ঈদে মুক্তি পাচ্ছে না কোনো নতুন ছবি
jugantor
ঈদে মুক্তি পাচ্ছে না কোনো নতুন ছবি

  এফ আই দীপু  

০৭ মে ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ছবি মুক্তি দিয়ে ব্যবসায়িক সফলতার জন্য বরাবরই দেশীয় উৎসবগুলোর দিকে তাকিয়ে থাকে ঢাকাই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি। বিশেষ করে ঈদের মতো বড় আয়োজনে বিগ বাজেটের ছবি নির্মাণে আগ্রহী হন প্রযোজকরা। কিন্তু গত বছর করোনা সেই আশায় জল ঢেলে দিয়েছে। রোজা কিংবা কোরবানি- কোনো ঈদেই সেই অর্থে কোনো ধরনের ছবি মুক্তি পায়নি। সব ক্ষতি মেনে নিয়ে যখন এ বছর রোজার ঈদের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন সবাই, তখন আবারও মাথাচাড়া দিয়ে উঠল করোনা। দেশজুড়ে ফের করোনার আক্রমণ জোরালোভাবে শুরু হয়েছে। সেই সঙ্গে শুরু হয়েছে লকডাউন। তবে ঈদের আগে লকডাউন খোলার একটা সম্ভাবনার কথা শোনা গিয়েছিল। কিন্তু করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়ায় লকডাউন আর খোলেনি। সেটা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৬ মে অর্থাৎ ঈদের পর পর্যন্ত। স্বাভাবিকভাবেই ঈদের আগে আর প্রেক্ষাগৃহ খুলছে না। ফলে এবারের ঈদেও যে কোনো নতুন ছবি মুক্তি পাচ্ছে না এটা নিশ্চিত।

এমনিতেই যদি করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যেত, এর ফলে প্রেক্ষাগৃহ খুুললেও সেখানে দর্শক যেতেন কিনা সেটাও প্রশ্নসাপেক্ষ। চলমান লকডাউন শেষ হলে কতগুলো প্রেক্ষাগৃহ খুলবে আর কতগুলো বন্ধ হয়ে যাবে সেটাও বিবেচনার বিষয়। এ পরিস্থিতিতে চালু থাকা প্রেক্ষাগৃহেও বিগ বাজেটের ভালো ছবি মুক্তি দিতে সাহস করতে পারবেন না প্রযোজকরা। অতীত অভিজ্ঞতা অন্তত সে কথাই বলে।

এবারের রোজার ঈদে মুক্তির জোর ঘোষণা এসেছিল পাঁচটি ছবির। এগুলো হলো- ‘অন্তরাত্মা’, ‘মিশন এক্সট্রিম’, ‘বিদ্রোহী’, ‘শান’ ও ‘ক্যাসিনো’। এর মধ্যে ২০২০ সালের রোজার ঈদ থেকে আসি আসি বলেও করোনার কারণে ২০২০-এ আলোর মুখ দেখেনি ‘বিদ্রোহী’। আসছে ঈদে নতুন করে মুক্তির ঘোষণা দিয়েছে শাকিব-বুবলী অভিনীত এ ছবিটি। এটি নির্মাণ করেছেন শাহীন সুমন। ছবিটির প্রথমে নাম ছিল ‘একটা প্রেম দরকার মাননীয় সরকার’। পরে হয় ‘একটা প্রেম দরকার’। এটাও পরিবর্তন করে রাখা হয় ‘বিদ্রোহী’।

‘মিশন এক্সট্রিম’ ছবির গল্পটিও একই। এক বছর ধরে বাক্সবন্দি থাকা আরেফিন শুভ-ঐশী অভিনীত এ ছবিটিও গুনছিল ঈদের প্রহর। অন্যদিকে রোজার ঈদকে উপলক্ষ্য করে প্রচারণায় নেমেছিল ‘শান’। কিছুদিন আগে প্রকাশ করা হয়েছে সিয়াম-পূজা অভিনীত এ ছবির টিজার।

আসন্ন ঈদে অন্যতম আলোচিত ছবি হওয়ার কথা ছিল ‘অন্তরাত্মা’। ঈদে মুক্তির লক্ষ্যে টানা শুটিং করা হয়েছে এ ছবির। করোনার মধ্যে নায়ক শাকিব খানও কলকাতার নায়িকা দর্শনাকে নিয়ে খেটেছেন বেশ। কিন্তু শুটিং শেষ করার পরই শুরু হয় করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ। তাই কপালে হাত প্রযোজক সোহানী হোসেনের। মন খারাপ হয় ছবির পরিচালক ওয়াজেদ আলী সুমনেরও। এরই মধ্যে ঘোষণাও দিয়েছেন ঈদে আসছেন না তারা। সৈকত নাসির পরিচালিত নিরব-বুবলী অভিনীত ‘ক্যাসিনো’ ঈদে মুক্তি পাবে বলে জানানো হয়েছিল।

ওপরে উল্লিখিত ছবি ছাড়াও ‘ওস্তাদ’, ‘অপারেশন সুন্দরবন’, ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’, ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ-২’, ‘জিন’, ‘আনন্দ অশ্রু’, ‘ডেঞ্জার জোন’, ‘পরান’ নামের ছবিগুলোও ঈদে মুক্তির আভাস দিয়েছিল।

প্রযোজকদের এত সব আয়োজনের মাঝে গেল বছরের মতো বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে করোনাভাইরাস। নতুন করে লকডাউনের ঘোষণায় নির্মাতাদের রঙিন স্বপ্নগুলো যেন ধূসর হতে চলেছে। এদিকে করোনার আগে দেশে আশিটিরও বেশি প্রেক্ষাগৃহ চালু থাকলেও অদৃশ্য ভাইরাসে স্থায়ীভাবে বন্ধ হয়ে গেছে প্রায় ত্রিশটি। সিনেমা হল সংশ্লিষ্টদের মতে, গত বছরের ঈদের মতো এবারের ঈদেও বন্ধ থাকার কারণে অস্তিত্ব সংকটে পড়ছে দেশের প্রেক্ষাগৃহ। তবে পরিবর্তিত পরিস্থিতির কারণে অনেকে বিকল্প মাধ্যম হিসাবে অনলাইন প্ল্যাটফরমে ছবি মুক্তি দেওয়া যায় কী সেটাও ভাবছেন বলে জানা গেছে।

ঈদে মুক্তি পাচ্ছে না কোনো নতুন ছবি

 এফ আই দীপু 
০৭ মে ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ছবি মুক্তি দিয়ে ব্যবসায়িক সফলতার জন্য বরাবরই দেশীয় উৎসবগুলোর দিকে তাকিয়ে থাকে ঢাকাই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি। বিশেষ করে ঈদের মতো বড় আয়োজনে বিগ বাজেটের ছবি নির্মাণে আগ্রহী হন প্রযোজকরা। কিন্তু গত বছর করোনা সেই আশায় জল ঢেলে দিয়েছে। রোজা কিংবা কোরবানি- কোনো ঈদেই সেই অর্থে কোনো ধরনের ছবি মুক্তি পায়নি। সব ক্ষতি মেনে নিয়ে যখন এ বছর রোজার ঈদের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন সবাই, তখন আবারও মাথাচাড়া দিয়ে উঠল করোনা। দেশজুড়ে ফের করোনার আক্রমণ জোরালোভাবে শুরু হয়েছে। সেই সঙ্গে শুরু হয়েছে লকডাউন। তবে ঈদের আগে লকডাউন খোলার একটা সম্ভাবনার কথা শোনা গিয়েছিল। কিন্তু করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়ায় লকডাউন আর খোলেনি। সেটা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৬ মে অর্থাৎ ঈদের পর পর্যন্ত। স্বাভাবিকভাবেই ঈদের আগে আর প্রেক্ষাগৃহ খুলছে না। ফলে এবারের ঈদেও যে কোনো নতুন ছবি মুক্তি পাচ্ছে না এটা নিশ্চিত।

এমনিতেই যদি করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যেত, এর ফলে প্রেক্ষাগৃহ খুুললেও সেখানে দর্শক যেতেন কিনা সেটাও প্রশ্নসাপেক্ষ। চলমান লকডাউন শেষ হলে কতগুলো প্রেক্ষাগৃহ খুলবে আর কতগুলো বন্ধ হয়ে যাবে সেটাও বিবেচনার বিষয়। এ পরিস্থিতিতে চালু থাকা প্রেক্ষাগৃহেও বিগ বাজেটের ভালো ছবি মুক্তি দিতে সাহস করতে পারবেন না প্রযোজকরা। অতীত অভিজ্ঞতা অন্তত সে কথাই বলে।

এবারের রোজার ঈদে মুক্তির জোর ঘোষণা এসেছিল পাঁচটি ছবির। এগুলো হলো- ‘অন্তরাত্মা’, ‘মিশন এক্সট্রিম’, ‘বিদ্রোহী’, ‘শান’ ও ‘ক্যাসিনো’। এর মধ্যে ২০২০ সালের রোজার ঈদ থেকে আসি আসি বলেও করোনার কারণে ২০২০-এ আলোর মুখ দেখেনি ‘বিদ্রোহী’। আসছে ঈদে নতুন করে মুক্তির ঘোষণা দিয়েছে শাকিব-বুবলী অভিনীত এ ছবিটি। এটি নির্মাণ করেছেন শাহীন সুমন। ছবিটির প্রথমে নাম ছিল ‘একটা প্রেম দরকার মাননীয় সরকার’। পরে হয় ‘একটা প্রেম দরকার’। এটাও পরিবর্তন করে রাখা হয় ‘বিদ্রোহী’।

‘মিশন এক্সট্রিম’ ছবির গল্পটিও একই। এক বছর ধরে বাক্সবন্দি থাকা আরেফিন শুভ-ঐশী অভিনীত এ ছবিটিও গুনছিল ঈদের প্রহর। অন্যদিকে রোজার ঈদকে উপলক্ষ্য করে প্রচারণায় নেমেছিল ‘শান’। কিছুদিন আগে প্রকাশ করা হয়েছে সিয়াম-পূজা অভিনীত এ ছবির টিজার।

আসন্ন ঈদে অন্যতম আলোচিত ছবি হওয়ার কথা ছিল ‘অন্তরাত্মা’। ঈদে মুক্তির লক্ষ্যে টানা শুটিং করা হয়েছে এ ছবির। করোনার মধ্যে নায়ক শাকিব খানও কলকাতার নায়িকা দর্শনাকে নিয়ে খেটেছেন বেশ। কিন্তু শুটিং শেষ করার পরই শুরু হয় করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ। তাই কপালে হাত প্রযোজক সোহানী হোসেনের। মন খারাপ হয় ছবির পরিচালক ওয়াজেদ আলী সুমনেরও। এরই মধ্যে ঘোষণাও দিয়েছেন ঈদে আসছেন না তারা। সৈকত নাসির পরিচালিত নিরব-বুবলী অভিনীত ‘ক্যাসিনো’ ঈদে মুক্তি পাবে বলে জানানো হয়েছিল।

ওপরে উল্লিখিত ছবি ছাড়াও ‘ওস্তাদ’, ‘অপারেশন সুন্দরবন’, ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’, ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ-২’, ‘জিন’, ‘আনন্দ অশ্রু’, ‘ডেঞ্জার জোন’, ‘পরান’ নামের ছবিগুলোও ঈদে মুক্তির আভাস দিয়েছিল।

প্রযোজকদের এত সব আয়োজনের মাঝে গেল বছরের মতো বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে করোনাভাইরাস। নতুন করে লকডাউনের ঘোষণায় নির্মাতাদের রঙিন স্বপ্নগুলো যেন ধূসর হতে চলেছে। এদিকে করোনার আগে দেশে আশিটিরও বেশি প্রেক্ষাগৃহ চালু থাকলেও অদৃশ্য ভাইরাসে স্থায়ীভাবে বন্ধ হয়ে গেছে প্রায় ত্রিশটি। সিনেমা হল সংশ্লিষ্টদের মতে, গত বছরের ঈদের মতো এবারের ঈদেও বন্ধ থাকার কারণে অস্তিত্ব সংকটে পড়ছে দেশের প্রেক্ষাগৃহ। তবে পরিবর্তিত পরিস্থিতির কারণে অনেকে বিকল্প মাধ্যম হিসাবে অনলাইন প্ল্যাটফরমে ছবি মুক্তি দেওয়া যায় কী সেটাও ভাবছেন বলে জানা গেছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন