কাজের মানুষ কাজে ফেরাই হল বড় কথা

  হাসান সাইদুল ০৩ জুন ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

জনপ্রিয় অভিনেত্রী নাদিয়া আহমেদ

দেশে সব শ্রেণিপেশার মানুষ নিজের কর্ম নিয়ে ব্যস্ত হতে শুরু করেছেন। প্রস্তুত অভিনয়শিল্পীরাও। অভিনয়ে ফিরতে ছটফট করছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী নাদিয়া আহমেদও। শুটিংয়ে ফেরা, করোনাময় ঈদের স্মৃতি নিয়েই আজকের ‘হ্যালো...’ বিভাগে কথা বলেছেন তিনি

* যুগান্তর: ঈদ কেমন কাটল? শুটিংয়ে ফেরার প্রস্তুতি কেমন?

** নাদিয়া: কিসের আর ঈদ। ঘরবন্দি আছি। সুস্থ আছি এটাই তো বড় রকমের ঈদ। নিজেকে সুস্থ রাখার জন্য প্রতিদিন সচেতন থাকার চেষ্টা করছি। শুটিংয়ে ফেরার বিষয় নিশ্চিত বলতে পারছি না। কয়েকজন পরিচালকের সঙ্গে কথা হচ্ছে। কবে নাগাদ কাজে ফিরব এখনও বলতে পারছি না।

* যুগান্তর: ঘরবন্দি থেকে সত্যিকার অর্থে কি শিখলেন?

** নাদিয়া: অনেক কিছুই শেখা হয়েছে। তবে একটা বিষয় প্রমাণ হল- মানুষের ক্ষমতা বলে কিছু নেই। অদৃশ্য একটি ভাইরাসের কাছে সবাই কাবু। আরেকটা বিষয় হচ্ছে, যা আয় করলাম তা জেনে বুঝে খরচ করা উচিত। কিছু সঞ্চয় করা উচিত, এ বিষয়টিও খুব ভালো করে বুঝলাম।

* যুগান্তর: মানুষ মানুষের জন্য- এ কথার মর্মার্থও বোঝা গেল এ করোনায়...

** নাদিয়া: তা তো বটেই। আমরা ঘরে বসেও মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছি। অভিনয়শিল্পী সংঘের সঙ্গে প্রতিনিয়ত যোগাযোগ ছিল। ভিডিও কনভারসেশনের মাধ্যমে আমরা সব শিল্পীর মধ্যে যারা একটু বিত্তবান তারা অন্যের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছি। অন্য পেশার মানুষগুলোও অসহায় ও কর্মহীন মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে।

* যুগান্তর: সুদিন তো ফিরে আসবে। মানুষ কি সচেতন থাকবে বলে মনে করেন?

** নাদিয়া: আসলে সবশেষে আমরা আমাদের খুব ভালোবাসি, এ জন্যই ঘরবন্দি থেকেছি, এখনও আছি। যারা নিজেকে, নিজের পরিবারকে ভালোবাসেন তারা সবসময় সচেতন থাকার চেষ্টা করবেন বলে আমি মনে করি। শুধু করোনার কারণে সচেতন, আর অন্য সময় নয় এটা কোনো কথা হতে পারে না। জীবনকে ভালোবাসলে, এ পৃথিবীতে সুন্দর করে বাঁচতে চাইলে অবশ্যই নিজের প্রতি সচেতন ও যত্নবান হতে হবে।

* যুগান্তর: শুটিংয়ে কিভাবে ফিরতে চান? ধারাবাহিক, নাকি নতুন কোনো খণ্ড নাটকের মাধ্যমে?

** নাদিয়া: কাজের মানুষ কাজে ফেরাই হল বড় কথা। অনেক ধারাবাহিক নাটক প্রচারে আছে। ঈদের জন্য অনেকগুলো নাটকের কাজ হাতে ছিল যেগুলোর জন্য কথা চলছে। হুটহাট করেই কাজ শুরু করব না।

* যুগান্তর: ঘরবন্দি সময়গুলোতে এফএস নাঈমের সঙ্গে কোন বিষয় নিয়ে বেশি ঝগড়া হতো?

** নাদিয়া: ঝগড়া হতোই না। তবে সকালে সে একা নিজের মতো নাস্তা করত। এটা নিয়ে আমার কিছু বলার ছিল না। সবার সঙ্গে খেলে তো ভালো লাগতো। তবে অভিযোগ ছিল না। ও আমাকে ঘরের কাজে অনেক সহযোগিতা করেছে। এখনও করছে।

* যুগান্তর: সবশেষে কী বলবেন?

** নাদিয়া: সবার কাছে দোয়া চাই। সবার সুস্থতা কামনা করছি। আমাদের দেশ আবারও সার্বিকভাবে সচল হয়ে উঠুক। সবাই নিজ নিজ কর্ম নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়ুক, এটাই কামনা করি।

আরও খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত