চলচ্চিত্রে পেশাদারিত্বে অভাব রয়েছে :মিশা সওদাগর

  অনিন্দ্য মামুন ০৩ জুন ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মিশা
বাংলা চলচিত্রের খলনায়ক মিশা সওদাগর

নায়ক হতে এসেছিলেন, হয়ে গেছেন খলনায়ক। এখন খলনায়ক নন, চলচ্চিত্রের প্রাণপুরুষ ও একজন দুর্দান্ত অভিনেতা হিসেবেই দর্শক তাকে চিনেন।

তিনি মিশা সওদাগর। চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারের দীর্ঘদিনের ভ্রমণ তার। বর্তমানে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। বর্তমান ব্যস্ততা ও সমসাময়িক প্রসঙ্গ নিয়ে আজকের ‘হ্যালো...’ বিভাগে কথা বলেছেন তিনি

* যুগান্তর: আপনি নাকি অভিনয়ে বিরতি দিচ্ছেন?

** মিশা সওদাগর: হ্যাঁ। আমি দীর্ঘ দুই মাসের অভিনয় বিরতি নিচ্ছি। আজ ব্যক্তিগত কাজে আমেরিকা সফরে যাচ্ছি। সেখানেই থাকব এ দুই মাস। এ সময়টা কোনো ছবিতে অভিনয় করব না।

* যুগান্তর: হাতে কী কী ছবি রয়েছে?

** মিশা সওদাগর: ইতিমধ্যে সফিক হাসানের ‘বাহাদুরী’, বদিউল আলম খোকনের ‘অন্ধকার জগৎ’, ‘আমার মা আমার বেহেস্ত’ ছবিগুলোর কাজ শেষ করে ওয়াজেদ আলী সুমনের ‘ক্যাপ্টেন খান’-এর কাজ করছি। এছাড়াও মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে ‘আমার প্রেম, আমার প্রিয়া’ নামের একটি ছবি।

* যুগান্তর: চলচ্চিত্রের বর্তমান অবস্থা কেমন বলে মনে হয় আপনার?

** মিশা সওদাগর: চিত্রজগতের কিছু ব্যর্থ মানুষ সবসময়ই হতাশায় ভোগেন। তবে আমরা ঠিক কাজ করেই চলেছি। প্রেক্ষাগৃহে নিয়মিত ছবিও মুক্তি পাচ্ছে। মাঝপথে বিদেশি ও আমদানি করা ছবি আমাদের দেশীয় ছবি মুক্তিতে কিছুটা ব্যাঘাত সৃষ্টি করেছিল। এছাড়া সরকার আমাদের ১০০টি হল সংস্কারের দায়িত্ব দিয়েছে। ইতিমধ্যে সেগুলো সংস্কারের কাজও শুরু হয়েছে।

* যুগান্তর: প্রযোজকরা ছবিতে তাদের লগ্নিকৃত টাকা ফেরত পাচ্ছেন না। এ বিষয়ে কী বলবেন আপনি?

** মিশা সওদাগর: এটি সত্যি এখনকার প্রযোজকের অনেকেই তাদের লগ্নিকৃত টাকার অর্ধেকও পান না। পাশাপাশি প্রযোজকরা লাভবান হচ্ছে বলেও খবর আছে। প্রযোজক বাঁচলেই চলচ্চিত্র বাঁচবে। আমাদের চলচ্চিত্র নিয়ে বর্তমান সরকারও ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি রেখেছে। চলচ্চিত্রের স্বার্থে প্রযোজকদের এক হয়ে কাজ করতে হবে।

* যুগান্তর: এখনকার চলচ্চিত্রে কী ধরনের শূন্যতা রয়েছে বলে মনে করেন?

** মিশা সওদাগর: বর্তমানে চলচ্চিত্রে অনেক শূন্যতাই বিদ্যমান। এই যেমন, একটি ছবিতে কত ধরনের চরিত্রের কাজ থাকে। সব চরিত্রের শিল্পী কি আমরা খুঁজে পাই? নায়িকা সংকট, মা চরিত্রের শিল্পী সংকট, প্রযোজক সংকট, খল অভিনেতা সংকট, কৌতুক অভিনেতা সংকট। এছাড়াও পেশাদারিত্বের অভাব তো রয়েছেই।

* যুগান্তর: আপনার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কী?

** মিশা সওদাগর: আমি ব্যবসায়ী পরিবারের সন্তান। আমাদের ক্যাটারিং ব্যবসা আছে। আমার বড় ছেলে আমেরিকা থাকে। আমিও সেখানকার গ্রিনকার্ডধারী হচ্ছি। তবে বাংলাদেশেই থাকব আমি। দেশের উন্নয়ন, চলচ্চিত্রের উন্নয়ন ছাড়া এর বাইরে কোনো পরিকল্পনা নেই।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter