তারকার দৃষ্টিতে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী
jugantor
তারকার দৃষ্টিতে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী

  বিনোদন ডেস্ক  

০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আমি বেশ সৌভাগ্যবান একজন মানুষ। আমি মুক্তিযুদ্ধ দেখেছি। বাংলাদেশের জন্মের সময় থেকেই দেশটার এগিয়ে যাওয়া দেখছি। অনেক ত্যাগ তিতিক্ষা ও রক্তের বিনিময়ে আমরা দেশটাকে পেয়েছি। জন্মলগ্ন থেকেই উন্নয়নের দিকে এগিয়েছে বাংলাদেশ। বেশ ঝঞ্ঝাও গেছে দেশের ওপর দিয়ে। বারবার হোঁচট খেয়েও এখন উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় উন্নত হচ্ছে সব কিছুই। নাগরিক সুবিধা যেমন বৃদ্ধি পেয়েছে তেমনই উন্নয়নও হচ্ছে সমান তালে।

বাংলাদেশ বহির্বিশ্বে ইতিবাচক পরিচিতি পাচ্ছে। শিল্প কলকারখানার সঙ্গে অন্যান্য সেক্টরও শক্তিশালী হচ্ছে। আমি মনে করি অগ্রগতি ও উন্নয়নের এ ধারা আগামীতেও অব্যাহত থাকবে। আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর আয়োজনও দেখে যেতে পারলাম।

এটি আমার জীবনের একটি গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে অন্যান্য সেক্টরের মতো সাংস্কৃতিক অঙ্গনেও অনেক কাজ হচ্ছে। যা আমাদের সংস্কৃতি জগতের গুরুত্বপূর্ণ একটি ঘটনা। বাংলাদেশের এ ৫০ বছরে নাটক, গান, অভিনয় ও মঞ্চনাটক অনেক এগিয়েছে। এ অঙ্গনে মেধাবী অনেক মানুষের আগমন ঘটায় সমৃদ্ধ হয়েছে বিনোদন ভুবন। শুধু দেশের দর্শকই নন, বিদেশেও আমাদের সাংস্কৃতিক কর্মীরা কাজের মাধ্যমে প্রশংসিত হচ্ছেন। তাই একজন সংস্কৃতি কর্মী হিসাবে আমিও আমার দেশকে নিয়ে গর্ব করি। যতদিন বেঁচে আছি ঠিক ততদিনই এ অঙ্গনে কাজ করে যাব। দেশের শিল্প সংস্কৃতির উন্নয়নে যদি কিছু অবদান রাখতে পারি, তাহলে সেটিই হবে আমার জীবনের সেরা অর্জন। আমার বিশ্বাস বাংলাদেশ আরও উন্নত হবে, আরও এগিয়ে যাবে।

লেখক : আবুল হায়াত

অভিনেতা, নির্মাতা ও নাট্যকার

তারকার দৃষ্টিতে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী

 বিনোদন ডেস্ক 
০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আমি বেশ সৌভাগ্যবান একজন মানুষ। আমি মুক্তিযুদ্ধ দেখেছি। বাংলাদেশের জন্মের সময় থেকেই দেশটার এগিয়ে যাওয়া দেখছি। অনেক ত্যাগ তিতিক্ষা ও রক্তের বিনিময়ে আমরা দেশটাকে পেয়েছি। জন্মলগ্ন থেকেই উন্নয়নের দিকে এগিয়েছে বাংলাদেশ। বেশ ঝঞ্ঝাও গেছে দেশের ওপর দিয়ে। বারবার হোঁচট খেয়েও এখন উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় উন্নত হচ্ছে সব কিছুই। নাগরিক সুবিধা যেমন বৃদ্ধি পেয়েছে তেমনই উন্নয়নও হচ্ছে সমান তালে।

বাংলাদেশ বহির্বিশ্বে ইতিবাচক পরিচিতি পাচ্ছে। শিল্প কলকারখানার সঙ্গে অন্যান্য সেক্টরও শক্তিশালী হচ্ছে। আমি মনে করি অগ্রগতি ও উন্নয়নের এ ধারা আগামীতেও অব্যাহত থাকবে। আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর আয়োজনও দেখে যেতে পারলাম।

এটি আমার জীবনের একটি গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে অন্যান্য সেক্টরের মতো সাংস্কৃতিক অঙ্গনেও অনেক কাজ হচ্ছে। যা আমাদের সংস্কৃতি জগতের গুরুত্বপূর্ণ একটি ঘটনা। বাংলাদেশের এ ৫০ বছরে নাটক, গান, অভিনয় ও মঞ্চনাটক অনেক এগিয়েছে। এ অঙ্গনে মেধাবী অনেক মানুষের আগমন ঘটায় সমৃদ্ধ হয়েছে বিনোদন ভুবন। শুধু দেশের দর্শকই নন, বিদেশেও আমাদের সাংস্কৃতিক কর্মীরা কাজের মাধ্যমে প্রশংসিত হচ্ছেন। তাই একজন সংস্কৃতি কর্মী হিসাবে আমিও আমার দেশকে নিয়ে গর্ব করি। যতদিন বেঁচে আছি ঠিক ততদিনই এ অঙ্গনে কাজ করে যাব। দেশের শিল্প সংস্কৃতির উন্নয়নে যদি কিছু অবদান রাখতে পারি, তাহলে সেটিই হবে আমার জীবনের সেরা অর্জন। আমার বিশ্বাস বাংলাদেশ আরও উন্নত হবে, আরও এগিয়ে যাবে।

লেখক : আবুল হায়াত

অভিনেতা, নির্মাতা ও নাট্যকার

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন