কমেডি কন্টেন্ট বানিয়ে সাড়া ফেলেছেন রাকিন, অভিনয় করতে চান নাটক-সিনেমায়
jugantor
কমেডি কন্টেন্ট বানিয়ে সাড়া ফেলেছেন রাকিন, অভিনয় করতে চান নাটক-সিনেমায়

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১১ মে ২০২২, ২২:৩৯:৪১  |  অনলাইন সংস্করণ

বর্তমানে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমফেসবুক বা ইন্সটাগ্রামে সক্রিয়, কিন্তু কখনো রাকিন আবসারের ভিডিও দেখেননি এমন মানুষ সম্ভবত খুব কমই পাওয়া যাবে। মি. আবসার নামে পরিচিত পেজটিতে বিভিন্ন চরিত্রে রাকিনকে দেখা যায় হাস্যরসাত্মক নানা ভিডিওতে।

রাকিন জানান, সহজাতভাবেই তার মধ্যে কমেডি ব্যাপারটা রয়েছে। কিন্তু কমেডি ছাড়াও নিজের মধ্যে আরো প্রতিভা আছে বলেই তার বিশ্বাস। সেজন্য শুধু কমেডিয়ান হিসেবে নয় বরং একজন এন্টারটেইনার ও ডিজিটাল কন্টেন্ট ক্রিয়েটর হিসেবে পরিচয় দিতে তিনি স্বচ্ছন্দবোধ করেন।

বর্তমানে কমেডির পাশাপাশি বিভিন্ন লাইফস্টাইল ব্লগ তৈরি করা শুরু করেছেন তিনি। ভিডিও তৈরির প্রক্রিয়া সম্পর্কে তিনি জানান, স্ক্রিপ্ট লিখতে তিনি তেমন অভ্যস্ত নন। বেশিরভাগ ভিডিওতেই তিনি ইম্প্রভ অভিনয় করে থাকেন। কন্টেন্ট ডেভেলপ করতে বেশি সময় নেন না তিনি। সাধারণত দুই থেকে চারদিনের মধ্যেই একেকটা ভিডিও’র কাজ শেষ করেন তিনি।

কমেডি ছাড়াও রাকিনের আগ্রহের জায়গা হলো অভিনয়। ভালো গল্প আর পরিচালকের সঙ্গে সুযোগ পেলে ভবিষ্যতে রাকিন চান নাটক বা সিনেমায় অভিনয় করতে।

তিনি বলেন, আমি তেমন পরিকল্পনায় বিশ্বাসী নই। পরিস্থিতি যেখানে নিয়ে যাবে, সেখানেই ভালোভাবে কাজ করতে চাই। সব সুযোগের প্রতিই আমি উন্মুক্ত।

ভবিষ্যতে নাটক বা সিনেমায় অভিনয় করার ইচ্ছা রয়েছে জানিয়ে রাকিন বলেন, ‘অভিনয় দিয়েই আমি আমার মেধাকে আবিষ্কার করেছি। আমি অভিনয়ের ব্যাপারে খুবই আগ্রহী। অভিনয় হচ্ছে এমন একটা ব্যাপার যেটা আমি খুব উপভোগ করি। ভালো গল্পে সবসময় কাজ করতে চাই আমি। আশা করি ভবিষ্যতে এই সুযোগ হবে।’

রাকিনের প্রিয় কমেডিয়ান বিখ্যাত লাইজা কোশি। লাইজার সঙ্গে নিজের সেন্স অফ হিউমারের মিল খুঁজে পান তিনি। নতুনদের জন্য তার পরামর্শ, ভিউসের জন্য কন্টেন্ট তৈরি না করে নিজের জন্য করা আর নিজেকে সম্মান করা। ভিউস ধীরে ধীরে বাড়বে, কিন্তু শুধু ভিউসের জন্য এই জগতে না আসাই ভালো।

একজন দর্শকের দৃষ্টিকোণ থেকে নিজেকে রাকিন বিচার করেন একজন সম্ভাবনাময় ডিজিটাল ক্রিয়েটর হিসেবে। একজন জনপ্রিয় কন্টেন্ট ক্রিয়েটর হলেও তিনি মনে করেন বাংলাদেশে কন্টেন্ট ক্রিয়েশন বা যে কোনো মিডিয়াভিত্তিক কাজে নিজেকে জড়াতে চাওয়া এখনো বিপজ্জনক। কারণ হিসেবে তিনি উল্লেখ করেছেন, মিডিয়ার অস্থিরতা এবং দর্শকের রুচিশীলতাকে।তার মনে এখনো বাংলাদেশের মিডিয়া জগৎ এই পর্যায়ে যায়নি যে, যে কেউ খুব সহজেই কাজ করে নিজের অবস্থান তৈরি করতে পারেন।তবে নতুনদের জন্য আবার দিয়েছেন, আশার বাণীও।তিনি মনে করেন, কেউ যদি নিজের কাজের ওপর ভরসা করেন, শুধু সস্তা জনপ্রিয়তার আশায় কাজ না করেন এবং সৃজনশীল কাজ করেন তবে নিজের পোক্ত অবস্থান তৈরি করে নিতে পারেন যে কেউ। নিজের কাজ ও নিজের প্রতি সম্মান থাকাটা অত্যন্ত জরুরি।তবে শুরুর দিকে ভিউ কম আসবে এবং কাজের পেছনে লেগে থাকার মানসিকতা থাকতে হবে।

কমেডি কন্টেন্ট বানিয়ে সাড়া ফেলেছেন রাকিন, অভিনয় করতে চান নাটক-সিনেমায়

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১১ মে ২০২২, ১০:৩৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বর্তমানে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক বা ইন্সটাগ্রামে সক্রিয়, কিন্তু কখনো রাকিন আবসারের ভিডিও দেখেননি এমন মানুষ সম্ভবত খুব কমই পাওয়া যাবে। মি. আবসার নামে পরিচিত পেজটিতে বিভিন্ন চরিত্রে রাকিনকে দেখা যায় হাস্যরসাত্মক নানা ভিডিওতে।

রাকিন জানান, সহজাতভাবেই তার মধ্যে কমেডি ব্যাপারটা রয়েছে। কিন্তু কমেডি ছাড়াও নিজের মধ্যে আরো প্রতিভা আছে বলেই তার বিশ্বাস। সেজন্য শুধু কমেডিয়ান হিসেবে নয় বরং একজন এন্টারটেইনার ও ডিজিটাল কন্টেন্ট ক্রিয়েটর হিসেবে পরিচয় দিতে তিনি স্বচ্ছন্দবোধ করেন।

বর্তমানে কমেডির পাশাপাশি বিভিন্ন লাইফস্টাইল ব্লগ তৈরি করা শুরু করেছেন তিনি। ভিডিও তৈরির প্রক্রিয়া সম্পর্কে তিনি জানান, স্ক্রিপ্ট লিখতে তিনি তেমন অভ্যস্ত নন। বেশিরভাগ ভিডিওতেই তিনি ইম্প্রভ অভিনয় করে থাকেন। কন্টেন্ট ডেভেলপ করতে বেশি সময় নেন না তিনি। সাধারণত দুই থেকে চারদিনের মধ্যেই একেকটা ভিডিও’র কাজ শেষ করেন তিনি।

কমেডি ছাড়াও রাকিনের আগ্রহের জায়গা হলো অভিনয়। ভালো গল্প আর পরিচালকের সঙ্গে সুযোগ পেলে ভবিষ্যতে রাকিন চান নাটক বা সিনেমায় অভিনয় করতে।

তিনি বলেন, আমি তেমন পরিকল্পনায় বিশ্বাসী নই। পরিস্থিতি যেখানে নিয়ে যাবে, সেখানেই ভালোভাবে কাজ করতে চাই। সব সুযোগের প্রতিই আমি উন্মুক্ত।

ভবিষ্যতে নাটক বা সিনেমায় অভিনয় করার ইচ্ছা রয়েছে জানিয়ে রাকিন বলেন, ‘অভিনয় দিয়েই আমি আমার মেধাকে আবিষ্কার করেছি। আমি অভিনয়ের ব্যাপারে খুবই আগ্রহী। অভিনয় হচ্ছে এমন একটা ব্যাপার যেটা আমি খুব উপভোগ করি। ভালো গল্পে সবসময় কাজ করতে চাই আমি। আশা করি ভবিষ্যতে এই সুযোগ হবে।’

রাকিনের প্রিয় কমেডিয়ান বিখ্যাত লাইজা কোশি। লাইজার সঙ্গে নিজের সেন্স অফ হিউমারের মিল খুঁজে পান তিনি। নতুনদের জন্য তার পরামর্শ, ভিউসের জন্য কন্টেন্ট তৈরি না করে নিজের জন্য করা আর নিজেকে সম্মান করা। ভিউস ধীরে ধীরে বাড়বে, কিন্তু শুধু ভিউসের জন্য এই জগতে না আসাই ভালো।

একজন দর্শকের দৃষ্টিকোণ থেকে নিজেকে রাকিন বিচার করেন একজন সম্ভাবনাময় ডিজিটাল ক্রিয়েটর হিসেবে। একজন জনপ্রিয় কন্টেন্ট ক্রিয়েটর হলেও তিনি মনে করেন বাংলাদেশে কন্টেন্ট ক্রিয়েশন বা যে কোনো মিডিয়াভিত্তিক কাজে নিজেকে জড়াতে চাওয়া এখনো বিপজ্জনক। কারণ হিসেবে তিনি উল্লেখ করেছেন, মিডিয়ার অস্থিরতা এবং দর্শকের রুচিশীলতাকে।তার মনে এখনো বাংলাদেশের মিডিয়া জগৎ এই পর্যায়ে যায়নি যে, যে কেউ খুব সহজেই কাজ করে নিজের অবস্থান তৈরি করতে পারেন।তবে নতুনদের জন্য আবার দিয়েছেন, আশার বাণীও।তিনি মনে করেন, কেউ যদি নিজের কাজের ওপর ভরসা করেন, শুধু সস্তা জনপ্রিয়তার আশায় কাজ না করেন এবং সৃজনশীল কাজ করেন তবে নিজের পোক্ত অবস্থান তৈরি করে নিতে পারেন যে কেউ। নিজের কাজ ও নিজের প্রতি সম্মান থাকাটা অত্যন্ত জরুরি।তবে শুরুর দিকে ভিউ কম আসবে এবং কাজের পেছনে লেগে থাকার মানসিকতা থাকতে হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন