দুশ্চিন্তা কোনোভাবেই কাটছে না
jugantor
হ্যালো...
দুশ্চিন্তা কোনোভাবেই কাটছে না
অভিনেতা ও নির্মাতা- এ দুই মাধ্যমেই সমান জনপ্রিয়তা নিয়ে কাজ করছেন সালাউদ্দিন লাভলু। বর্তমানে পরিচালনার ব্যস্ততা কম। তবে অভিনয়ে নিয়মিত। বর্তমান ব্যস্ততা, নাট্যাঙ্গনের পরিস্থিতি ও সমসাময়িক কিছু বিষয় নিয়ে আজকের ‘হ্যালো...’ বিভাগে কথা বলেছেন তিনি

  সোহেল আহসান  

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ছবি সংগৃহীত

* কেমন কাটছে এখনকার সময়?

** এখন পর্যন্ত সুস্থ আছি, এটাই সবচেয়ে বড় পাওয়া। কারণ আশপাশে যেভাবে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর পাচ্ছি, তাতে করে এটি নিয়ে দুশ্চিন্তা কোনোভাবেই কাটছে না। যতটুকু সাবধানে থাকা যায় সেটাই অনুসরণ করার চেষ্টা করে যাচ্ছি।

* আপনি তো এখন নিয়মিতই কাজ করছেন। শুটিংয়ে স্বাস্থ্যবিধি কতটুকু মানা হচ্ছে?

** মুখে মাস্ক পরে তো আর শুটিং করা যাচ্ছে না। তাই সবচেয়ে বেশি ঝুঁকির মধ্যে থেকে শুটিং করছেন অভিনয়শিল্পীরা। তবে একটি শুটিং সেটে অনেক মানুষের উপস্থিতি থাকে, এখানে যদি একজন মানুষও করোনা আক্রান্ত থাকেন, তাহলে সেটাই সবার বিপদ ডেকে আনতে পারে। শুটিংয়ে যাওয়ার আগে তাই পরিবেশ সম্পর্কে অবগত হয়ে কাজ করছি।

* এখন কোন ধরনের কাজ নিয়ে বেশি ব্যস্ত?

** নাটকে অভিনয় করেই সময় পার করছি এখন। একখণ্ড এবং ধারাবাহিক- দু’ধরনের নাটকেই অভিনয় করছি। শিগগিরই একাধিক ধারাবাহিক নাটকের শুটিং শুরু করব। অভিনয় মনের টানেই করি। এছাড়া দর্শকও আমার অভিনয় দেখেন, উৎসাহিত করেন।

* নাটক পরিচালনায় কি তাহলে বিরতি দিচ্ছেন?

** দিচ্ছি না। লকডাউনের আগে ‘দ্য ডিরেক্টর’ নামের একটি ধারাবাহিক নাটক নির্মাণ শুরু করেছিলাম, সেটির শুটিং কিছুদিন আগে শেষ করেছি। ২৬ পর্বের এ নাটকটি চ্যানেল আইতে প্রচার হবে। এ ছাড়া ‘কেন সে বোঝে না’ নামের নতুন আরেকটি ধারাবাহিক নাটক নির্মাণের পরিকল্পনা করছি। এখন এটির অভিনয়শিল্পী নির্বাচনের কাজ করছি। নভেম্বরের দিকে শুটিং শুরুর সম্ভাবনা আছে।

* অনেকদিন ধরেই সিনেমা নির্মাণের পরিকল্পনা করছেন। সেটির অগ্রগতি কী?

** নাটক যত দ্রুত তৈরি করা যায়, সিনেমা তত কম সময়ে তৈরি করা যায় না। মূলত গল্প নিয়ে এখনও কাজ শেষ করতে পারিনি। গল্প চূড়ান্ত হলেই অন্যান্য বিষয় নিয়ে কাজ শুরু করব। করোনাভাইরাস না এলে এতদিনে হয়তো ছবির কাজ শেষই হয়ে যেত।

* ডিরেক্টরস গিল্ডের সভাপতি হিসেবে কী করছেন এখন?

** করোনার কারণে লকডাউন শুরুর প্রথম কয়েক মাস আমরা আমাদের সদস্যদের জন্য অনেক ধরনের কার্যক্রম চালিয়েছি। এখন যেহেতু কাজে ফিরেছেন অনেকেই, তাই আমরা সেভাবে বড় কোনো কর্মসূচি পালন করছি না। তবে টিভি মিডিয়ায় ১৪টি সংগঠন মিলে যে প্লাটফর্ম আছে সেখানে আমরা নিয়মিত আমাদের সংগঠনের প্রতিনিধিত্ব করছি।

হ্যালো...

দুশ্চিন্তা কোনোভাবেই কাটছে না

অভিনেতা ও নির্মাতা- এ দুই মাধ্যমেই সমান জনপ্রিয়তা নিয়ে কাজ করছেন সালাউদ্দিন লাভলু। বর্তমানে পরিচালনার ব্যস্ততা কম। তবে অভিনয়ে নিয়মিত। বর্তমান ব্যস্ততা, নাট্যাঙ্গনের পরিস্থিতি ও সমসাময়িক কিছু বিষয় নিয়ে আজকের ‘হ্যালো...’ বিভাগে কথা বলেছেন তিনি
 সোহেল আহসান 
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
ছবি সংগৃহীত
ছবি সংগৃহীত

* কেমন কাটছে এখনকার সময়?

** এখন পর্যন্ত সুস্থ আছি, এটাই সবচেয়ে বড় পাওয়া। কারণ আশপাশে যেভাবে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর পাচ্ছি, তাতে করে এটি নিয়ে দুশ্চিন্তা কোনোভাবেই কাটছে না। যতটুকু সাবধানে থাকা যায় সেটাই অনুসরণ করার চেষ্টা করে যাচ্ছি।

* আপনি তো এখন নিয়মিতই কাজ করছেন। শুটিংয়ে স্বাস্থ্যবিধি কতটুকু মানা হচ্ছে?

** মুখে মাস্ক পরে তো আর শুটিং করা যাচ্ছে না। তাই সবচেয়ে বেশি ঝুঁকির মধ্যে থেকে শুটিং করছেন অভিনয়শিল্পীরা। তবে একটি শুটিং সেটে অনেক মানুষের উপস্থিতি থাকে, এখানে যদি একজন মানুষও করোনা আক্রান্ত থাকেন, তাহলে সেটাই সবার বিপদ ডেকে আনতে পারে। শুটিংয়ে যাওয়ার আগে তাই পরিবেশ সম্পর্কে অবগত হয়ে কাজ করছি।

* এখন কোন ধরনের কাজ নিয়ে বেশি ব্যস্ত?

** নাটকে অভিনয় করেই সময় পার করছি এখন। একখণ্ড এবং ধারাবাহিক- দু’ধরনের নাটকেই অভিনয় করছি। শিগগিরই একাধিক ধারাবাহিক নাটকের শুটিং শুরু করব। অভিনয় মনের টানেই করি। এছাড়া দর্শকও আমার অভিনয় দেখেন, উৎসাহিত করেন।

* নাটক পরিচালনায় কি তাহলে বিরতি দিচ্ছেন?

** দিচ্ছি না। লকডাউনের আগে ‘দ্য ডিরেক্টর’ নামের একটি ধারাবাহিক নাটক নির্মাণ শুরু করেছিলাম, সেটির শুটিং কিছুদিন আগে শেষ করেছি। ২৬ পর্বের এ নাটকটি চ্যানেল আইতে প্রচার হবে। এ ছাড়া ‘কেন সে বোঝে না’ নামের নতুন আরেকটি ধারাবাহিক নাটক নির্মাণের পরিকল্পনা করছি। এখন এটির অভিনয়শিল্পী নির্বাচনের কাজ করছি। নভেম্বরের দিকে শুটিং শুরুর সম্ভাবনা আছে।

* অনেকদিন ধরেই সিনেমা নির্মাণের পরিকল্পনা করছেন। সেটির অগ্রগতি কী?

** নাটক যত দ্রুত তৈরি করা যায়, সিনেমা তত কম সময়ে তৈরি করা যায় না। মূলত গল্প নিয়ে এখনও কাজ শেষ করতে পারিনি। গল্প চূড়ান্ত হলেই অন্যান্য বিষয় নিয়ে কাজ শুরু করব। করোনাভাইরাস না এলে এতদিনে হয়তো ছবির কাজ শেষই হয়ে যেত।

* ডিরেক্টরস গিল্ডের সভাপতি হিসেবে কী করছেন এখন?

** করোনার কারণে লকডাউন শুরুর প্রথম কয়েক মাস আমরা আমাদের সদস্যদের জন্য অনেক ধরনের কার্যক্রম চালিয়েছি। এখন যেহেতু কাজে ফিরেছেন অনেকেই, তাই আমরা সেভাবে বড় কোনো কর্মসূচি পালন করছি না। তবে টিভি মিডিয়ায় ১৪টি সংগঠন মিলে যে প্লাটফর্ম আছে সেখানে আমরা নিয়মিত আমাদের সংগঠনের প্রতিনিধিত্ব করছি।