মোবাইল ফোন কারখানা পরিদর্শনে বিটিআরসির চেয়ারম্যান
jugantor
মোবাইল ফোন কারখানা পরিদর্শনে বিটিআরসির চেয়ারম্যান

  অনলাইন ডেস্ক  

২৪ নভেম্বর ২০২০, ১৫:১১:৪৩  |  অনলাইন সংস্করণ

আশুলিয়ার জিরাবোতে অবস্থিত সিম্ফনির হ্যান্ডসেট উৎপাদন কারখানা পরিদর্শন করেছেন বিটিআরসির চেয়ারম্যান মোহাম্মাদ জহুরুল হক। সিম্ফনি মোবাইলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাকারিয়া শাহীদ উপস্থিত থেকে বিটিআরসির প্রতিনিধি দলকে স্বাগত জানান।

২০১৮ সাল থেকে বাংলাদেশে সিম্ফনি নিজস্ব কারখানায় মোবাইল ফোন উৎপাদন করে আসছে। সিম্ফনি মোবাইলের এই কারখানায় প্রায় ১০০০ কর্মী সঠিক সময়ে সঠিক পণ্যটি কাস্টমারের হাতে পৌঁছানোর জন্য কাজ করছে।

সিম্ফনি’র ফ্যাক্টরি ভিজিটের পর বিটিআরসির চেয়ারম্যান মোহাম্মাদ জহুরুল হক বলেন, “আমি এর আগেও বাংলাদেশের অনেকগুলো মোবাইল ফোন ফ্যাক্টরি ভিজিট করেছি কিন্তু সিম্ফনি মোবাইলের কোয়ালিটি কন্ট্রোল সিস্টেম আমার কাছে অনেক উন্নত মনে হয়েছে এবং নতুন নতুন অনেক প্রযুক্তির সঙ্গেও পরিচিত হয়েছি”।

এরপর তিনি সিম্ফনির ম্যানেজিং ডিরেক্টর জাকারিয়া শাহীদকে উদ্দেশ্য করে বলেন, “আপনারা বিক্রির উদ্দেশ্যে তৈরি হয়ে যাওয়া প্যাকেটজাত পণ্যও নিজেদের ক্ষতির কথা চিন্তা না করে ক্রমাগতভাবে দ্বিতীয় এবং তৃতীয়বার কোয়ালিটি চেক করছেন তাতে করে বোঝা যাচ্ছে কাস্টমারের হাতে আপনারা সেরা পণ্যটি পৌঁছে দিতে বদ্ধপরিকর।”

এসময় তিনি সিম্ফনির কারখানায় কর্মরত শ্রমিকদের প্রযুক্তিগত জ্ঞান, দক্ষতা ও কারখানা এলাকার পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার প্রশংসা করেন।

সিম্ফনি মোবাইলের ম্যানেজিং ডিরেক্টর জাকারিয়া শাহীদ বলেন, “চেয়ারম্যান মহোদয়সহ বিটিআরসির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কারখানা পরিদর্শনে আমরা অত্যন্ত অনুপ্রাণিত হয়েছি।”

প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, বাংলাদেশে সিম্ফনিই একমাত্র ব্র্যান্ড যারা আগামী জানুয়ারি মাস থেকেই তাদের দ্বিতীয় মোবাইল ফোন কারখানা থেকে মোবাইল ফোন উৎপাদন শুরু করবে।

মোবাইল ফোন কারখানা পরিদর্শনে বিটিআরসির চেয়ারম্যান

 অনলাইন ডেস্ক 
২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৩:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

আশুলিয়ার জিরাবোতে অবস্থিত সিম্ফনির হ্যান্ডসেট উৎপাদন কারখানা পরিদর্শন করেছেন বিটিআরসির চেয়ারম্যান মোহাম্মাদ জহুরুল হক। সিম্ফনি মোবাইলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাকারিয়া শাহীদ উপস্থিত থেকে বিটিআরসির প্রতিনিধি দলকে স্বাগত জানান।

২০১৮ সাল থেকে বাংলাদেশে সিম্ফনি নিজস্ব কারখানায় মোবাইল ফোন উৎপাদন করে আসছে। সিম্ফনি মোবাইলের এই কারখানায় প্রায় ১০০০ কর্মী সঠিক সময়ে সঠিক পণ্যটি কাস্টমারের হাতে পৌঁছানোর জন্য কাজ করছে। 

সিম্ফনি’র ফ্যাক্টরি ভিজিটের পর বিটিআরসির চেয়ারম্যান মোহাম্মাদ জহুরুল হক বলেন, “আমি এর আগেও বাংলাদেশের অনেকগুলো মোবাইল ফোন ফ্যাক্টরি ভিজিট করেছি কিন্তু সিম্ফনি মোবাইলের কোয়ালিটি কন্ট্রোল সিস্টেম আমার কাছে অনেক উন্নত মনে হয়েছে এবং নতুন নতুন অনেক প্রযুক্তির সঙ্গেও পরিচিত হয়েছি”। 

এরপর তিনি সিম্ফনির ম্যানেজিং ডিরেক্টর জাকারিয়া শাহীদকে উদ্দেশ্য করে বলেন, “আপনারা বিক্রির উদ্দেশ্যে তৈরি হয়ে যাওয়া প্যাকেটজাত পণ্যও নিজেদের ক্ষতির কথা চিন্তা না করে ক্রমাগতভাবে দ্বিতীয় এবং তৃতীয়বার কোয়ালিটি চেক করছেন তাতে করে বোঝা যাচ্ছে কাস্টমারের হাতে আপনারা সেরা পণ্যটি পৌঁছে দিতে বদ্ধপরিকর।”

এসময় তিনি সিম্ফনির কারখানায় কর্মরত শ্রমিকদের প্রযুক্তিগত জ্ঞান, দক্ষতা ও কারখানা এলাকার পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার প্রশংসা করেন।

সিম্ফনি মোবাইলের ম্যানেজিং ডিরেক্টর জাকারিয়া শাহীদ বলেন, “চেয়ারম্যান মহোদয়সহ বিটিআরসির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কারখানা পরিদর্শনে আমরা অত্যন্ত অনুপ্রাণিত হয়েছি।”

প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, বাংলাদেশে সিম্ফনিই একমাত্র ব্র্যান্ড যারা আগামী জানুয়ারি মাস থেকেই তাদের দ্বিতীয় মোবাইল ফোন কারখানা থেকে মোবাইল ফোন উৎপাদন শুরু করবে।

 
আরও খবর