বিশেষ আয়োজনে কুমার বিশ্বজিৎ
jugantor
বিশেষ আয়োজনে কুমার বিশ্বজিৎ

  আনন্দনগর প্রতিবেদক  

০৫ আগস্ট ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

কুমার বিশ্বজিৎ

সংগীত ক্যারিয়ারে ৪০ বছর পূর্ণ করেছেন জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী কুমার বিশ্বজিৎ।

১৯৮২ সালে ‘তোরে পুতুলের মতো করে সাজিয়ে’ গানটি দিয়েই পেশাদার সংগীতশিল্পী হিসাবে যাত্রা শুরু তার। এ গানটি তুমুল শ্রোতাপ্রিয়তা পায়।

এরপর গত চার দশকের অসংখ্য শ্রোতাপ্রিয় গান করেছেন তিনি। বিরামহীনভাবে গাইছেন এখনো। ক্যারিয়ারে চার দশক পূর্তি উপলক্ষ্যে বিশেষ এক উদ্যোগ নিয়েছেন কুমার বিশ্বজিৎ। তা হলো, সংগীত জীবনের সর্বাধিক শ্রোতাপ্রিয় আট/দশটি গান নতুন করে শ্রোতাদের জন্য তৈরি করছেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে কুমার বিশ্বজিৎ বলেন, যদিও বা ১৯৮২ সালের আগেই আমি গান গাইতে শুরু করেছি। কিন্তু শ্রোতা-দর্শক আমাকে চিনতে শুরু করেছেন তোরে পুতুলের মতো করে সাজিয়ে গানটি দিয়ে। সেই হিসাবে আমার সংগীত জীবনের চার দশক পূর্ণ হলো। আগামী অক্টোবর কিংবা নভেম্বরে বিশেষ আয়োজনের মধ্যদিয়ে আমার সংগীত জীবনের সফল এ যাত্রা উদযাপন করা হবে। এখন থেকেই বিশেষ মুহূর্তটি উদযাপনের প্রস্তুতি নিচ্ছি। আমার গাওয়া জনপ্রিয় আট/দশটি গান নতুন সংগীতায়োজনে শ্রোতা-দর্শকের জন্য তৈরি করছি। এরইমধ্যে কাজ অনেকটাই এগিয়ে গেছে। এ আয়োজনের মাধ্যমে অবশ্যই আমার সংগীত জীবনের অবদানের নেপথ্যে যারা ছিলেন (হয়তো বা বেঁচে নেই) তাদেরকে শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করা হবে। যারা আছেন এখনো তারা এ আয়োজনে থাকবেন। আরও থাকবেন প্রিয় কিছু মানুষও।

তিনি আরও বলেন, জানি না সংগীত জীবনের হাফ সেঞ্চুরি বা সুবর্ণজয়ন্তী পাব কী না। চেনা জানা অনেকেই তো চলে গেছেন! তাই যেহেতু চার দশক পেয়েছি, এটাই না হয় আপাতত আনন্দ নিয়ে উদযাপন করি। জীবন তো আসলে ক্ষণিকের। জীবনে যতটা দিন বাঁচি, আনন্দ নিয়ে বাঁচতে চাই। সবার জন্য আরও কিছু ভালো গান উপহার দিয়ে যেতে চাই। বাংলাদেশের গানপ্রেমী মানুষের প্রতি, শ্রোতাদের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা ভালোবাসা। কারণ তাদের কারণেই আমি আজকের কুমার বিশ্বজিৎ। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তাদেরই বিশ্বজিৎ হয়ে থাকতে চাই।

বিশেষ আয়োজনে কুমার বিশ্বজিৎ

 আনন্দনগর প্রতিবেদক 
০৫ আগস্ট ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
কুমার বিশ্বজিৎ
কুমার বিশ্বজিৎ

সংগীত ক্যারিয়ারে ৪০ বছর পূর্ণ করেছেন জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী কুমার বিশ্বজিৎ।

১৯৮২ সালে ‘তোরে পুতুলের মতো করে সাজিয়ে’ গানটি দিয়েই পেশাদার সংগীতশিল্পী হিসাবে যাত্রা শুরু তার। এ গানটি তুমুল শ্রোতাপ্রিয়তা পায়।

এরপর গত চার দশকের অসংখ্য শ্রোতাপ্রিয় গান করেছেন তিনি। বিরামহীনভাবে গাইছেন এখনো। ক্যারিয়ারে চার দশক পূর্তি উপলক্ষ্যে বিশেষ এক উদ্যোগ নিয়েছেন কুমার বিশ্বজিৎ। তা হলো, সংগীত জীবনের সর্বাধিক শ্রোতাপ্রিয় আট/দশটি গান নতুন করে শ্রোতাদের জন্য তৈরি করছেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে কুমার বিশ্বজিৎ বলেন, যদিও বা ১৯৮২ সালের আগেই আমি গান গাইতে শুরু করেছি। কিন্তু শ্রোতা-দর্শক আমাকে চিনতে শুরু করেছেন তোরে পুতুলের মতো করে সাজিয়ে গানটি দিয়ে। সেই হিসাবে আমার সংগীত জীবনের চার দশক পূর্ণ হলো। আগামী অক্টোবর কিংবা নভেম্বরে বিশেষ আয়োজনের মধ্যদিয়ে আমার সংগীত জীবনের সফল এ যাত্রা উদযাপন করা হবে। এখন থেকেই বিশেষ মুহূর্তটি উদযাপনের প্রস্তুতি নিচ্ছি। আমার গাওয়া জনপ্রিয় আট/দশটি গান নতুন সংগীতায়োজনে শ্রোতা-দর্শকের জন্য তৈরি করছি। এরইমধ্যে কাজ অনেকটাই এগিয়ে গেছে। এ আয়োজনের মাধ্যমে অবশ্যই আমার সংগীত জীবনের অবদানের নেপথ্যে যারা ছিলেন (হয়তো বা বেঁচে নেই) তাদেরকে শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করা হবে। যারা আছেন এখনো তারা এ আয়োজনে থাকবেন। আরও থাকবেন প্রিয় কিছু মানুষও।

তিনি আরও বলেন, জানি না সংগীত জীবনের হাফ সেঞ্চুরি বা সুবর্ণজয়ন্তী পাব কী না। চেনা জানা অনেকেই তো চলে গেছেন! তাই যেহেতু চার দশক পেয়েছি, এটাই না হয় আপাতত আনন্দ নিয়ে উদযাপন করি। জীবন তো আসলে ক্ষণিকের। জীবনে যতটা দিন বাঁচি, আনন্দ নিয়ে বাঁচতে চাই। সবার জন্য আরও কিছু ভালো গান উপহার দিয়ে যেতে চাই। বাংলাদেশের গানপ্রেমী মানুষের প্রতি, শ্রোতাদের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা ভালোবাসা। কারণ তাদের কারণেই আমি আজকের কুমার বিশ্বজিৎ। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তাদেরই বিশ্বজিৎ হয়ে থাকতে চাই।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন