ঈদের পর শুটিংয়ে ফিরছেন তারকারা

  এসএম শাফায়েত ০৮ আগস্ট ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ছবি সংগৃহীত

ঈদুল আজহার ছুটি আর ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান শেষে স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে নাগরিক জীবন। তবে ছোট পর্দায় এখনও কাটেনি ঈদের আমেজ। করোনাভাইরাসের কারণে পুরোপুরি নিরানন্দে কেটে গেল রোজার ঈদ। এ পরিস্থিতিতেই স্বাস্থ্যবিধিসহ নানা নিয়মকানুন মেনে ঈদুল আজহা সামনে রেখে কাজে ফেরেন ছোট পর্দার তারকারা। যে কারণে এবারের ঈদে কিছুটা আনন্দের জোগান পাওয়া গেছে টিভি চ্যানেলগুলো থেকে। তবে ঈদের পর শুটিং স্পটগুলোতে কাজ শুরু হলেও সেই চিরচেনা কর্মচাঞ্চল্য এখনও ফেরেনি।

কয়েকদিনের মধ্যেই তারকা শিল্পী ও নির্মাতাদের উপস্থিতিতে সরগরম হয়ে উঠবে এসব স্পট- এমনটাই জানিয়েছেন হাউস মালিকরা। এদিকে হাতেগোনা কয়েকজন তারকা শিল্পী ছাড়া প্রায় সবাই এখনও রয়েছেন কাজের বাইরে। তবে আগামী সপ্তাহ নাগাদ পুরোদমে কাজ শুরু করার পরিকল্পনা রয়েছে তাদের।

ঈদের পর কাজে ফেরা প্রসঙ্গে কথা হয় অভিনেতা ও নির্মাতা জাহিদ হাসানের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘শারীরিক অসুস্থতার কারণে ঈদুল আজহার বেশ আগে থেকেই কাজ বন্ধ করে বিরতি নিয়েছিলাম। এ অবস্থার মধ্য দিয়েই ঈদ উদযাপন হয়ে গেল। আরও কিছু দিন পর কাজে ফিরব।’

এদিকে ৫ আগস্ট থেকে কাজ শুরু করেছেন অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘ধারাবাহিক নাটক ‘ভদ্রপাড়া’ দিয়ে কাজ শুরু করেছি। এটি পরিচালনা করেছেন সকাল আহমেদ। করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে বাংলাভিশনে প্রচারচলতি এ নাটকের শুটিং বন্ধ হয়ে যায়। যে কারণে কিছু সময় নাটকের প্রচার ব্যাহত হয়েছিল। আবারও নাটকের শুটিং শুরু হয়েছে।’

এবার ঈদে প্রায় দুই ডজন নাটক নিয়ে পর্দায় হাজির ছিলেন অভিনেতা মীর সাব্বির। ঈদের ছুটি কাটিয়ে ১২ আগস্ট থেকে কাজে ফেরার কথা জানিয়েছেন তিনি। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘কাজে ফিরে শুরুতেই মেজবাহ উদ্দীন সুমনের রচনা ও নজরুল ইসলাম রাজুর পরিচালনায় মাছরাঙা টিভিতে প্রচারচলতি ধারাবাহিক ‘বাকের খনি’ নাটকের শুটিং করব। এরপর অন্যান্য কাজে মনোনিবেশ করব।’

সময়ের ব্যস্ত অভিনেত্রী সাবিলা নূরের পরিকল্পনা রয়েছে আগামী সপ্তাহ থেকে কাজে ফেরার। তিনি বলেন, ‘ঈদের আগে বেশকিছু কাজ করা হয়েছে। সেগুলো প্রচার হচ্ছে। ঈদের পর আবারও কাজে ফেরার পরিকল্পনা রয়েছে সামনে সপ্তাহ থেকে। ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ নাটকের একটি শুটিং হতে পারে সামনে। সেটি নিয়েই আমার ফেরা হবে। এছাড়া কিছু স্ক্রিপ্ট আছে হাতে। সেগুলো পড়ব। তারপর ভালো লাগলে কাজের সিদ্ধান্ত নেব।’

অভিনেতা ও নির্মাতা শামীম জামান জানিয়েছেন এবারের ঈদ আয়োজনের বহরে তার বেশকিছু ধারাবাহিক ও একক নাটক ছিল। এবারের মতো ঈদের আমেজ কাটিয়ে কাজে ফেরার পরিকল্পনা করছেন তিনিও। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘গত রোজার ঈদে কোনো কাজ করতে পারিনি। এবারের ঈদে বেশকিছু কাজ করা হয়েছে। আগামী সপ্তাহ থেকে মোশাররফ করিম, আ খ ম হাসানসহ বেশ কয়েকজন তারকা অভিনেতা-অভিনেত্রীদের নিয়ে আবারও পুরোদমে কাজে ফেরার পরিকল্পনা করছি।’

জনপ্রিয় অভিনয়শিল্পী জিয়াউল ফারুক অপূর্ব, সজল, মেহজাবিনসহ আরও অনেকে দু-একদিনের মধ্যেই এবং জাকিয়া বারি মম ১৫ আগস্ট থেকে কাজে যোগ দেবেন বলে জানিয়েছেন।

এদিকে তারকাশিল্পীদের অনেকে না ফিরলেও ঈদের বিরতির পর ৪ আগস্ট থেকেই শুটিং স্পটগুলোতে নির্মাতারা শুটিং ইউনিট নিয়ে কাজ শুরু করে দিয়েছেন। রাজধানীর উত্তরাকেন্দ্রিক শুটিং স্পটগুলোতে ধীরে ধীরে কর্মব্যস্ত হয়ে উঠেছে। তবে এখন যে নাটকগুলোর শুটিং হচ্ছে এগুলোর বেশিরভাগই প্রচার চলতি ধারাবাহিক নাটক। যেমন উত্তরার আপনঘর শুটিং হাউসে হাবিব শাকিলের পরিচালনায় এনটিভিতে প্রচারচলতি ‘পরের মেয়ে’ নাটকের শুটিং হয়েছে ৫ আগস্ট থেকে। পর্যায়ক্রমে এ হাউসে এজাজ মুন্নার পরিচালনায় ‘শহরালী’ এবং মোহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজের ‘ফ্যামিলি ক্রাইসিস’ নামের নাটক দুটির শুটিং হবে শিগগিরই। স্ব

প্নীল শুটিং হাউসে কাজ শুরু হয়েছে ৪ আগস্ট থেকে আবু হায়াত মাহমুদের নাটকের মাধ্যমে। ১০ আগস্ট থেকে কায়সার আহমেদ, আকাশ রঞ্জন ও রাফাত মজুমদার রিঙ্কু নাটক নির্মাণ করবেন এ হাউসে। মন্দিরা শুটিং হাউসে ১০ আগস্ট থেকে নাটকের শুটিং শুরু হবে। এদিকে লাবণী হাউসটিতেও এরই মধ্যে শুটিং শুরু হয়েছে। রাশেদা আক্তার লাজুকের পরিচালনায় একটি ধারাবাহিক নাটক দিয়ে আনন্দবাড়ি শুটিং হাউসে কাজ শুরু হবে আজ থেকে। অন্যদিকে গাজীপুরের পূবাইলের ভাদুন গ্রামের শুটিং স্পটগুলোতেও কাজ শুরু হচ্ছে চলতি সপ্তাহ থেকেই।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত