চালডাল ডটকমে লবণ স্টক আউট!

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ২১:৫৬ | অনলাইন সংস্করণ

চালডাল ডটকম

লবণের কৃত্রিম সংকট তৈরি করে মূল্য বৃদ্ধির খবর প্রকাশ হওয়ার পর দেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন মুদি এবং খাদ্য পণ্য সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান চালডাল ডটকম তাদের ওয়েবসাইট থেকে লবণ বিক্রি বন্ধ করে দিয়েছে।

আগ্রহী ক্রেতারা এই ওয়েবসাইটে গিয়ে লবণ কিনতে না পেরে যুগান্তরের কাছে ফোন করেন। তারা অভিযোগ করে বলেন, লবণ স্টক আউট দেখিয়ে স্টোরে জমা করছে চালডাল ডটকম।

যুগান্তর থেকে এ বিষয়ে অনুসন্ধান করতে গিয়ে দেখা যায় তাদের ওয়েবসাইটে ফ্রেশ ছাড়া অন্য কোনো ব্র্যান্ডের লবণ বিক্রি হচ্ছে না। সব লবণ স্টক আউট দেখাচ্ছে। ফ্রেশ লবণ কিনতে চেষ্টা করে দেখা গেল দুই প্যাকেটের বেশি লবণ ক্রয় করা যাচ্ছে না।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চালডাল ডটকমের প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা (সিওও) জিয়া আশরাফের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি লবণের স্টক আউটের বিষয়টি যুগান্তরের কাছে স্বীকার করেন।

তিনি বলেন, আমাদের আজ লবণ স্টক আউট। আমরা নিজেরাই মার্কেটে লবণ কিনতে গিয়ে দেখেছি এক দুই শত টাকা কেজি দরে লবণ বিক্রি হচ্ছে। তবে আগামীকাল সকাল থেকে আমাদের সাইটে লবণ পাওয়া যাবে।

জিয়া আশরাফ বলেন, আমরা ফ্যাক্টরিগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। এখন পর্যন্ত এসিআই ও ইফাদের লবণ বুক করতে পেরেছি। ইফাদ থেকে ৬ টন লবণ নিয়ে আসছে। আরও লবণ নেয়ার জন্য চেষ্টা করছি। আর এসিআই আমাদের কনফার্ম করেছে আগামীকাল গাড়ি পাঠালে চার পাঁচ টন লবণ দেবে আমাদের।

এখন পর্যন্ত ফ্রেশ ও মোল্লা সল্টের সঙ্গে যোগাযোগ করে জানতে পেরেছি তাদের স্টক আউট। তাদের ফ্যাক্টরিতেই লবণ নাই। তারা তাদের ডিস্ট্রিবিউটরদের কাছে লবণ দিয়ে দিয়েছে। এখন আমাদেরকে তাদের ডিস্ট্রিবিউটরদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে। সেখান থেকে পেলে আমরা নিয়ে নিবো।

তবে ফ্রেশ ও মোল্লা সল্টের ডিলারদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারাও স্টক আউট বলে জানিয়েছে জিয়া আশরাফ।

ইফাদের লবণ আগামীকাল বুধবার এবং এসিআই এর লবণ বৃহস্পতিবার থেকে চালডালের ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে বলেও জানান তিনি। তবে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জিয়া আশরাফের সঙ্গে ফোনে কথা বলার কিছুক্ষণ পর থেকেই মোল্লা সল্ট ছাড়া অন্য সবগুলো লবণ ওয়েবসাইটে দেখা যাচ্ছে।

তবে একসঙ্গে দুই প্যাকেটের বেশি লবণ ক্রয় করার অপশন রাখা হয়নি। এই লিমিট রাখার কারণ কী? জানতে চাইলে জিয়া আশরাফ বলেন, আমরা চাই সবাই আমাদের ওয়েবসাইট থেকে লবণ কিনতে পারবে। যাতে কেউ এখান থেকে লবণ কিনে দোকানে বেশি দামে বিক্রি না করে।

ঘটনাপ্রবাহ : লবণের মূল্য বৃদ্ধি

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×