মাদকের বিরুদ্ধে সচেতনতা তৈরিতে কাজ করবেন শাহরুখ পুত্র আরিয়ান
jugantor
মাদকের বিরুদ্ধে সচেতনতা তৈরিতে কাজ করবেন শাহরুখ পুত্র আরিয়ান

  আনন্দনগর ডেস্ক  

১৮ অক্টোবর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

মাদককাণ্ডে গ্রেফতার বলিউড অভিনেতা শাহরুখ খানের পুত্র ২৩ বছর বয়সি আরিয়ান খান এখনো জেল থেকে বের হননি। ২০ অক্টোবর পর্যন্ত তাকে মুম্বাইয়ের আর্থার রোডের জেলেই থাকতে হবে। এদিকে জেল থেকে বের হয়ে কী করবেন, ইতোমধ্যে তাও ঠিক করে ফেলেছেন শাহরুখপুত্র। মাদক নিয়ন্ত্রণ সংস্থা এনসিবির কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, জেলে আরিয়ানের কাউন্সিলিং চলছে।

তাকে নেশামুক্ত করে, ফের সাধারণ জীবনে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে। সবার সঙ্গে যথেষ্ট সহযোগিতা করছেন। জেল থেকে বেরিয়ে কী করবেন সেটাও জানিয়েছেন তাদের। আরিয়ান নাকি প্রতিজ্ঞা করেছেন আর কখনো মাদকের ধারে কাছেও যাবেন না। মাদকের বিরুদ্ধে তিনি সচেতনতা সৃষ্টির জন্য কাজ করবেন। তবে এ সবই হবে ২০ অক্টোবরের পর, যদি সেদিন আদালত থেকে জামিন পান তিনি। এদিকে দু’বার আদালতের মাধ্যমে বিশেষ চেষ্টা করেও জামিন মেলেনি আরিয়ানের। অথচ তার জন্য ভারতের সেরা উকিল নিয়োগ করেছেন শাহরুখ খান। কথিত আছে মানশিন্ডে নামে এ উকিলের প্রতিদিনের পারিশ্রমিক ভারতীয় মুদ্রায় ১০ লাখ রুপি। জামিন না হওয়ার কারণ হিসাবে ভারতীয় মাদক নিয়ন্ত্রণ সংস্থার কর্তারা বলছেন, কয়েক বছর ধরে প্রায় প্রত্যকদিনই মাদক সেবন করতেন আরিয়ান খান। তার মাধ্যমে মাদক ব্যবসায়ীদের ধরতে পারবেন তারা। জামিনে থাকলে সেটা প্রভাবিত হতে পারে। তবে এসব অভিযোগ নাকচ করে দিয়েছে শাহরুখের আইনজীবী। বলেছেন বাবার স্টারডমের কারণে পুত্র ষড়যন্ত্রের শিকার।

মাদকের বিরুদ্ধে সচেতনতা তৈরিতে কাজ করবেন শাহরুখ পুত্র আরিয়ান

 আনন্দনগর ডেস্ক 
১৮ অক্টোবর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

মাদককাণ্ডে গ্রেফতার বলিউড অভিনেতা শাহরুখ খানের পুত্র ২৩ বছর বয়সি আরিয়ান খান এখনো জেল থেকে বের হননি। ২০ অক্টোবর পর্যন্ত তাকে মুম্বাইয়ের আর্থার রোডের জেলেই থাকতে হবে। এদিকে জেল থেকে বের হয়ে কী করবেন, ইতোমধ্যে তাও ঠিক করে ফেলেছেন শাহরুখপুত্র। মাদক নিয়ন্ত্রণ সংস্থা এনসিবির কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, জেলে আরিয়ানের কাউন্সিলিং চলছে।

তাকে নেশামুক্ত করে, ফের সাধারণ জীবনে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে। সবার সঙ্গে যথেষ্ট সহযোগিতা করছেন। জেল থেকে বেরিয়ে কী করবেন সেটাও জানিয়েছেন তাদের। আরিয়ান নাকি প্রতিজ্ঞা করেছেন আর কখনো মাদকের ধারে কাছেও যাবেন না। মাদকের বিরুদ্ধে তিনি সচেতনতা সৃষ্টির জন্য কাজ করবেন। তবে এ সবই হবে ২০ অক্টোবরের পর, যদি সেদিন আদালত থেকে জামিন পান তিনি। এদিকে দু’বার আদালতের মাধ্যমে বিশেষ চেষ্টা করেও জামিন মেলেনি আরিয়ানের। অথচ তার জন্য ভারতের সেরা উকিল নিয়োগ করেছেন শাহরুখ খান। কথিত আছে মানশিন্ডে নামে এ উকিলের প্রতিদিনের পারিশ্রমিক ভারতীয় মুদ্রায় ১০ লাখ রুপি। জামিন না হওয়ার কারণ হিসাবে ভারতীয় মাদক নিয়ন্ত্রণ সংস্থার কর্তারা বলছেন, কয়েক বছর ধরে প্রায় প্রত্যকদিনই মাদক সেবন করতেন আরিয়ান খান। তার মাধ্যমে মাদক ব্যবসায়ীদের ধরতে পারবেন তারা। জামিনে থাকলে সেটা প্রভাবিত হতে পারে। তবে এসব অভিযোগ নাকচ করে দিয়েছে শাহরুখের আইনজীবী। বলেছেন বাবার স্টারডমের কারণে পুত্র ষড়যন্ত্রের শিকার।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন