দুই পপির আকুতি...

  আনন্দনগর প্রতিবেদক ১৭ জুলাই ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

চিত্রনায়িকা ববিতা। পারিবারিক নাম ফরিদা আক্তার পপি। সিনেমায় আসার পর ডাকনাম বদলে ববিতা হিসেবেই পরিচিতি পান। অন্যদিকে আরেক চিত্রনায়িকা পপি। তার পারিবারিক নাম সাদিকা পারভীন। ডাকনাম পপি। সিনেমায় তিনি পারিবারিক ডাক নামেই পরিচিতি পান। ববিতা ছিলেন ঢাকাই নায়িকাদের মধ্যে সবচেয়ে ফ্যাশনেবল। অন্যদিকে শুধু নামের মিলই নয়, ছোটবেলা থেকে ববিতার ফ্যাশনেরও ভক্ত ছিলেন পপি। এই দুই পপি এবার সিনেমা শিল্প বাঁচানো, বিশেষ করে সিনিয়র শিল্পীদের কাজে লাগানোর জন্য একই আকুতি জানিয়েছেন সবার প্রতি। ববিতা বলেছেন, ‘বর্তমানে ছবি নির্মাণে ভালো এবং মৌলিক গল্পের খুব অভাব। সবাই কেমন যেন ধার করা গল্প নিয়ে ছবি বানাচ্ছেন! শুধু গল্পের ক্ষেত্রেই নয়, শিল্পীদের কাজে লাগানোর ক্ষেত্রেও এখন অনেকের মধ্যে অনীহা। যে কারণে ভালো ছবি তৈরি হচ্ছে না। অথচ পাশের দেশ ভারতের দিকে তাকালে দেখা যাবে, সেখানে অমিতাভ বচ্চন, শ্রীদেবীর মতো সিনিয়র অভিনেতাদের ঘিরে গল্প দাঁড় করিয়ে নির্মাণ করা হচ্ছে। সেগুলো দর্শকও দেখছেন। আমি মনে করি এ ধরনের গল্প নিয়ে দেশে ছবি নির্মিত হলে সেগুলো দর্শক দেখবেন। সিনেমাশিল্প আবার ঘুরে দাঁড়াবে।’

ববিতার কথার সঙ্গে একমত পপিও। তিনি বলেন, আমাদের দেশের অনেক সিনিয়র কিংবদন্তি শিল্পী যেমন সুজাতা ম্যাডাম, কবরী ম্যাডাম, ববিতা ম্যাডাম, সুচরিতা ম্যাডামের মতো অনেকেই কাজ থেকে অনিচ্ছাকৃতভাবেই দূরে আছেন। প্রযোজক, পরিচালক চাইলেই তাদের নিয়ে কাজ করতে পারেন। শুধু এতটুকুই প্রয়োজন, ছবির গল্পে তাদের গুরুত্ব রাখা। এটা সত্যি, ভারতের মতো বিশাল বাজেটে এদেশে ছবি নির্মাণের ভাবনা অপরিকল্পনীয়। কিন্তু যে বাজেটই ছবির জন্য রাখা হয় তার চেয়ে কিছুটা বাড়িয়ে গল্পে তাদের চরিত্রকে আরও অলঙ্কৃত করে তাদের নিয়ে কাজ করা যেতে পারে। আমিও এখন গল্পের কারণেই সিনেমায় নিয়মিত অভিনয় করতে পারছি না। গল্প ভালো লাগলে, নিজের চরিত্র ভালো লাগলে তবেই না সিনেমাতে কাজ করব। প্রযোজক, পরিচালক, কাহিনীকার চেষ্টা করলেই তা সম্ভব। শুধু তাদের ইচ্ছাটাই যথেষ্ট।’

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×