বাজারে এসেই বাজিমাত করল গ্যালাক্সি নোট ৯

প্রকাশ : ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২২:৪৮ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক

স্যামসাংয়ের সর্বাধুনিক প্রযুক্তিসমৃদ্ধ ফোন গ্যালাক্সি নোট ৯ ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। বাজারে আসার আগেই ফোনটি কেনার জন্য অনেকেই প্রি-অর্ডার করেছেন।
সম্প্রতি মোবাইল ফোন ডিস্ট্রিবিউটর প্রতিষ্ঠান ‘এক্সেল টেলিকম’ আনুষ্ঠানিকভাবে প্রি-অর্ডারকৃত গ্রাহকদের হাতে স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট ৯ তুলে দেন।  

অনুষ্ঠানটি আয়োজন করা হয়েছিল দেশের সর্ববৃহৎ শপিংমল যমুনা ফিউচার পার্কের স্যামসাং ব্র্যান্ড শপে।

অনুষ্ঠানে ‘স্যামসাং বাংলাদেশ’ এবং ‘এক্সেল টেলিকম’-এর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, এক্সেল টেলিকম বাংলাদেশের অন্যতম প্রতিষ্ঠিত গ্রুপ অব কোম্পানিজ ‘লাবিব গ্রুপ’-এর একটি সহযোগী প্রতিষ্ঠান৷

এক্সেল টেলিকমের অপারেশন পরিচালক মেজর ( অব.)  আব্দুল্লাহ আল মনছুর ভূঞা বলেন, গ্যালাক্সি নোট ৯ এ যাবৎকালে বিশ্বের সর্বোত্তম প্রযুক্তিসমৃদ্ধ নোট। এটি বাজারে আসতে না আসতেই ক্রেতাদের মাঝে সাড়া ফেলেছে। প্রত্যাশার চেয়ে বেশি পরিমাণে অর্ডার পেয়েছি।

তিনি জানান, বাংলাদেশে গত বছরে গ্যালাক্সি নোট ৮ এর প্রায় ১৫০ শতাংশের বেশি গ্যালাক্সি নোট ৯ প্রি-অর্ডার হয়েছে৷

স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট ৯ এ আছে ৪০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার আওয়ারের শক্তিশালী ব্যাটারি। এতে ফাস্ট ওয়্যারলেস চার্জিং টেকনোলজি ব্যবহার করা হয়েছে।

ফোনটিতে ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট থাকায় হাইস্পিডে ডাটা ট্রান্সফার করা যাবে। ৬ জিবি র‌্যামের এই ফোনটিতে রয়েছে ৫১২ জিবির বিল্টইন মেমোরি।

বিশেষ ফিচার হিসেবে আছে ইন্টিলিজেন্ট স্ক্যানার, নতুন স্টেরিও স্পিকার ও অ্যাপ পেয়ারিংয়ের সুবিধা। নোট ৯ এ ব্যবহার করা হয়েছে ৬.৪ ইঞ্চির ইনফিনিটি ডিসপ্লে।  এসপেন এর ফলে মাল্টিমিডিয়া অ্যাপস ব্যবহার করা যাবে সহজে।

আগের নোট সিরিজের ফোনগুলোতে এসপেন দিয়ে আমরা খুব কাছে থেকে ফোনটাকে নিয়ন্ত্রণ করা যেত। নতুন ফোনে অনেক দূর থেকে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে।

অর্থাৎ ফোনটা যে অবস্থাতেই থাকুক না কেন, এসপেন প্রেস অ্যান্ড হোল্ড করে রাখলেই ফোনের ক্যামেরা অন হয়ে যাবে। 

অনেক সময় সেলফি তোলার সময় ক্যামেরার বাটনটা প্রেস করা অনেক কঠিন হয়, কিন্তু এখন এসপেন সিঙ্গেল ক্লিক করেই ছবি ক্যাপচার করা যাবে।

মোবাইলটির এসপেনও থাকছে আইপি ৬৮। ফলে যখন যেভাবে ইচ্ছে ফোন ব্যবহার করা যাবে। স্যামসাংয়ের নতুন এ ফোনে ইন্টারনেট কানেকটিভিটি আগের চেয়ে অনেক দ্রুতগতিতে কাজ করবে।  সর্বোচ্চ আপলিঙ্ক স্পিড ১.২ বিপিএস, ডাউনলিঙ্ক স্পিড ২০০ বিপিএস পাওয়া যাবে এতে। ফোনটিতে এক্সট্রিম লেভেলের গেমিং এক্সপেরিয়েন্সও পাওয়া যাবে।