রিজের জন্য এগিয়ে যাব। যতদিন কাজ করার সক্ষমতা আছে ততদিন মানুষের কষ্টে পাশে দাঁড়াতে চেষ্টা করব। অন্তত নিজের জন্মস্থানটাকে আমি সুরক্ষা দিতে চাই।

ক্যাসিনোর টাকা গ্রামের মানুষের কল্যাণে ব্যবহারের আহ্বান ব্যারিস্টার সুমনের

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৫:৩৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ব্যারিস্টার সুমন।
ব্যারিস্টার সুমন।

সম্প্রতি রাজধানীতে শুরু হয়েছে শুদ্ধি অভিযান। এই শুদ্ধি অভিযানে ক্যাসিনো বা অবৈধভাবে উপার্জিত কয়েক কোটি টাকা জব্দ করেছে র ্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

জব্দ করা এসব টাকা গ্রাম-গঞ্জের মানুষের কল্যাণে ব্যবহারের আহ্বান জানিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন।

রোববার হবিগঞ্জের ৫ নম্বর শানখোলা ইউনিয়নের বাজেশতং গ্রামে একটি কাঠের ব্রিজ উদ্বোধনকালে ফেসবুক লাইভে এসে তিনি এ আহ্বান জানান।

ফেসবুক লাইভে ব্যারিস্টার সুমন বলেন, আমার নিজ এলাকা হবিগঞ্জের ৫ নম্বর শানখোলা ইউনিয়নের বাজেশতং গ্রাম। গ্রামের মানুষের আবেদন অনুযায়ী এখানে একটি ব্রিজ নির্মাণ করেছি। এ ব্রিজটি উদ্বোধন করতে এসেছি।

ক্যাসিনোর জুয়ার ঘরে ১২ কোটি টাকা পাওয়া গেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ক্যাসিনোর জুয়ার ঘরে ১২ কোটি টাকা পাওয়া গেছে। কেউ বলে দেড়শ' কোটি? কেউ বলে ২০০ কোটি টাকার এফডিআর পাওয়া গেছে। জুয়ার ঘরে এত টাকা পাওয়া যায়! কিন্তু যে জায়গাগুলোতে মানুষ কষ্ট পাচ্ছে সে জায়গাগুলোর কেউ খবর রাখে না। এটা ভিতরের একটা গ্রাম। এমন জায়গা সাধারণত নেতাদের চোখ পড়ে না। নেতারা এসব জায়গায় আসেন না।

তিনি বলেন, এই ব্রিজটা বানানোর মধ্য দিয়ে একটি কথা বলতে চাই। ক্যাসিনোর টাকা, যেগুলো অবৈধভাবে উপার্জনের টাকা, এ টাকাগুলো কী সরকারের মাধ্যমে গ্রামে-গঞ্জে নিয়ে আসা যায় কি-না। 


তিনি প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন করেন অবৈধভাবে আয় করা এই টাকাগুলো গ্রামে নিয়ে আসা যায় কি-না।

ব্যারিস্টার সুমন বলেন, আমি আমার ব্যক্তিগত জীবনে যদি ২৬টি কাঠের ব্রিজ করতে পারি, আমি চাই যে এভাবে যারা সফল আছেন, তারা নিজেদের জন্মস্থানে গিয়ে খোঁজার চেষ্টা করেন। এ রকম বহু মানুষের কষ্ট হয়তো ১ লাখ টাকা দিয়ে একটা ব্রিজ বানিয়ে দিয়ে কমানো যাবে।

তিনি বলেন, আমি শুধু বলতে চাই আমার নেত্রী শেখ হাসিনা এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে যারা ধারণ করি, বঙ্গবন্ধুর প্রকৃত আদর্শকে ধারণ করতে হলে অবশ্যই মানুষের কষ্টে পাশে দাঁড়াতে হবে। পাশে না দাঁড়ালে আপনি যতই বলেন না কেনো আসলে আপনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধারণ করেন না।

তিনি আরও বলেন, আজকে ২৬তম ব্রিজ উদ্বোধন করে ২৭তম ব্রিজের জন্য এগিয়ে যাব। যতদিন কাজ করার সক্ষমতা আছে ততদিন মানুষের কষ্টে পাশে দাঁড়াতে চেষ্টা করব। অন্তত নিজের জন্মস্থানটাকে আমি সুরক্ষা দিতে চাই।

 
আরও খবর