করোনাভাইরাস সংকট: নাট্যকর্মীদের জন্য তৈরি হচ্ছে ফান্ড

  আনন্দনগর প্রতিবেদক ৩০ মার্চ ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

আহসান হাবিব নাসিম ও সালাউদ্দিন লাভলু

করোনাভাইরাস সংকটের কারণে দেশের অন্যান্য সেক্টরের মতো টেলিভিশন নাটককেন্দ্রিক নাট্যকর্মীরাও সংকটে পড়েছেন।

বিশেষ করে দৈনিক ভিত্তিতে যেসব টেকনিশিয়ান ও সহকারী কাজ করেন তাদের আর্থিক অবস্থা খুব ভালো যাচ্ছে না এখন।

প্রায় এক সপ্তাহ ধরে বন্ধ আছে নাটকের শুটিং। এ অল্প সময়ের মধ্যেই অনেকে আর্থিক সংকটে পড়েছেন বলে জানিয়েছেন নাটককেন্দ্রিক সংগঠনের দায়িত্বপ্রাপ্তরা। কবে এ পরিস্থিতির উন্নতি হবে তা কেউ জানেন না।

তবে প্রাথমিক সংকট কাটিয়ে ওঠার জন্য ১৪টি সংগঠন নিজেদের মতো করে কিছু আর্থিক তহবিল সংগ্রহ করার কাজ শুরু করেছেন। এরইমধ্যে সংগঠনগুলোর সচ্ছল সদস্যরা সাধ্যানুযায়ী আর্থিক সহযোগিতাও করছেন।

যদি পরিস্থিতির আরও অবনতি হয় সেজন্য সরকারের কাছে আর্থিক প্রণোদনাও চাওয়া হবে বলে জানা গেছে। এ বিষয়ে টেলিভিশন ডিরেক্টরস গিল্ডের সভাপতি সালাউদ্দিন লাভলু বলেন, ‘বর্তমানে আমরা যে পরিস্থিতিতে আছি, এটা আগে থেকে কেউই অনুমান করতে পারিনি। সব কাজ বন্ধ। থমথমে ভীতিকর পরিবেশ। ঘর থেকেও বের হওয়া যাচ্ছে না। এ অবস্থা আর কিছুদিন চলতে থাকলে মানবিক বিপর্যয় ঘটবে।

তাই পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য আমরা আমাদের সংগঠনের সদস্যদের সহায়তায় এরইমধ্যে ফান্ড কালেক্ট করা শুরু করেছি। আশানুরূপ সাড়াও পাচ্ছি। তবে এখন যে ফান্ডটা পাচ্ছি তা দিয়ে হয়তো প্রাথমিক সংকট কাটানো যাবে। কিন্তু দীর্ঘমেয়াদি সংকটের জন্য এ ফান্ড যথেষ্ট নয়। তাই সরকারের কাছে আমরা আবেদন জানাব। এ মুহূর্তে এটা ছাড়া আমাদের অন্য কোনো কর্মসূচি নেই। তবে আমাদের সংগঠনের সবাইকে ঘরে থেকে পরিস্থিতি মোকাবেলার আহ্বান জানাচ্ছি।’

অন্যদিকে অভিনয়শিল্পী সংঘের সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব নাসিম বলেন, ‘সব নাটকের শুটিং যদি বন্ধ থাকে তাহলে একদিনেই প্রযোজকদের ক্ষতি হয় প্রায় দেড় কোটি টাকা। সেই হিসেবে এরইমধ্যে এক সপ্তাহ পার হয়েছে। কতদিন যে এ পরিস্থিতি থাকবে তা আমরা কেউই জানি না। তাই অভিনয়শিল্পী সংঘের সদস্যদের কাছ থেকে বিপদকালীন ফান্ড সংগ্রহ শুরু করেছি আমরা। সবার সঙ্গেই যোগাযোগ করছি। বেশ উৎসাহের সঙ্গেই অনেকে ফান্ডে অর্থ সহায়তা দিয়ে যাচ্ছেন। এই অর্থ সংগঠনের বিপদগ্রস্ত সদস্যদের জন্য ব্যয় করা হবে।’

অন্যদিকে টেলিভিশন নাটককেন্দ্রিক ১৪টি সংগঠনের পক্ষ থেকে যৌথভাবে একটি আর্থিক সাহায্যের আবেদন তৈরি করা হয়েছে। যা শিগগিরই প্রধানমন্ত্রীর কাছে পৌঁছানো হবে। এমনটাই জানিয়েছেন সংগঠনগুলোর নেতৃস্থানীয়রা।

আরও খবর
 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত