কাজী নজরুলের ‘বনের পাপিয়া’য় মিলি
jugantor
কাজী নজরুলের ‘বনের পাপিয়া’য় মিলি

  আনন্দনগর প্রতিবেদক  

০৭ আগস্ট ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলাম ‘বনের পাপিয়া’ নামে একটি ছোট গল্প লিখেছিলেন। এটি পরে তার গল্পগ্রন্থ ‘শিউলি মালা’য় ‘অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। এ গল্পটি নিয়ে একাধিকবার নাটক নির্মিত হয়েছে। এবার নতুন করে আবারও বনের পাপিয়া গল্পটি নিয়ে নাটক নির্মিত হচ্ছে। এ নাটকে অভিনয় করছেন ফারহানা মিলি। আগামী ২৯ আগস্ট কবি কাজী নজরুল ইসলামের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ টেলিভিশনের প্রযোজনায় নাটকটি নির্মিত হচ্ছে। ১০ আগস্ট থেকে এর শুটিং শুরু হবে। নাটকটির নাট্যরূপ দিয়েছেন গুণী অভিনেতা খায়রুল আলম সবুজ। এ নাটকের কেন্দ্রীয় চরিত্র রমলা। এ রমলা চরিত্রে অভিনয় করবেন ফারহানা মিলি। নাটকের গল্পে দেখা যাবে, ফরিদপুরের ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট মি. মিত্র তার স্ত্রী রমলাকে যতটা চিনেছে, তার চেয়ে অচেনা অংশই যেন বেশি। ভীষণ অভিমানী, একরোখা স্বভাবের মেয়ে রমলা। মি. মিত্র যেন স্ত্রীকে ভয় করেই চলেন। কেননা রমলা শ্বশুরবাড়িতে আসার সময় প্রচুর অর্থ, সম্পত্তি নিয়ে এসেছে। কিন্তু মাঝে মাঝে বিরক্তিও যে লাগে না তা নয়, এ নিয়ে তাদের মধ্যে প্রায়ই কিঞ্চিত মনোমালিন্য হয়। এভাবেই এগিয়ে যায় গল্প। এতে অভিনয় প্রসঙ্গে ফারহানা মিলি বলেন, ‘এরই মধ্যে নাটকের স্ক্রিপ্ট পেয়েছি। সংলাপ যথেষ্ট সুন্দর এবং কঠিনও বৈকি। বেশ ভালোভাবে প্রস্তুতি নিচ্ছি এ নাটকে রমলা চরিত্রে নিজেকে যথাযথভাবে উপস্থাপনের জন্য। এ ধরনের চরিত্রে অভিনয় করার পূর্বপ্রস্তুতিটাও ভীষণ জরুরি। তবে আমার চেষ্টার ত্রুটি থাকবে না।’

কাজী নজরুলের ‘বনের পাপিয়া’য় মিলি

 আনন্দনগর প্রতিবেদক 
০৭ আগস্ট ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলাম ‘বনের পাপিয়া’ নামে একটি ছোট গল্প লিখেছিলেন। এটি পরে তার গল্পগ্রন্থ ‘শিউলি মালা’য় ‘অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। এ গল্পটি নিয়ে একাধিকবার নাটক নির্মিত হয়েছে। এবার নতুন করে আবারও বনের পাপিয়া গল্পটি নিয়ে নাটক নির্মিত হচ্ছে। এ নাটকে অভিনয় করছেন ফারহানা মিলি। আগামী ২৯ আগস্ট কবি কাজী নজরুল ইসলামের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ টেলিভিশনের প্রযোজনায় নাটকটি নির্মিত হচ্ছে। ১০ আগস্ট থেকে এর শুটিং শুরু হবে। নাটকটির নাট্যরূপ দিয়েছেন গুণী অভিনেতা খায়রুল আলম সবুজ। এ নাটকের কেন্দ্রীয় চরিত্র রমলা। এ রমলা চরিত্রে অভিনয় করবেন ফারহানা মিলি। নাটকের গল্পে দেখা যাবে, ফরিদপুরের ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট মি. মিত্র তার স্ত্রী রমলাকে যতটা চিনেছে, তার চেয়ে অচেনা অংশই যেন বেশি। ভীষণ অভিমানী, একরোখা স্বভাবের মেয়ে রমলা। মি. মিত্র যেন স্ত্রীকে ভয় করেই চলেন। কেননা রমলা শ্বশুরবাড়িতে আসার সময় প্রচুর অর্থ, সম্পত্তি নিয়ে এসেছে। কিন্তু মাঝে মাঝে বিরক্তিও যে লাগে না তা নয়, এ নিয়ে তাদের মধ্যে প্রায়ই কিঞ্চিত মনোমালিন্য হয়। এভাবেই এগিয়ে যায় গল্প। এতে অভিনয় প্রসঙ্গে ফারহানা মিলি বলেন, ‘এরই মধ্যে নাটকের স্ক্রিপ্ট পেয়েছি। সংলাপ যথেষ্ট সুন্দর এবং কঠিনও বৈকি। বেশ ভালোভাবে প্রস্তুতি নিচ্ছি এ নাটকে রমলা চরিত্রে নিজেকে যথাযথভাবে উপস্থাপনের জন্য। এ ধরনের চরিত্রে অভিনয় করার পূর্বপ্রস্তুতিটাও ভীষণ জরুরি। তবে আমার চেষ্টার ত্রুটি থাকবে না।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন