দশটি দেশে চলছে রাশাদের ড্রিম৭১ এর সফটওয়্যার

  যুগান্তর ডেস্ক    ২৭ মার্চ ২০১৮, ১৪:১১ | অনলাইন সংস্করণ

দশটি দেশে চলছে রাশাদের ড্রিম৭১ এর সফটওয়্যার
মালদ্বীপে ড্রিম৭১ এর পার্টনার দেশটির প্রতিরক্ষা প্রতিমন্ত্রী থোরিক আলী লুতফির সঙ্গে রাশাদ কবির। ছবিতে আরও আছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত মালদ্বীপের রাস্ট্রদূত মিস আয়েশাত শাকির, ড্রিম৭১ এর জাপানিজ পার্টনার সিন সাতাকি ও তোশি।

দেশীয় তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ড্রিম৭১ এর সফটওয়্যার ব্যবহৃত হচ্ছে বিশ্বের দশটি দেশে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে জাপান, মালদ্বীপ, নেদারল্যান্ডস, নাইজেরিয়া, ঘানা, কেনিয়া ও তানজানিয়া।

প্রতিষ্ঠানটির কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এই সব দেশে চলছে তাদের তৈরি ‘পকেট সেলস ৭১’ এবং ‘পিউপিলবুক এইচ’ সফটওয়্যার। পকেটসেলস ৭১ এর আছে আবার চারটি সংস্করণ।

যথাক্রমে ফার্মাসিউটিক্যালস, এফএমসিজি, কার্গো এবং অটোমোটিভ। একজন সেলস পার্সনের অর্ডার ট্রাকিং থেকে শুরু করে কোম্পানির স্টক ইনফরমেশন, প্রোডাক্ট ডেলিভারী, সেলসম্যানদের পারফর্মমেন্স অ্যানালাইসি, টার্গেট নির্ধারণ, সেলস ফোরকাস্টিং থেকে শুরু করে সেলস এবং সাপ্লাইচেনের যাবতীয় সবকিছুই করা যায় এই সফটওয়ারের মাধ্যমে।

জাপানে তাদের সফটওয়্যারের চাহিদা বেশ বলে প্রত্যেকটি সফটওয়্যারের জাপানিজ সংষ্করণও করা হয়েছে জাপানিজ ভাষায় এবং জাপানের সংস্কৃতিকে লক্ষ্য রেখে। এমনকি জাপানেও রয়েছে ড্রিম৭১ অফিস।

এছাড়া মালদ্বীপের প্রতিরক্ষা প্রতিমন্ত্রী থোরিক আলী লুতফির সাথে মালদ্বীপেও শুরু হয়েছে ড্রিম৭১ এর কার্যক্রম। প্রতিষ্ঠানটির আরেকটি জনপ্রিয় সফটওয়্যার ‘পিপল বুক এইচআর’। বিশ্ববিখ্যাত সফটওয়্যার রিভিউ সাইট ‘ক্যাপটেরাতে’ এই সফটওয়্যারটির অবস্থান এখন নয় নাম্বারে।

মাত্র চার বছর আগে পড়াশোনার পাঠ চুকিয়েই ড্রিম৭১ নামের এই প্রতিষ্ঠানটির মাধ্যমে রাশাদ কবির জীবনের যাত্রা শুরু করেন আইটি ব্যবসায়ী হিসেবে। পড়েছেন খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে।

তরুণ এই আইটি ব্যবসায়ী আগামী ৩১ মার্চ অনুষ্ঠেয় বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেসের (বেসিস) নির্বাহী কমিটির ২০১৮-২০ মেয়াদের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন।

এই নির্বাচনে ‘টিম হরাইজন’ প্যানেলের হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন ড্রিম৭১ বাংলাদেশ লিমিটেডের প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাশাদ কবির। উল্লেখ্য, তিনি এই নির্বাচনে তিনি সর্বকনিষ্ঠতম প্রার্থী। যার বয়স কিনা ২৭ বছর।

নির্বাচন করার ব্যাপারে রাশাদ কবির বলেন, ব্যবসার পাশাপাশি গত চার বছর ধরে সরকার, বেসিসসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান আয়োজিত তথ্যপ্রযুক্তি আয়োজনের সঙ্গে জড়িত ছিলাম। কাজ করেছি বেসিসের বিভিন্ন অর্গানাইজিং কমিটিতেও।

এসব কাজ করতে গিয়ে মনে হলো, আরও বড় প্ল্যাটফর্মে কাজ করতে পারলে পলিসি তৈরিসহ আইটি শিল্পের উন্নয়নে আরও বেশি অবদান রাখা যাবে। এছাড়া আন্তর্জাতিক বাজারে কাজ করার ভালো অভিজ্ঞতা আছে আমার। যা কাজে লাগাতে চাই। এতে শুধু আমি নয়; পুরো ইন্ডাস্ট্রিই উপকৃত হবে।

নির্বাচিত হলে কী করবেন? এমন প্রশ্নের জবাবে বলেন, দেশীয় পণ্যের জন্য আন্তর্জাতিক বাজারের পরিধি বাড়াতে চাই। এক্সপোর্ট বাড়ানোর জন্যে পুরো মার্কেটটাকে 'ইস্টাব্লিষ্ট', 'এমার্জিং' এবং 'স্ট্রাটেজিক' এই তিন ভাগে ভাগ করতে চাই এবং দেশের বাইরে প্রয়োজন লোকাল অফিস তৈরী করা।

ছোট-খাটো কাজ হয়তো অনলাইনে পাওয়া সম্ভব, কিন্ত বড় কাজ পেতে হলে অবশ্যই লোকাল অফিস থাকা প্রয়োজন।

বাইরের দেশে লোকাল অফিস তৈরি করা একটি কোম্পানির পক্ষে সম্ভব না। কিন্ত ১০/১৫টি কোম্পানি মিলিয়ে যদি ইপিবি এবং আইসিটি ডিভিশনের সহায়তায় লোকাল অফিস তৈরি করা যায়, তাহলে এক সাথে যেমন অনেক কোম্পানী কাজ পাবে, তেমনি আমাদের রপ্তানিতেও সেটা নতুন মাত্রা যোগ করবে।

তরুণ ব্যবসায়ী হিসেবে তরুণদের জন্যও কাজ করার প্রত্যয় জানিয়েছেন রাশাদ কবির।

তাঁর মতে, আন্তর্জাতিক বাজারে তাঁর দক্ষতা বেশ ভালো। তাঁর প্রতিষ্ঠানের বেশিরভাগ আয়-ই আসে আন্তর্জাতিক বাজার থেকে। বেশ আত্ববিশ্বাসী তরুণ এই আইটি ব্যবসায়ী প্রত্যয়ের সুরেই বললেন, আন্তর্জাতিক বাজারে আমার যে সাফল্য ও অভিজ্ঞতা তা ইন্ড্রাস্টিতে কাজে লাগিয়ে ছোট-বড় সব প্রতিষ্ঠানকে একসঙ্গে নিয়ে বেড়ে উঠতে চাই।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter