যুগান্তর দিনে দিনে অনেক পরিণত
jugantor
হ্যালো...
যুগান্তর দিনে দিনে অনেক পরিণত
বিশ বছর অতিক্রম করে আজ একুশ বছরে পদার্পণ করেছে যুগান্তর। এ উপলক্ষে অনেকেই শুভেচ্ছা জানিয়েছেন যুগান্তরকে। শোবিজ কর্মীরাও পিছিয়ে নেই। চিত্রনায়ক রিয়াজও জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। যুগান্তরের সঙ্গে তার কিছু অভিজ্ঞতা রয়েছে এবং সেই সঙ্গে পরামর্শও বিনিময় করেছেন। এসব বিষয় তুলে ধরা হয়েছে আজকের ‘হ্যালো...’ বিভাগে

   

০১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

* আজ যুগান্তর একুশ বছরে পা দিয়েছে। এই শুভক্ষণে যুগান্তরের প্রতি আপনার অভিব্যক্তি কী?

** যুগান্তর পত্রিকাটির জন্মের আগে থেকেই আমি মিডিয়ায় কাজ শুরু করেছি। ২০০০ সালে যখন এ পত্রিকা প্রকাশ হয় তখন থেকেই এর পাঠক আমি। শুরু থেকেই সত্য ও সুন্দর সংবাদ পরিবেশন করে যাচ্ছে এটি। তাই অল্প সময়ের মধ্যেই পাঠকপ্রিয়ও হয়েছে। শুধু দুই দশক নয়, আরও অনেকদিন এটি পাঠকের প্রিয় পত্রিকা হয়ে থাকুক, জন্মদিনে এটাই প্রত্যাশা করছি।

* বলছিলেন শুরু থেকেই যুগান্তরের পাঠক আপনি। শুরুর দিকের সঙ্গে এখনকার যুগান্তর নিয়ে আপনার পর্যবেক্ষণ কী?

** মানুষের মতো পত্রিকাও সময়ের সঙ্গে পরিণত হয়। এখন আমার কাছে মনে হয় যুগান্তর দিনে দিনে অনেক পরিণত হয়েছে। শুরুতে তখনকার মতো ভালো লাগত, আর এখন এ সময়ের পারিপার্শ্বিকতার কারণে ভালো লাগে। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করার মানসিকতা থাকলেই সেটি মানুষের কাছে সাড়া জাগায়। আমার মনে হয় যুগান্তর সব সময় সে ধরনের সংবাদ উপস্থাপন করে। যুগান্তর একটি ভালো পত্রিকা। আশা করছি আগামীতে আরও ভালো কিছু পাব যুগান্তরের কাছ থেকে।

* যুগান্তরের বিনোদন সংবাদের পাশাপাশি আর কোন সংবাদ আপনি পড়েন?

** বিনোদন তো পড়তেই হয়। কারণ আমি এ অঙ্গনের মানুষ। পাশাপাশি দেশের খবর, রাজনীতির খবরের সঙ্গে অন্যান্য খবরও নিয়মিত পড়া হয়। পুরো পত্রিকার সব দিকেই নজর রাখার চেষ্টা করি।

* বাংলাদেশের সিনে ইন্ডাস্ট্রি কিংবা বিনোদন জগৎকে কতটুকু উপস্থাপন করতে পেরেছে যুগান্তর?

** যুগান্তর তাদের মতো করেই কাজ করে যাচ্ছে। আসলে এতগুলো পত্রিকা ও চ্যানেল থাকা সত্ত্বেও আমাদের ছবির জগৎ ধ্বংসের দিকে, আমরাই ধ্বংস করে ফেলছি। তারপরও যুগান্তর তার সামর্থ্য অনুযায়ী ছবির জগৎ যেন আবার ভালোর দিকে যায়, তার জন্য কাজ করে যাচ্ছে।

সোহেল আহসান

হ্যালো...

যুগান্তর দিনে দিনে অনেক পরিণত

বিশ বছর অতিক্রম করে আজ একুশ বছরে পদার্পণ করেছে যুগান্তর। এ উপলক্ষে অনেকেই শুভেচ্ছা জানিয়েছেন যুগান্তরকে। শোবিজ কর্মীরাও পিছিয়ে নেই। চিত্রনায়ক রিয়াজও জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। যুগান্তরের সঙ্গে তার কিছু অভিজ্ঞতা রয়েছে এবং সেই সঙ্গে পরামর্শও বিনিময় করেছেন। এসব বিষয় তুলে ধরা হয়েছে আজকের ‘হ্যালো...’ বিভাগে
  
০১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

* আজ যুগান্তর একুশ বছরে পা দিয়েছে। এই শুভক্ষণে যুগান্তরের প্রতি আপনার অভিব্যক্তি কী?

** যুগান্তর পত্রিকাটির জন্মের আগে থেকেই আমি মিডিয়ায় কাজ শুরু করেছি। ২০০০ সালে যখন এ পত্রিকা প্রকাশ হয় তখন থেকেই এর পাঠক আমি। শুরু থেকেই সত্য ও সুন্দর সংবাদ পরিবেশন করে যাচ্ছে এটি। তাই অল্প সময়ের মধ্যেই পাঠকপ্রিয়ও হয়েছে। শুধু দুই দশক নয়, আরও অনেকদিন এটি পাঠকের প্রিয় পত্রিকা হয়ে থাকুক, জন্মদিনে এটাই প্রত্যাশা করছি।

* বলছিলেন শুরু থেকেই যুগান্তরের পাঠক আপনি। শুরুর দিকের সঙ্গে এখনকার যুগান্তর নিয়ে আপনার পর্যবেক্ষণ কী?

** মানুষের মতো পত্রিকাও সময়ের সঙ্গে পরিণত হয়। এখন আমার কাছে মনে হয় যুগান্তর দিনে দিনে অনেক পরিণত হয়েছে। শুরুতে তখনকার মতো ভালো লাগত, আর এখন এ সময়ের পারিপার্শ্বিকতার কারণে ভালো লাগে। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করার মানসিকতা থাকলেই সেটি মানুষের কাছে সাড়া জাগায়। আমার মনে হয় যুগান্তর সব সময় সে ধরনের সংবাদ উপস্থাপন করে। যুগান্তর একটি ভালো পত্রিকা। আশা করছি আগামীতে আরও ভালো কিছু পাব যুগান্তরের কাছ থেকে।

* যুগান্তরের বিনোদন সংবাদের পাশাপাশি আর কোন সংবাদ আপনি পড়েন?

** বিনোদন তো পড়তেই হয়। কারণ আমি এ অঙ্গনের মানুষ। পাশাপাশি দেশের খবর, রাজনীতির খবরের সঙ্গে অন্যান্য খবরও নিয়মিত পড়া হয়। পুরো পত্রিকার সব দিকেই নজর রাখার চেষ্টা করি।

* বাংলাদেশের সিনে ইন্ডাস্ট্রি কিংবা বিনোদন জগৎকে কতটুকু উপস্থাপন করতে পেরেছে যুগান্তর?

** যুগান্তর তাদের মতো করেই কাজ করে যাচ্ছে। আসলে এতগুলো পত্রিকা ও চ্যানেল থাকা সত্ত্বেও আমাদের ছবির জগৎ ধ্বংসের দিকে, আমরাই ধ্বংস করে ফেলছি। তারপরও যুগান্তর তার সামর্থ্য অনুযায়ী ছবির জগৎ যেন আবার ভালোর দিকে যায়, তার জন্য কাজ করে যাচ্ছে।

সোহেল আহসান

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন