কীভাবে ফেসবুক থেকে আপনার তথ্য হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে?

  যুগান্তর ডেস্ক ২২ মার্চ ২০১৮, ০৮:৫৯ | অনলাইন সংস্করণ

ফেসবুক

লন্ডনভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকা যুক্তরাষ্ট্রে পাঁচ কোটিরও বেশি ফেসবুক ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য ব্যবহার করে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোটারদের প্রভাবিত করার চেষ্টা করেছে, এ অভিযোগ ওঠার পর এ বিষয়ে অনেকেই প্রশ্ন করতে শুরু করেছেন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে যেসব তথ্য দেয়া হচ্ছে, সেগুলো কীভাবে অন্যদের সঙ্গে শেয়ার করা হচ্ছে এবং কার সঙ্গে শেয়ার করা হচ্ছে- এসব নিয়ে নতুন করে বিতর্ক শুরু হয়েছে।-খবর বিবিসি অনলাইন।

সামাজিকমাধ্যম ব্যবহারকারীর এসব ব্যক্তিগত তথ্য ফেসবুকের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এটি অনেকটা জ্বালানির মতো। এসব তথ্যের ওপর ভিত্তি করে বিজ্ঞাপনদাতারা এই মাধ্যমটিতে আসেন তাদের পন্য বা সেবার প্রচার চালাতে।

ব্যক্তিগত তথ্যের ওপর বিচার-বিশ্লেষণ চালিয়ে তারা ফেসবুক ব্যবহাকারীদের টার্গেট করে বিজ্ঞাপন প্রচার করেন। এর মাধ্যমে বিজ্ঞাপনদাতা ও ফেসবুক উভয়েই অর্থ আয় করে থাকে। ফেসবুক ব্যবহকারীর লাইক, ডিসলাইক, জীবনধারা ও রাজনৈতিক মতাদর্শ থেকে ওই ব্যক্তি সম্পর্কে একটি ধারণা পাওয়া যেতে পারে এবং ফেসবুকের যে সেই ক্ষমতা রয়েছে, সেটি নিয়ে কারো কোনো সন্দেহ নেই।

কিন্তু বড় প্রশ্ন হচ্ছে- ফেসবুক কী ধরনের তথ্য শেয়ার করে থাকে, কাদের সঙ্গে করে এবং ফেসবুক যাতে সেটি করতে না পারে, সে জন্য ফেসবুক ব্যবহারকারীদের নিজেদের কী করার আছে?

আপনি দেখতে হলিউডের কোনো তারকার মতো? জানতে চাইলে এখানে ক্লিক করুন।

এ ধরনের কুইজ লিঙ্ক আমরা প্রায়শই দেখি আমাদের নিউজফিডে। এসব কুইজে আপনার কৌতূহল, ব্যক্তিত্ব কিংবা সাধারণ জ্ঞান ব্যবহার করা হয়। আপনাকে দেখাতে চেষ্টা করা হয় আপনি যদি বিখ্যাত কোনো অভিনেতা বা অভিনেত্রী হতেন, তা হলে আপনাকে কেমন দেখাত।

মনে রাখবেন, এ ধরনের একটি কুইজে ক্লিক করলেই কিন্তু আপনার ব্যক্তিগত তথ্য ওই লিঙ্কের লোকেরা দেখে ফেলতে পারেন।

বলা হচ্ছে, ফেসবুকের এমন একটি কুইজ যার শিরোনাম ছিল- দিস ইজ ইয়ুর ডিজিটাল লাইফ, সেখান থেকে ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকা লাখ লাখ মানুষের ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ করেছে।

এ ধরনের অনেক কুইজে আশ্বস্ত করার চেষ্টা চলে যে, সেখানে ক্লিক করলেও আপনার ব্যক্তিগত তথ্য নিরাপদ থাকবে।

কিন্তু এ ধরনের গেইম বা কুইজ তৈরি করা হয় এ কারণেই যে, সামাজিকমাধ্যম ব্যবহারকারীরা এগুলো দেখে উৎসাহী হন।

ব্যক্তিগত তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষায় কাজ করে এ রকম একটি প্রতিষ্ঠান ইলেকট্রনিক ফ্রন্টিয়ার ফাউন্ডেশন বলছে- এসব কুইজ থেকে কীভাবে তথ্য সংগ্রহ করা হয়, সেটি নির্ভর করে সেই সময় ফেসবুকের নিয়ম ও শর্ত কী ছিল সেসবের ওপর।

তৃতীয় কোনো পক্ষ যাতে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ করতে না পারে, সে জন্য ফেসবুক তার নিয়ম ও শর্তে কিছু পরিবর্তন এনেছে।

ব্যবহারকারীর বন্ধুর কাছ থেকেও যাতে তারা তার সম্পর্কে তথ্য নিতে পারেন, সেই ব্যবস্থাও আছে।

ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকা কি ধরনের তথ্য পেয়েছিল সেটি এখনও পরিষ্কার নয়। ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষ এখন সেটি অনুসন্ধান করে দেখছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter