সোমেন চন্দের গল্পে মিলি
jugantor
সোমেন চন্দের গল্পে মিলি

  আনন্দনগর প্রতিবেদক  

২৩ জুন ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সোমেন চন্দ, বাংলার ফ্যাসিবাদবিরোধী আন্দোলনের প্রথম শহিদ। জন্ম বাংলাদেশের নরসিংদীতে। মার্ক্সবাদী সাহিত্য ও রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হওয়া বাংলাসাহিত্যে প্রথম গণসাহিত্যে কাজ করা লেখক তিনি। তার নামে কলকাতা বাংলা একাডেমি প্রবর্তন করেছেন সাহিত্য পুরস্কার। ১৯৪২ সালের ৮ মার্চ ঢাকায় বুদ্ধিজীবী ও লেখকরা এক ফ্যাসিবাদবিরোধী সম্মেলন আহ্বান করেন।

সম্মেলন উপলক্ষ্যে শহরে খুব উত্তেজনা সৃষ্টি হয় এবং রাজনৈতিক মহল প্রায় তিন ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়ে। সম্মেলনের দিন সকালে উদ্যোক্তাদের অন্যতম তরুণ সাহিত্যিক সোমেন চন্দ আততায়ীর হাতে নিহত হন। সেই সোমেন চন্দের গল্প ‘ভালো না লাগার শেষ’ নিয়ে নির্মিত হচ্ছে একটি নাটক। এর নাট্যরূপ করেছেন আবুল হায়াত। পরিচালনা করছেন মাসুদ চৌধুরী। নাটকের গল্পে রাত্রি নামে একটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী ফারহানা মিলি। এতে অভিনয় প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘শ্রদ্ধেয় সোমেন চন্দের গল্পে এটাই আমার প্রথম অভিনয়। সবকিছু মিলিয়ে নাটকটি খুব ভালো হয়েছে। আশা করছি, দর্শকের ভালো লাগবে।’

নাটকে আরও অভিনয় করেছেন আবুল হায়াত, সাহাদাৎ হোসেনসহ অনেকে। এটি শিগ্গির বাংলাদেশ টেলিভিশনে প্রচার হবে বলে জানিয়েছেন নির্মাতা। এদিকে সম্প্রতি মিলি এশিয়ান টিভিতে প্রচারচলতি ধারাবাহিক ‘গোবিন্দপুরের গল্প’ নাটকেও যুক্ত হয়েছেন। কিছুদিন আগে শাহেদ শরীফ খানের সঙ্গে জুটি বেঁধে একটি অনলাইন মার্কেটপ্লেসের বিজ্ঞাপনে মডেল হিসাবে কাজ করেছেন তিনি।

সোমেন চন্দের গল্পে মিলি

 আনন্দনগর প্রতিবেদক 
২৩ জুন ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সোমেন চন্দ, বাংলার ফ্যাসিবাদবিরোধী আন্দোলনের প্রথম শহিদ। জন্ম বাংলাদেশের নরসিংদীতে। মার্ক্সবাদী সাহিত্য ও রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হওয়া বাংলাসাহিত্যে প্রথম গণসাহিত্যে কাজ করা লেখক তিনি। তার নামে কলকাতা বাংলা একাডেমি প্রবর্তন করেছেন সাহিত্য পুরস্কার। ১৯৪২ সালের ৮ মার্চ ঢাকায় বুদ্ধিজীবী ও লেখকরা এক ফ্যাসিবাদবিরোধী সম্মেলন আহ্বান করেন।

সম্মেলন উপলক্ষ্যে শহরে খুব উত্তেজনা সৃষ্টি হয় এবং রাজনৈতিক মহল প্রায় তিন ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়ে। সম্মেলনের দিন সকালে উদ্যোক্তাদের অন্যতম তরুণ সাহিত্যিক সোমেন চন্দ আততায়ীর হাতে নিহত হন। সেই সোমেন চন্দের গল্প ‘ভালো না লাগার শেষ’ নিয়ে নির্মিত হচ্ছে একটি নাটক। এর নাট্যরূপ করেছেন আবুল হায়াত। পরিচালনা করছেন মাসুদ চৌধুরী। নাটকের গল্পে রাত্রি নামে একটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী ফারহানা মিলি। এতে অভিনয় প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘শ্রদ্ধেয় সোমেন চন্দের গল্পে এটাই আমার প্রথম অভিনয়। সবকিছু মিলিয়ে নাটকটি খুব ভালো হয়েছে। আশা করছি, দর্শকের ভালো লাগবে।’

নাটকে আরও অভিনয় করেছেন আবুল হায়াত, সাহাদাৎ হোসেনসহ অনেকে। এটি শিগ্গির বাংলাদেশ টেলিভিশনে প্রচার হবে বলে জানিয়েছেন নির্মাতা। এদিকে সম্প্রতি মিলি এশিয়ান টিভিতে প্রচারচলতি ধারাবাহিক ‘গোবিন্দপুরের গল্প’ নাটকেও যুক্ত হয়েছেন। কিছুদিন আগে শাহেদ শরীফ খানের সঙ্গে জুটি বেঁধে একটি অনলাইন মার্কেটপ্লেসের বিজ্ঞাপনে মডেল হিসাবে কাজ করেছেন তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন