উপস্থাপনায় এখন আর আগ্রহ নেই
jugantor
হ্যালো...
উপস্থাপনায় এখন আর আগ্রহ নেই

  সোহেল আহসান  

০৩ আগস্ট ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

মডেলিং ও নাটকে অভিনয়ের পর বড় পর্দায় ক্যারিয়ার গড়েছেন নিরব। এখন ছবি নিয়েই তার যত ব্যস্ততা। করোনাকালেও অভিনয়ে নিয়মিত। নতুন ছবিতে অভিনয় এবং অন্যান্য বিষয় নিয়ে আজকের ‘হ্যালো...’ বিভাগে কথা বলেছেন তিনি।

* ঈদের পর কি শুটিং শুরু করেছেন?

** ঈদের আগে থেকেই শুটিং করছি না। মূলত লকডাউনের শুরু থেকেই আমার শুটিং বন্ধ রয়েছে। কারণ ছবির শুটিংয়ে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করা খুব কঠিন। তাছাড়া আউটডোরে শুটিং করাও কঠিন। সবকিছু মিলেই শুটিং বন্ধ রেখেছি।

* অনেকেই তো গোপনে শুটিং করছেন। আপনার বেলায় কি এমন কোনো প্রস্তাব এসেছে?

** আমি নিয়মের বাইরে কোনো কাজ করি না, করতে চাইও না। যেসব পরিচালকের ছবিতে অভিনয় করছি, তারা সবাই সচেতন। সরকারি বিধিনিষেধ মেনেই কাজ করেন। লকডাউন তুলে না নেওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করছেন সবাই।

* শুটিং শুরু হলে প্রথম কোন কাজটি করবেন?

** অনন্য মামুনের পরিচালনায় ‘অমানুষ’ নামের একটি ছবির শুটিং করেছিলাম। সেটির দুই দিনের শুটিং বাকি আছে। এ ছাড়া রোজিনা আপার ‘ফিরে দেখা ১৯৭১’ ও সৈকত নাসিরের ‘ক্যাসিনো’ ছবি দুটির ডাবিং বাকি আছে। এগুলোর কাজেও ব্যস্ত থাকতে হবে কিছু দিন।

* মুক্তি প্রতীক্ষিত কয়টি ছবি আছে আপনার?

** বুলবুল জিলানীর পরিচালনায় ‘রৌদ্র ছায়া’ নামের একটি ছবির সেন্সর সম্পন্ন হয়ে আছে প্রায় বছরখানেক ধরে। করোনা পরিস্থিতির কারণেই ছবিটির মুক্তি বিলম্বিত হচ্ছে। বেশিরভাগ প্রেক্ষাগৃহই বন্ধ এখন। যেগুলো খোলা আছে সেগুলোতে দর্শকের উপস্থিতি খুবই কম। আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কার কারণেই ছবিটি মুক্তি দিতে দেরি হচ্ছে, এমনটাই আমি জানি।

* নতুন একটি ছবিতে অভিনয়ের কথা শোনা গেছে...

** মৌখিকভাবে কথা চূড়ান্ত হয়ে আছে। আশা করছি কদিন পরেই সবাইকে আনুষ্ঠানিকভাবে জানাতে পারব। পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে আমার হাতে আরও ছবি আসত। শুধু আমি নই, করোনার কারণে অনেকেরই অভিনয় ক্যারিয়ার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

* গত বছর একটি অনুষ্ঠান উপস্থাপনায় দেখা গিয়েছিল আপনাকে। সেই কাজটি নিয়মিত করার পরিকল্পনা আছে?

** আসলে সেই সময়ের পরিস্থিতি ভিন্ন ছিল। করোনার কারণে লকডাউনে সব কিছু বন্ধ ছিল। অবসরে ছিলাম। সময়টাকে অতিক্রম করা এবং উপস্থাপনার অভিজ্ঞতা অর্জন করার জন্যই কাজটি করেছি তখন। অনেকটা শখের বশেই করেছিলাম। উপস্থাপনায় এখন আর আগ্রহ নেই।

হ্যালো...

উপস্থাপনায় এখন আর আগ্রহ নেই

 সোহেল আহসান 
০৩ আগস্ট ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

মডেলিং ও নাটকে অভিনয়ের পর বড় পর্দায় ক্যারিয়ার গড়েছেন নিরব। এখন ছবি নিয়েই তার যত ব্যস্ততা। করোনাকালেও অভিনয়ে নিয়মিত। নতুন ছবিতে অভিনয় এবং অন্যান্য বিষয় নিয়ে আজকের ‘হ্যালো...’ বিভাগে কথা বলেছেন তিনি।

* ঈদের পর কি শুটিং শুরু করেছেন?

** ঈদের আগে থেকেই শুটিং করছি না। মূলত লকডাউনের শুরু থেকেই আমার শুটিং বন্ধ রয়েছে। কারণ ছবির শুটিংয়ে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করা খুব কঠিন। তাছাড়া আউটডোরে শুটিং করাও কঠিন। সবকিছু মিলেই শুটিং বন্ধ রেখেছি।

* অনেকেই তো গোপনে শুটিং করছেন। আপনার বেলায় কি এমন কোনো প্রস্তাব এসেছে?

** আমি নিয়মের বাইরে কোনো কাজ করি না, করতে চাইও না। যেসব পরিচালকের ছবিতে অভিনয় করছি, তারা সবাই সচেতন। সরকারি বিধিনিষেধ মেনেই কাজ করেন। লকডাউন তুলে না নেওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করছেন সবাই।

* শুটিং শুরু হলে প্রথম কোন কাজটি করবেন?

** অনন্য মামুনের পরিচালনায় ‘অমানুষ’ নামের একটি ছবির শুটিং করেছিলাম। সেটির দুই দিনের শুটিং বাকি আছে। এ ছাড়া রোজিনা আপার ‘ফিরে দেখা ১৯৭১’ ও সৈকত নাসিরের ‘ক্যাসিনো’ ছবি দুটির ডাবিং বাকি আছে। এগুলোর কাজেও ব্যস্ত থাকতে হবে কিছু দিন।

* মুক্তি প্রতীক্ষিত কয়টি ছবি আছে আপনার?

** বুলবুল জিলানীর পরিচালনায় ‘রৌদ্র ছায়া’ নামের একটি ছবির সেন্সর সম্পন্ন হয়ে আছে প্রায় বছরখানেক ধরে। করোনা পরিস্থিতির কারণেই ছবিটির মুক্তি বিলম্বিত হচ্ছে। বেশিরভাগ প্রেক্ষাগৃহই বন্ধ এখন। যেগুলো খোলা আছে সেগুলোতে দর্শকের উপস্থিতি খুবই কম। আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কার কারণেই ছবিটি মুক্তি দিতে দেরি হচ্ছে, এমনটাই আমি জানি।

* নতুন একটি ছবিতে অভিনয়ের কথা শোনা গেছে...

** মৌখিকভাবে কথা চূড়ান্ত হয়ে আছে। আশা করছি কদিন পরেই সবাইকে আনুষ্ঠানিকভাবে জানাতে পারব। পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে আমার হাতে আরও ছবি আসত। শুধু আমি নই, করোনার কারণে অনেকেরই অভিনয় ক্যারিয়ার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

* গত বছর একটি অনুষ্ঠান উপস্থাপনায় দেখা গিয়েছিল আপনাকে। সেই কাজটি নিয়মিত করার পরিকল্পনা আছে?

** আসলে সেই সময়ের পরিস্থিতি ভিন্ন ছিল। করোনার কারণে লকডাউনে সব কিছু বন্ধ ছিল। অবসরে ছিলাম। সময়টাকে অতিক্রম করা এবং উপস্থাপনার অভিজ্ঞতা অর্জন করার জন্যই কাজটি করেছি তখন। অনেকটা শখের বশেই করেছিলাম। উপস্থাপনায় এখন আর আগ্রহ নেই।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন