নতুন আইন: অস্ট্রেলীয়দের জন্য ‘সার্চ সেবা’ বন্ধের হুমকি গুগলের
jugantor
নতুন আইন: অস্ট্রেলীয়দের জন্য ‘সার্চ সেবা’ বন্ধের হুমকি গুগলের

  অনলাইন ডেস্ক  

২২ জানুয়ারি ২০২১, ১৪:২৩:৫৬  |  অনলাইন সংস্করণ

খবরের আউটলেট থেকে মুনাফার ভাগ দিতে প্রণয়ন করা আইন সরকার পরিবর্তন না করলে অস্ট্রেলীয়দের জন্য ‘সার্চ সেবা’ বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দিয়েছে গুগল।

ক্যানবেরার সিনেট কমিটিতে গুগল অস্ট্রেলিয়ার ব্যবস্থাপনা পরিচালক মেল সিলভা বলেন, বিশ্বের প্রথম গণমাধ্যম আইন অকার্যকর এবং তা ইন্টারনেটের কার্যক্রমকে ক্ষতিগ্রস্ত করবে।

বার্তা সংস্থা এএফপি ও বিবিসি এমন খবর দিয়েছে।

সিলভা বলেন, নিয়মাবলির নতুন ভাষ্য আইনে রূপ দেওয়া হলে অস্ট্রেলিয়ায় গুগল সার্চ সেবা বন্ধ করা ছাড়া বাস্তবিকভাবে বিকল্প কোনো উপায় থাকবে না।

খসড়া আইনটি নিয়ে বেশ কয়েক মাসের আলোচনা শেষে সার্চ জায়ান্টটি এই প্রথম এমন কোনো হুমকি দিয়েছে।

গুগল ও ফেসবুককে খবর প্রচারের জন্য স্থানীয় গণমাধ্যম সংস্থাগুলোকে লাভ দিতে হবে। আর না হলে তাদের কোটি কোটি ডলার জরিমানা গুনতে হবে।

মার্কিন প্রযুক্তি জায়ান্টটির প্রভাব নিয়ন্ত্রণে সবচেয়ে আগ্রাসী পদক্ষেপগুলোর একটি নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া।

নতুন আইন অনুসারে, সার্চে আসা খবর মানুষ পড়লে, সেখান থেকে গুগল যেহেতু লাভ করছে, সেহেতু মিডিয়া মোগল রুপার্ট মারডকের সম্প্রচারক এবিসি ও এসবিসিসহ অস্ট্রেলীয় গণমাধ্যমগুলোকে ক্ষতিপূরণ দেবে তাদের।

তিন মাসের মধ্যে খবরের কন্টেন্টের মূল্য নির্ধারণের চুক্তিতে পৌঁছাতে না পারলে নিষ্পত্তির জন্য স্থানীয় গণমাধ্যমগুলোর সঙ্গে আলোচনায় বসতে হবে গুগল ও ফেসবুককে।

দেশটির সরকারের ভাষায়, এটি এখন নিত্যপ্রয়োজনীয় জরুরি সেবার মতো হয়ে উঠেছে, আর এই সেবার বাজারে গুগলের তেমন কোনো প্রতিদ্বন্দ্বিতার মুখোমুখি হতে হচ্ছে না।

আর গণতন্ত্রের জন্য শক্তিশালী গণমাধ্যম যেহেতু জরুরি, সেহেতু অস্ট্রেলিয়া সরকার সাংবাদিকতার জন্যও সহায়তা করাকে দায়িত্ব বলে মনে করছে।

সরকারি তথ্যানুযায়ী, ২০০৫ সলের পর থেকে অস্ট্রেলিয়ার ছাপা পত্রিকার বাজারে বিজ্ঞাপন বাবদ আয় কমেছে ৭৫ শতাংশ। ফলে সাম্প্রতিক সময়ে অনেক সংবাদমাধ্যম বন্ধ হয়ে গেছে, অনেক প্রতিষ্ঠান কর্মী ছঁটাই করতে বাধ্য হয়েছে।

নতুন আইন: অস্ট্রেলীয়দের জন্য ‘সার্চ সেবা’ বন্ধের হুমকি গুগলের

 অনলাইন ডেস্ক 
২২ জানুয়ারি ২০২১, ০২:২৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

খবরের আউটলেট থেকে মুনাফার ভাগ দিতে প্রণয়ন করা আইন সরকার পরিবর্তন না করলে অস্ট্রেলীয়দের জন্য ‘সার্চ সেবা’ বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দিয়েছে গুগল।

ক্যানবেরার সিনেট কমিটিতে গুগল অস্ট্রেলিয়ার ব্যবস্থাপনা পরিচালক মেল সিলভা বলেন, বিশ্বের প্রথম গণমাধ্যম আইন অকার্যকর এবং তা ইন্টারনেটের কার্যক্রমকে ক্ষতিগ্রস্ত করবে।

বার্তা সংস্থা এএফপি ও বিবিসি এমন খবর দিয়েছে।

সিলভা বলেন, নিয়মাবলির নতুন ভাষ্য আইনে রূপ দেওয়া হলে অস্ট্রেলিয়ায় গুগল সার্চ সেবা বন্ধ করা ছাড়া বাস্তবিকভাবে বিকল্প কোনো উপায় থাকবে না।

খসড়া আইনটি নিয়ে বেশ কয়েক মাসের আলোচনা শেষে সার্চ জায়ান্টটি এই প্রথম এমন কোনো হুমকি দিয়েছে।

গুগল ও ফেসবুককে খবর প্রচারের জন্য স্থানীয় গণমাধ্যম সংস্থাগুলোকে লাভ দিতে হবে। আর না হলে তাদের কোটি কোটি ডলার জরিমানা গুনতে হবে।

মার্কিন প্রযুক্তি জায়ান্টটির প্রভাব নিয়ন্ত্রণে সবচেয়ে আগ্রাসী পদক্ষেপগুলোর একটি নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া।

নতুন আইন অনুসারে, সার্চে আসা খবর মানুষ পড়লে, সেখান থেকে গুগল যেহেতু লাভ করছে, সেহেতু মিডিয়া মোগল রুপার্ট মারডকের সম্প্রচারক এবিসি ও এসবিসিসহ অস্ট্রেলীয় গণমাধ্যমগুলোকে ক্ষতিপূরণ দেবে তাদের।

তিন মাসের মধ্যে খবরের কন্টেন্টের মূল্য নির্ধারণের চুক্তিতে পৌঁছাতে না পারলে নিষ্পত্তির জন্য স্থানীয় গণমাধ্যমগুলোর সঙ্গে আলোচনায় বসতে হবে গুগল ও ফেসবুককে।

দেশটির সরকারের ভাষায়, এটি এখন নিত্যপ্রয়োজনীয় জরুরি সেবার মতো হয়ে উঠেছে, আর এই সেবার বাজারে গুগলের তেমন কোনো প্রতিদ্বন্দ্বিতার মুখোমুখি হতে হচ্ছে না। 

আর গণতন্ত্রের জন্য শক্তিশালী গণমাধ্যম যেহেতু জরুরি, সেহেতু অস্ট্রেলিয়া সরকার সাংবাদিকতার জন্যও সহায়তা করাকে দায়িত্ব বলে মনে করছে।

সরকারি তথ্যানুযায়ী, ২০০৫ সলের পর থেকে অস্ট্রেলিয়ার ছাপা পত্রিকার বাজারে বিজ্ঞাপন বাবদ আয় কমেছে ৭৫ শতাংশ। ফলে সাম্প্রতিক সময়ে অনেক সংবাদমাধ্যম বন্ধ হয়ে গেছে, অনেক প্রতিষ্ঠান কর্মী ছঁটাই করতে বাধ্য হয়েছে।