আলো আঁধারে মিলন-চৈতী
jugantor
আলো আঁধারে মিলন-চৈতী

  আনন্দনগর প্রতিবেদক  

২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

টিভি নাটকের জনপ্রিয় অভিনেতা আনিসুর রহমান মিলন ও ইসরাত জাহান চৈতী সম্প্রতি জুটি বেঁধে একটি ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় শুরু করেছেন। ‘আলো আঁধার’ নামের এ নাটকটি রচনা করেছেন মহিউদ্দীন আহমেদ এবং পরিচালনা করছেন সঞ্জীব দাস। ২২ ফেব্র“য়ারি থেকে নাটকটির শুটিং শুরু হয়েছে রাজধানীর উত্তরার একটি শুটিং হাউজে। এতে মিলন ও চৈতী ভাইবোনের চরিত্রে অভিনয় করছেন। এক ধনাঢ্য পরিবারের সন্তান তারা দুজন। মিলনের চরিত্রের নাম কবির, চৈতীর চরিত্রের নাম ফারহানা। কবির পরিবারের আদরের ছেলে। মা তাকে খুব ভালোবাসেন। সস্ত্রীক দিনকাল ভালো যাচ্ছিল। কিন্তু প্রেমবিষয়ক জটিলতার কারণে স্ত্রীর সঙ্গে ডিভোর্স হয়ে যায় তার। নেপথ্যে ছিল স্ত্রীর বান্ধবীর সঙ্গে গোপন সম্পর্ক। কিছুদিন পর পারিবারিকভাবে গ্রামের একটি মেয়েকে বিয়ে করে ঢাকায় নিয়ে আসেন কবির। চলতে থাকে আরও কিছু জটিলতা। এদিকে ফারহানা একজন গৃহবধূ। ধনাঢ্য পরিবারের মেয়ে হওয়ার কারণে তার স্বামী শ্বশুরবাড়ি থেকে মাঝে মধ্যেই টাকা আনতে চাপ দেয়। পরে এ নিয়েও এক বিড়ম্বনায় পড়েন ফারহানা। পারিবারিক জটিলতা, শ্রেণি বিভেদ, মানবিকতা ও আধুনিক ঢাকার কিছু সমস্যা নিয়েই এ নাটকটির গল্প তৈরি করা হয়েছে। এতে অভিনয় প্রসঙ্গে মিলন বলেন, ‘এ ধরনের গল্প ও চরিত্রের নাটকে প্রথম অভিনয় করছি। আমার চরিত্রটি বেশ গুরুত্বপূর্ণ। আশা করছি দর্শক এটি আগ্রহ নিয়েই দেখবেন।’ চৈতী বলেন, ‘অনেকদিন পর ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করছি। আমার চরিত্রটিও আকর্ষণীয়। এতে অভিনয়ের অনেক জায়গা রয়েছে। নাটকটিতে আমাকে সুযোগ দেওয়ার জন্য পরিচালকের প্রতি কৃতজ্ঞ।’ নাটকটি শিগগির এটিএন বাংলায় প্রচার হবে বলে নির্মাতা জানিয়েছেন। এদিকে মিলন ও চৈতী অন্যান্য নাটকেও নিয়মিত অভিনয় করছেন।

আলো আঁধারে মিলন-চৈতী

 আনন্দনগর প্রতিবেদক 
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

টিভি নাটকের জনপ্রিয় অভিনেতা আনিসুর রহমান মিলন ও ইসরাত জাহান চৈতী সম্প্রতি জুটি বেঁধে একটি ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় শুরু করেছেন। ‘আলো আঁধার’ নামের এ নাটকটি রচনা করেছেন মহিউদ্দীন আহমেদ এবং পরিচালনা করছেন সঞ্জীব দাস। ২২ ফেব্র“য়ারি থেকে নাটকটির শুটিং শুরু হয়েছে রাজধানীর উত্তরার একটি শুটিং হাউজে। এতে মিলন ও চৈতী ভাইবোনের চরিত্রে অভিনয় করছেন। এক ধনাঢ্য পরিবারের সন্তান তারা দুজন। মিলনের চরিত্রের নাম কবির, চৈতীর চরিত্রের নাম ফারহানা। কবির পরিবারের আদরের ছেলে। মা তাকে খুব ভালোবাসেন। সস্ত্রীক দিনকাল ভালো যাচ্ছিল। কিন্তু প্রেমবিষয়ক জটিলতার কারণে স্ত্রীর সঙ্গে ডিভোর্স হয়ে যায় তার। নেপথ্যে ছিল স্ত্রীর বান্ধবীর সঙ্গে গোপন সম্পর্ক। কিছুদিন পর পারিবারিকভাবে গ্রামের একটি মেয়েকে বিয়ে করে ঢাকায় নিয়ে আসেন কবির। চলতে থাকে আরও কিছু জটিলতা। এদিকে ফারহানা একজন গৃহবধূ। ধনাঢ্য পরিবারের মেয়ে হওয়ার কারণে তার স্বামী শ্বশুরবাড়ি থেকে মাঝে মধ্যেই টাকা আনতে চাপ দেয়। পরে এ নিয়েও এক বিড়ম্বনায় পড়েন ফারহানা। পারিবারিক জটিলতা, শ্রেণি বিভেদ, মানবিকতা ও আধুনিক ঢাকার কিছু সমস্যা নিয়েই এ নাটকটির গল্প তৈরি করা হয়েছে। এতে অভিনয় প্রসঙ্গে মিলন বলেন, ‘এ ধরনের গল্প ও চরিত্রের নাটকে প্রথম অভিনয় করছি। আমার চরিত্রটি বেশ গুরুত্বপূর্ণ। আশা করছি দর্শক এটি আগ্রহ নিয়েই দেখবেন।’ চৈতী বলেন, ‘অনেকদিন পর ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করছি। আমার চরিত্রটিও আকর্ষণীয়। এতে অভিনয়ের অনেক জায়গা রয়েছে। নাটকটিতে আমাকে সুযোগ দেওয়ার জন্য পরিচালকের প্রতি কৃতজ্ঞ।’ নাটকটি শিগগির এটিএন বাংলায় প্রচার হবে বলে নির্মাতা জানিয়েছেন। এদিকে মিলন ও চৈতী অন্যান্য নাটকেও নিয়মিত অভিনয় করছেন।