ইউরোপে ব্যস্ত সময় কাটিয়েছি
jugantor
হ্যালো...
ইউরোপে ব্যস্ত সময় কাটিয়েছি

  সোহেল আহসান  

২৩ মে ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

লালন সংগীতের প্রখ্যাত শিল্পী ফরিদা পারভীন আবারও সক্রিয় হয়েছেন গানের ভুবনে। গত ঈদের পর বেলজিয়ামে গিয়েছিলেন গান গাইতে। পাশাপাশি নতুন গানের কাজও করেছেন। এ ছাড়া দেশেও একাধিক অনুষ্ঠানে গান গাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। বর্তমান ব্যস্ততা ও প্রাসঙ্গিক বিষয় নিয়ে আজকের ‘হ্যালো...’ বিভাগে কথা বলেছেন তিনি।

* এখন কীভাবে সময় কাটছে?

** গানের চর্চা, শিক্ষার্থীদের শেখানোসহ নানা ধরনের সংগীতবিষয়ক কর্মকাণ্ডে নিজেকে যুক্ত রেখে চলছি। এ ছাড়া সামাজিক কিছু কর্মকাণ্ডেও যুক্ত আছি। সব মিলিয়ে ভালোই কাটছে সময়।

* মাঝে বেশ কিছুদিন আপনার সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়নি। সেই সময়টায় কী নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন?

** আমি ৪ মে ফ্রান্স গিয়েছিলাম। সেখান থেকে বেলজিয়াম যাই। সেখানে ৯ ও ১০ মে দুটি অনুষ্ঠানে গান গাই। ওখানকার শ্রোতারা আমাকে বেশ সাদরেই গ্রহণ করেছেন। লালনের গানের প্রতি তারা বেশ মুগ্ধ। আবারও যদি সেখানে গান গাওয়ার সুযোগ পাই তাহলে অবশ্যই যাব।

* শুধু কি গানই গেয়েছেন, নাকি ঘুরে বেড়ানোরও সুযোগ হয়েছে?

** না, সেভাবে অবসর সময় পাইনি। কারণ স্টেজ অনুষ্ঠান ছাড়াও সেখানে ছয়টি নতুন গানে কণ্ঠ দিয়েছি। যেগুলোর আয়োজক ছিলেন ফ্রান্সের নাগরিক মি. লরেন। তিনি একটি অ্যালবাম তৈরি করছেন। সে অ্যালবামে আমার ছয়টি গান এবং ফ্রান্সের এক কণ্ঠশিল্পীর ছয়টি গান স্থান পেয়েছে। আমার সবকটি গানই নতুন। এরই মধ্যে গানগুলো ফ্রান্স এবং বেলজিয়ামে প্রকাশ হয়েছে। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বিশেষ করে ইউরোপে আমার গান প্রকাশ হয়েছে, এটি আমার জন্য এবং দেশের জন্য অনেক সম্মানের একটি বিষয়। আমি এবারের সফরটি নিয়ে তাই বেশ অভিভূত।

* দেশের স্টেজ অনুষ্ঠানেও কি এখন থেকে নিয়মিত গান পরিবেশন করবেন?

** রোজা ও ঈদের বন্ধের কারণে স্টেজে গানই হচ্ছে না অনেকদিন। তবে আমি স্টেজের জন্য প্রস্তুত হয়ে আছি। আশা করছি অল্প সময়ের মধ্যেই স্টেজে গান শুরু করতে পারব। কারণ স্টেজে গান গাওয়ার মজাই আলাদা। সব মিলিয়ে গানের সুদিন আসছে আবার।

* বিটিভিতে সংগীত পরিচালকের দায়িত্ব পালন করছিলেন। সে কাজটি কী নিয়মিত করছেন?

** করোনাসহ নানা কারণে পূর্বনির্ধারিত অনেক অনুষ্ঠানই সময় মতো হচ্ছে না। আমি যে অনুষ্ঠানের সংগীত পরিচালনা করছিলাম তা অনেকদিন ধরেই বন্ধ আছে। শুনেছি কাজটি আবার শুরু করতে পারব। তবে বিটিভিতে সংগীতশিল্পী হিসাবে নিয়মিতই গান গাইছি।

* আপনি প্রতি সপ্তাহে অসহায়, দুস্থ ও নিরন্ন মানুষদের খাদ্য সরবরাহ করতেন। সেটি কী চালু আছে এখনো?

** এ কাজটি নিয়মিত চালিয়ে যাচ্ছি। কারণ মানুষের খাবার লাগবেই। অনেক কিছু বন্ধ করলেও এটি বন্ধ করা যাবে না। খাদ্য মানুষের মৌলিক চাহিদা। তাই আমিও এটি বন্ধ করিনি। যারাই আমার মেহমানখানায় আসেন তাদের সবাইকে আমি শুক্র ও শনিবার একবেলা করে খাবার সরবরাহ করি। যতদিন আমার সামর্থ্য আছে ততদিনই কাজটি চালিয়ে যাব।

হ্যালো...

ইউরোপে ব্যস্ত সময় কাটিয়েছি

 সোহেল আহসান 
২৩ মে ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

লালন সংগীতের প্রখ্যাত শিল্পী ফরিদা পারভীন আবারও সক্রিয় হয়েছেন গানের ভুবনে। গত ঈদের পর বেলজিয়ামে গিয়েছিলেন গান গাইতে। পাশাপাশি নতুন গানের কাজও করেছেন। এ ছাড়া দেশেও একাধিক অনুষ্ঠানে গান গাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। বর্তমান ব্যস্ততা ও প্রাসঙ্গিক বিষয় নিয়ে আজকের ‘হ্যালো...’ বিভাগে কথা বলেছেন তিনি।

* এখন কীভাবে সময় কাটছে?

** গানের চর্চা, শিক্ষার্থীদের শেখানোসহ নানা ধরনের সংগীতবিষয়ক কর্মকাণ্ডে নিজেকে যুক্ত রেখে চলছি। এ ছাড়া সামাজিক কিছু কর্মকাণ্ডেও যুক্ত আছি। সব মিলিয়ে ভালোই কাটছে সময়।

* মাঝে বেশ কিছুদিন আপনার সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়নি। সেই সময়টায় কী নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন?

** আমি ৪ মে ফ্রান্স গিয়েছিলাম। সেখান থেকে বেলজিয়াম যাই। সেখানে ৯ ও ১০ মে দুটি অনুষ্ঠানে গান গাই। ওখানকার শ্রোতারা আমাকে বেশ সাদরেই গ্রহণ করেছেন। লালনের গানের প্রতি তারা বেশ মুগ্ধ। আবারও যদি সেখানে গান গাওয়ার সুযোগ পাই তাহলে অবশ্যই যাব।

* শুধু কি গানই গেয়েছেন, নাকি ঘুরে বেড়ানোরও সুযোগ হয়েছে?

** না, সেভাবে অবসর সময় পাইনি। কারণ স্টেজ অনুষ্ঠান ছাড়াও সেখানে ছয়টি নতুন গানে কণ্ঠ দিয়েছি। যেগুলোর আয়োজক ছিলেন ফ্রান্সের নাগরিক মি. লরেন। তিনি একটি অ্যালবাম তৈরি করছেন। সে অ্যালবামে আমার ছয়টি গান এবং ফ্রান্সের এক কণ্ঠশিল্পীর ছয়টি গান স্থান পেয়েছে। আমার সবকটি গানই নতুন। এরই মধ্যে গানগুলো ফ্রান্স এবং বেলজিয়ামে প্রকাশ হয়েছে। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বিশেষ করে ইউরোপে আমার গান প্রকাশ হয়েছে, এটি আমার জন্য এবং দেশের জন্য অনেক সম্মানের একটি বিষয়। আমি এবারের সফরটি নিয়ে তাই বেশ অভিভূত।

* দেশের স্টেজ অনুষ্ঠানেও কি এখন থেকে নিয়মিত গান পরিবেশন করবেন?

** রোজা ও ঈদের বন্ধের কারণে স্টেজে গানই হচ্ছে না অনেকদিন। তবে আমি স্টেজের জন্য প্রস্তুত হয়ে আছি। আশা করছি অল্প সময়ের মধ্যেই স্টেজে গান শুরু করতে পারব। কারণ স্টেজে গান গাওয়ার মজাই আলাদা। সব মিলিয়ে গানের সুদিন আসছে আবার।

* বিটিভিতে সংগীত পরিচালকের দায়িত্ব পালন করছিলেন। সে কাজটি কী নিয়মিত করছেন?

** করোনাসহ নানা কারণে পূর্বনির্ধারিত অনেক অনুষ্ঠানই সময় মতো হচ্ছে না। আমি যে অনুষ্ঠানের সংগীত পরিচালনা করছিলাম তা অনেকদিন ধরেই বন্ধ আছে। শুনেছি কাজটি আবার শুরু করতে পারব। তবে বিটিভিতে সংগীতশিল্পী হিসাবে নিয়মিতই গান গাইছি।

* আপনি প্রতি সপ্তাহে অসহায়, দুস্থ ও নিরন্ন মানুষদের খাদ্য সরবরাহ করতেন। সেটি কী চালু আছে এখনো?

** এ কাজটি নিয়মিত চালিয়ে যাচ্ছি। কারণ মানুষের খাবার লাগবেই। অনেক কিছু বন্ধ করলেও এটি বন্ধ করা যাবে না। খাদ্য মানুষের মৌলিক চাহিদা। তাই আমিও এটি বন্ধ করিনি। যারাই আমার মেহমানখানায় আসেন তাদের সবাইকে আমি শুক্র ও শনিবার একবেলা করে খাবার সরবরাহ করি। যতদিন আমার সামর্থ্য আছে ততদিনই কাজটি চালিয়ে যাব।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন