চ্যানেলগুলো ক্রমশ অসহায় হয়ে পড়ছে

বাংলাভিশনে প্রচার চলছে ধারাবাহিক নাটক ‘খেলোয়াড়’। আজ নাটকটির ১০০তম পর্ব প্রচার হবে। এটি রচনা ও পরিচালনা করেছেন নাট্যকার ও নির্মাতা মাসুদ সেজান। এ নাটক ও অন্যান্য প্রসঙ্গ নিয়ে আজকের ‘হ্যালো...’ বিভাগে কথা বলেছেন তিনি

প্রকাশ : ১৩ মে ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক   

বাংলাভিশনে প্রচার চলছে ধারাবাহিক নাটক ‘খেলোয়াড়’। আজ নাটকটির ১০০তম পর্ব প্রচার হবে। এটি রচনা ও পরিচালনা করেছেন নাট্যকার ও নির্মাতা মাসুদ সেজান। এ নাটক ও অন্যান্য প্রসঙ্গ নিয়ে আজকের ‘হ্যালো...’ বিভাগে কথা বলেছেন তিনি

* ‘খেলোয়াড়’ নাটকটি নিয়ে আপনার অনুভূতি কী?

** খেলোয়াড় নাটকটি দর্শক তুমুল আগ্রহ নিয়ে দেখছেন। এর অভিনয়শিল্পীরাও ভালো রেসপন্স পাচ্ছেন। বিভিন্ন মাধ্যমে আমাকেও দর্শক তাদের ভালোবাসার কথা জানাচ্ছেন। এখানেই আমার প্রাপ্তি, আমার ভালোলাগা।

* কত পর্বে এটি শেষ হবে?

** ১০৪ পর্বে শেষ করার কথা। তবে গল্পের বিশেষ প্রয়োজনে সেটি ১০৬ পর্যন্ত যেতে পারে। শততম পর্বে বিশেষ কোনো উপাদান দিয়ে নয়, বরং গল্পটির পরিসমাপ্তির আগে যে টানটান উত্তেজনা তৈরি হওয়ার কথা, এ পর্বটি দেখে দর্শক সে রকম একটি ভালোলাগা অনুভব করবেন বলে আমি মনে করছি।

* অনেকে বলে, দর্শক টিভি নাটক থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে? এর অন্যতম কারণ কী?

** একটি মানসম্মত নাটক নির্মাণ থেকে শুরু করে এর প্রচার প্রক্রিয়ার পুরো পদ্ধতিটাই নষ্ট হয়ে গেছে। এক কথায়, নাটক এখন আর নাটকের মানুষের হাতে নেই, চ্যানেলের হাতেও নেই। অধিকাংশ চ্যানেল জানে না তারা কী প্রচার করছে।

* তাহলে চ্যানেল চলছে কীভাবে?

** চ্যানেল নিজে চলছে না, তাকে চালানো হচ্ছে। চ্যানেলে নাটক সরবরাহের দায়িত্ব নিয়েছে এজেন্সি। এখন তো এজেন্সিকে টপকিয়ে এক বা একাধিক সিন্ডিকেট এবং একশ্রেণীর দালাল সরাসরি পৌঁছে গেছে প্রোডাক্ট মালিকের কাছে। কাজেই টিভি চ্যানেলগুলো ক্রমশ অসহায় হয়ে পড়ছে।

* ঈদের জন্য কোনো নাটক নির্মাণ করছেন কি?

** হ্যাঁ। বাংলাভিশন ও আরটিভির জন্য দুটি সাত পর্বের ধারাবাহিক নাটক নির্মাণ করছি। ‘চরিত্র : ভাড়াটিয়া’ নাটকটি প্রচার হবে বাংলাভিশনে এবং ‘ধামাকা অফার’ প্রচার হবে আরটিভিতে। শুটিং শেষে দুটি নাটকেরই সম্পাদনার কাজ চলছে এখন।

সোহেল আহসান