কনটেন্ট ভালো হলে দর্শক এখনো বাংলা সিনেমার প্রতি আগ্রহী
jugantor
হ্যালো...
কনটেন্ট ভালো হলে দর্শক এখনো বাংলা সিনেমার প্রতি আগ্রহী

  সোহেল আহসান  

০৯ আগস্ট ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

* কী নিয়ে এখন ব্যস্ত আছেন?

** বেশ কিছু বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের কাজ করছি গত ঈদের পর থেকে। তা ছাড়া স্থিরচিত্রে মডেল হয়েছি। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের পণ্যের প্রচারণার কাজ করছি। এভাবেই ব্যস্ততায় সময়গুলো কাটছে।

* অভিনয় নিয়ে ক্যামেরায় দাঁড়াবেন কখন?

** কুরবানি ঈদ শেষ হয়েছে প্রায় মাস খানেক হয়ে গেল। তবে সিনেমাপাড়ায় এখনো ঈদের রেশ কাটেনি। ঈদের সিনেমা এখনো প্রেক্ষাগৃহগুলোতে মহাসমারোহে চলছে। তা ছাড়া এমনিতে অনেকেই কাজ শুরু করেননি। প্রচণ্ড গরম। এ কারণে কাজ শুরু হতে মনে হয় বিলম্ব হচ্ছে। আমার অভিনীত যেসব সিনেমার কাজ অসমাপ্ত রয়েছে সেগুলোর শুটিং শুরু হবে অল্প সময়ের মধ্যেই। এদিকে আমিও সিনেমার কাজ শুরু হওয়ার আগে অন্যান্য কাজগুলো গুছিয়ে নিচ্ছি। এ ছাড়া এ সময়ে পরিবারের সদস্যদেরও বেশি সময় দিচ্ছি। কারণ, শুটিংয়ের ব্যস্ততা শুরু হয়ে গেলে স্ত্রী সন্তানদের সেভাবে সময় দিতে পারব না।

* ঈদের পর থেকে চলচ্চিত্রাঙ্গন চাঙ্গা। আপনি কি আলোচিত সিনেমাগুলো দেখেছেন?

** এখন পর্যন্ত নির্মিত ‘পরাণ’ সিনেমাটি প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে দেখেছি। আমার কাছে বেশ ভালো লেগেছে। এ ছাড়া ঈদে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘দিন : দ্য ডে’ সিমনেমাটিও দারুণ হয়েছে। বেশ সাড়া জাগিয়েছে। দর্শক এখনো ঈদের সিনেমা দেখছেন। এটা আমাদের ইন্ডাস্ট্রির জন্য অনেক বড় পাওয়া। ঈদের পর মুক্তিপ্রাপ্ত ‘হাওয়া’ সিনেমাটি নিয়েও দর্শকদের উচ্ছ্বাস রয়েছে। এই যে সিনেমা নিয়ে দর্শকের মধ্যে উচ্ছ্বাস ও আগ্রহ দেখছি তাতে আশাবাদী আমি। সিনেমার সুদিন শুরু হয়েছে। করোনাকাল শুরু হওয়ার পর থেকে প্রেক্ষাগৃহই বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। সবাই শঙ্কায় ছিল সিনেমা নিয়ে। কিন্তু সেটা এখন কাটিয়ে উঠছে।

* মুক্তির প্রক্রিয়ায় থাকা সিনেমাগুলোর খবর বলুন?

** বুলবুল জিলানীর পরিচালনায় ‘রৌদ্র ছায়া’ নামের সিনেমাটির সেন্সর সম্পন্ন হয়ে আছে অনেক আগেই। এটি হয়তো যে কোনো সময়েই মুক্তি পাবে। এ ছাড়া চিত্রনায়িকা রোজিনার ‘ফিরে দেখা’ সিনেমাটিও গত ঈদের আগে সেন্সর পেয়েছে। বন্ধন বিশ্বাসের ‘ছায়া বৃক্ষ’, সাইফ চন্দনের ‘ কয়লা’ এবং সৈকত নাসিরের ‘ক্যাসিনো’ সিনেমাগুলোও মুক্তির প্রক্রিয়ায় আসবে ধীরে ধীরে।

* এই যে সিনেমাহলে দর্শকদের আগমন, এটা কীভাবে ধরে রাখতে হবে বলে মনে করেন?

** সবাই তো দেখলেন, দর্শক আসলে কী চায়। সেভাবেই সিনেমা নির্মাণ করতে হবে। ভালো কনটেন্ট হলে দর্শক যে এখনো সিনেমার প্রতি আগ্রহী সেটা ঈদের সিনেমা প্রমাণ করে দিয়েছে।

* ‘তিতুমীর’ নামের ইতিহাসভিত্তিক একটি সিনেমায় অভিনয় করার খবর দিয়েছিলেন দুই বছর আগে। সেটির কাজের অগ্রগতি কী?

** ডায়েল রহমানের পরিচালনায় নির্মিতব্য এ সিনেমায় বাংলাদেশে করোনাকাল শুরু হওয়ার অল্প সময় আগে চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলাম। লকডাউন হয়ে যাওয়ার কারণে প্রাথমিকভাবে সিনেমাটির শুটিং পিছিয়ে যায়। পরে আর শুরু হয়নি কাজ। তিতুমীরের জীবনী নিয়ে এটি নির্মিত হওয়ার কথা ছিল। ইতিহাসনির্ভর এই সিনেমায় অভিনয় করার জন্য আমিও দারুণ আগ্রহ নিয়েই অপেক্ষায় আছি। কিন্তু প্রজেক্টটি আসলে হবে কিনা তা নিয়ে আমি সন্দিহান।

হ্যালো...

কনটেন্ট ভালো হলে দর্শক এখনো বাংলা সিনেমার প্রতি আগ্রহী

 সোহেল আহসান 
০৯ আগস্ট ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

* কী নিয়ে এখন ব্যস্ত আছেন?

** বেশ কিছু বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের কাজ করছি গত ঈদের পর থেকে। তা ছাড়া স্থিরচিত্রে মডেল হয়েছি। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের পণ্যের প্রচারণার কাজ করছি। এভাবেই ব্যস্ততায় সময়গুলো কাটছে।

* অভিনয় নিয়ে ক্যামেরায় দাঁড়াবেন কখন?

** কুরবানি ঈদ শেষ হয়েছে প্রায় মাস খানেক হয়ে গেল। তবে সিনেমাপাড়ায় এখনো ঈদের রেশ কাটেনি। ঈদের সিনেমা এখনো প্রেক্ষাগৃহগুলোতে মহাসমারোহে চলছে। তা ছাড়া এমনিতে অনেকেই কাজ শুরু করেননি। প্রচণ্ড গরম। এ কারণে কাজ শুরু হতে মনে হয় বিলম্ব হচ্ছে। আমার অভিনীত যেসব সিনেমার কাজ অসমাপ্ত রয়েছে সেগুলোর শুটিং শুরু হবে অল্প সময়ের মধ্যেই। এদিকে আমিও সিনেমার কাজ শুরু হওয়ার আগে অন্যান্য কাজগুলো গুছিয়ে নিচ্ছি। এ ছাড়া এ সময়ে পরিবারের সদস্যদেরও বেশি সময় দিচ্ছি। কারণ, শুটিংয়ের ব্যস্ততা শুরু হয়ে গেলে স্ত্রী সন্তানদের সেভাবে সময় দিতে পারব না।

* ঈদের পর থেকে চলচ্চিত্রাঙ্গন চাঙ্গা। আপনি কি আলোচিত সিনেমাগুলো দেখেছেন?

** এখন পর্যন্ত নির্মিত ‘পরাণ’ সিনেমাটি প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে দেখেছি। আমার কাছে বেশ ভালো লেগেছে। এ ছাড়া ঈদে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘দিন : দ্য ডে’ সিমনেমাটিও দারুণ হয়েছে। বেশ সাড়া জাগিয়েছে। দর্শক এখনো ঈদের সিনেমা দেখছেন। এটা আমাদের ইন্ডাস্ট্রির জন্য অনেক বড় পাওয়া। ঈদের পর মুক্তিপ্রাপ্ত ‘হাওয়া’ সিনেমাটি নিয়েও দর্শকদের উচ্ছ্বাস রয়েছে। এই যে সিনেমা নিয়ে দর্শকের মধ্যে উচ্ছ্বাস ও আগ্রহ দেখছি তাতে আশাবাদী আমি। সিনেমার সুদিন শুরু হয়েছে। করোনাকাল শুরু হওয়ার পর থেকে প্রেক্ষাগৃহই বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। সবাই শঙ্কায় ছিল সিনেমা নিয়ে। কিন্তু সেটা এখন কাটিয়ে উঠছে।

* মুক্তির প্রক্রিয়ায় থাকা সিনেমাগুলোর খবর বলুন?

** বুলবুল জিলানীর পরিচালনায় ‘রৌদ্র ছায়া’ নামের সিনেমাটির সেন্সর সম্পন্ন হয়ে আছে অনেক আগেই। এটি হয়তো যে কোনো সময়েই মুক্তি পাবে। এ ছাড়া চিত্রনায়িকা রোজিনার ‘ফিরে দেখা’ সিনেমাটিও গত ঈদের আগে সেন্সর পেয়েছে। বন্ধন বিশ্বাসের ‘ছায়া বৃক্ষ’, সাইফ চন্দনের ‘ কয়লা’ এবং সৈকত নাসিরের ‘ক্যাসিনো’ সিনেমাগুলোও মুক্তির প্রক্রিয়ায় আসবে ধীরে ধীরে।

* এই যে সিনেমাহলে দর্শকদের আগমন, এটা কীভাবে ধরে রাখতে হবে বলে মনে করেন?

** সবাই তো দেখলেন, দর্শক আসলে কী চায়। সেভাবেই সিনেমা নির্মাণ করতে হবে। ভালো কনটেন্ট হলে দর্শক যে এখনো সিনেমার প্রতি আগ্রহী সেটা ঈদের সিনেমা প্রমাণ করে দিয়েছে।

* ‘তিতুমীর’ নামের ইতিহাসভিত্তিক একটি সিনেমায় অভিনয় করার খবর দিয়েছিলেন দুই বছর আগে। সেটির কাজের অগ্রগতি কী?

** ডায়েল রহমানের পরিচালনায় নির্মিতব্য এ সিনেমায় বাংলাদেশে করোনাকাল শুরু হওয়ার অল্প সময় আগে চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলাম। লকডাউন হয়ে যাওয়ার কারণে প্রাথমিকভাবে সিনেমাটির শুটিং পিছিয়ে যায়। পরে আর শুরু হয়নি কাজ। তিতুমীরের জীবনী নিয়ে এটি নির্মিত হওয়ার কথা ছিল। ইতিহাসনির্ভর এই সিনেমায় অভিনয় করার জন্য আমিও দারুণ আগ্রহ নিয়েই অপেক্ষায় আছি। কিন্তু প্রজেক্টটি আসলে হবে কিনা তা নিয়ে আমি সন্দিহান।

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন