আত্মশুদ্ধির মাধ্যমেই কেবল নির্বাণ লাভ সম্ভব
jugantor
হ্যালো...
আত্মশুদ্ধির মাধ্যমেই কেবল নির্বাণ লাভ সম্ভব

  সোহেল আহসান  

১৯ জুন ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

করোনা থেকে সুস্থ হয়ে লালন সংগীতের জীবন্ত কিংবদন্তি শিল্পী ফরিদা পারভীন গানে ফিরলেন সম্প্রতি। পাশাপাশি বিভিন্ন টিভি চ্যানেলের গানের অনুষ্ঠানগুলোয়ও অংশগ্রহণ শুরু করেছেন। গান এবং অন্য বিষয় নিয়ে আজকের ‘হ্যালো...’ বিভাগে কথা বলেছেন তিনি।

* এখনকার সময় কেমন কাটছে?

** খুব ভালো নয়। বাসাতেই বেশিরভাগ সময় থাকছি। জরুরি প্রয়োজন না হলে বাইরে যাই না। ঘরেই প্রতিদিন গায়কী ঠিক রাখার জন্য চর্চা করছি। স্টেজ অনুষ্ঠানে গান গাই না অনেকদিন। তবে সুসময় আসবেই। সেই অপেক্ষাতেই সময় কাটছে।

* গানে ফিরবেন কবে?

** এরই মধ্যে গানে ফিরেছি। কয়েকদিন আগে চ্যানেল আইতে সকালের লাইভ অনুষ্ঠানে গান গেয়েছি। এ ছাড়া বিটিভির লালন সাইকে নিয়ে একটি অনুষ্ঠানে গান গেয়েছি। যেটির মিউজিক ভিডিওতেও আমাকে দেখা যাবে। শুনেছি শিগ্গির এটি প্রচার হবে চ্যানেলটিতে। পর্যায়ক্রমে অন্য টিভি চ্যানেলের অনুষ্ঠানেও গান গাইতে দেখা যাবে।

* বিটিভিতে সংগীত পরিচালকের দায়িত্বেও আছেন। কাজটি কেমন উপভোগ করছেন?

** করোনাকাল শুরু হওয়ায় আগেই আমি এ দায়িত্ব পেয়েছি। শুরুর দিকে নিয়মিতই ‘বারামখানা’ নামের সেই অনুষ্ঠানটির সংগীত পরিচালনা করেছি। করোনাভাইরাস আসার পর অনুষ্ঠানটি নতুন পর্ব আর তৈরি হয়নি। সম্প্রতি এটির প্রচার শুরু হচ্ছে। যদিও আমি দায়িত্ব পালন শুরু করিনি। শিগ্গির এ কাজটিও শুরু করতে হবে।

* ইদানীংকালের লালন সাইয়ের গানের চর্চা কেমন হচ্ছে বলে মনে করেন?

** যেভাবে অন্য গানগুলো নিয়ে মানুষ মেতে থাকেন, সেই জায়গায় লালনের গান পর্যাপ্ত পরিমাণে হচ্ছে না। এর পেছনে এক ধরনের দৈন্যদশাও রয়েছে। তবে নতুন প্রজন্মের কাছে লালনের গান সঠিকভাবে পৌঁছে দিতে হলে লালনের গানের পৃষ্ঠপোষকতা আরও বৃদ্ধি করতে হবে। সেটা সরাকারি কিংবা বেসরকারি-যেভাবেই হোক না কেন।

* সংগীতাঙ্গন নিয়ে আপনার পর্যবেক্ষণ কী?

** করোনার কারণে ধ্বংস হয়ে গেছে দেশের সংগীতাঙ্গন। যদিও সারা পৃথিবীই স্তব্ধ। করোনায় কর্মহীন হয়ে অনেক সংগীতকর্র্মী ঢাকা থেকে গ্রামে চলে গেছেন। কবে নাগাদ স্বাভাবিক কার্যক্রম শুরু হবে, তা কেউ জানেন না। আমি মনে করি করোনা আল্লাহর গজব। আত্মশুদ্ধির মাধ্যমেই নির্বাণ লাভ সম্ভব।

হ্যালো...

আত্মশুদ্ধির মাধ্যমেই কেবল নির্বাণ লাভ সম্ভব

 সোহেল আহসান 
১৯ জুন ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

করোনা থেকে সুস্থ হয়ে লালন সংগীতের জীবন্ত কিংবদন্তি শিল্পী ফরিদা পারভীন গানে ফিরলেন সম্প্রতি। পাশাপাশি বিভিন্ন টিভি চ্যানেলের গানের অনুষ্ঠানগুলোয়ও অংশগ্রহণ শুরু করেছেন। গান এবং অন্য বিষয় নিয়ে আজকের ‘হ্যালো...’ বিভাগে কথা বলেছেন তিনি।

* এখনকার সময় কেমন কাটছে?

** খুব ভালো নয়। বাসাতেই বেশিরভাগ সময় থাকছি। জরুরি প্রয়োজন না হলে বাইরে যাই না। ঘরেই প্রতিদিন গায়কী ঠিক রাখার জন্য চর্চা করছি। স্টেজ অনুষ্ঠানে গান গাই না অনেকদিন। তবে সুসময় আসবেই। সেই অপেক্ষাতেই সময় কাটছে।

* গানে ফিরবেন কবে?

** এরই মধ্যে গানে ফিরেছি। কয়েকদিন আগে চ্যানেল আইতে সকালের লাইভ অনুষ্ঠানে গান গেয়েছি। এ ছাড়া বিটিভির লালন সাইকে নিয়ে একটি অনুষ্ঠানে গান গেয়েছি। যেটির মিউজিক ভিডিওতেও আমাকে দেখা যাবে। শুনেছি শিগ্গির এটি প্রচার হবে চ্যানেলটিতে। পর্যায়ক্রমে অন্য টিভি চ্যানেলের অনুষ্ঠানেও গান গাইতে দেখা যাবে।

* বিটিভিতে সংগীত পরিচালকের দায়িত্বেও আছেন। কাজটি কেমন উপভোগ করছেন?

** করোনাকাল শুরু হওয়ায় আগেই আমি এ দায়িত্ব পেয়েছি। শুরুর দিকে নিয়মিতই ‘বারামখানা’ নামের সেই অনুষ্ঠানটির সংগীত পরিচালনা করেছি। করোনাভাইরাস আসার পর অনুষ্ঠানটি নতুন পর্ব আর তৈরি হয়নি। সম্প্রতি এটির প্রচার শুরু হচ্ছে। যদিও আমি দায়িত্ব পালন শুরু করিনি। শিগ্গির এ কাজটিও শুরু করতে হবে।

* ইদানীংকালের লালন সাইয়ের গানের চর্চা কেমন হচ্ছে বলে মনে করেন?

** যেভাবে অন্য গানগুলো নিয়ে মানুষ মেতে থাকেন, সেই জায়গায় লালনের গান পর্যাপ্ত পরিমাণে হচ্ছে না। এর পেছনে এক ধরনের দৈন্যদশাও রয়েছে। তবে নতুন প্রজন্মের কাছে লালনের গান সঠিকভাবে পৌঁছে দিতে হলে লালনের গানের পৃষ্ঠপোষকতা আরও বৃদ্ধি করতে হবে। সেটা সরাকারি কিংবা বেসরকারি-যেভাবেই হোক না কেন।

* সংগীতাঙ্গন নিয়ে আপনার পর্যবেক্ষণ কী?

** করোনার কারণে ধ্বংস হয়ে গেছে দেশের সংগীতাঙ্গন। যদিও সারা পৃথিবীই স্তব্ধ। করোনায় কর্মহীন হয়ে অনেক সংগীতকর্র্মী ঢাকা থেকে গ্রামে চলে গেছেন। কবে নাগাদ স্বাভাবিক কার্যক্রম শুরু হবে, তা কেউ জানেন না। আমি মনে করি করোনা আল্লাহর গজব। আত্মশুদ্ধির মাধ্যমেই নির্বাণ লাভ সম্ভব।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন