অভিনয়ে ২৬ বছর

প্রকাশ : ০২ জুলাই ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  আনন্দনগর প্রতিবেদক

মঞ্চকে ভালোবেসেই অভিনয় শুরু করেছিলেন তমালিকা কর্মকার। মঞ্চের গণ্ডি পেরিয়ে টিভি এবং চলচ্চিত্রে পরিস্ফুটিত হয়েছে তার মেধা। দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে মঞ্চ ও টিভি নাটক, চলচ্চিত্র এবং বিজ্ঞাপনে সরব এ অভিনেত্রী। অভিনেতা ও নির্দেশক মামুনুর রশীদের হাত ধরে নাট্যদল ‘আরণ্যক’-এর হয়ে মঞ্চে তমালিকার অভিনয়ে যাত্রা শুরু হয়। সেই থেকে আজ অবধি এ দলের হয়ে কাজ করছেন। আরণ্যকের হয়ে তাকে মঞ্চে প্রথম দেখা যায় আজিজুল হাকিমের নির্দেশনায় ‘পাথর’ নাটকে। সর্বশেষ ২৮ জুন ‘রাঢ়াং’-এর ১৮০তম মঞ্চায়নে অভিনয় করেন তিনি। মামুনুর রশীদের রচনা ও নির্দেশনায় নাটকটিতে তমালিকা অভিনয় করছেন শ্যামলী চরিত্রে। গেল ঈদে তার অভিনীত সালাহ উদ্দিন লাভলু পরিচালিত ‘ফেসবুকে বিবাহ’, চয়নিকা চৌধুরীর ‘দুপুর বেলার গল্প ছোট’, অনিমেষ আইচের ‘গুলনেহার’সহ বিটিভিতে আজাদ আবুল কালামের একটি নাটক প্রচার হয়। আজ এ অভিনেত্রীর জন্মদিন। দিনটি পালন প্রসঙ্গে তমালিকা কর্মকার বলেন, ‘জন্মদিনে কখনোই আমি নিজে কোনো কিছু করি না। থাকেনা কোনো বিশেষ আয়োজন, রাখিনা শুটিং। একেবারেই নিজের মতো করে নিজের ঘরে সময় কাটাই। আমি কৃতজ্ঞ দর্শকের কাছে, তারা আমাকে ভালোবেসে আমার নাটক দেখেন। এ জন্য আমার নাট্যগুরু মামুনুর রশীদ স্যারের কাছে কৃতজ্ঞ। তার হাত ধরেই আমার একটু একটু করে অভিনয়ে পথচলা। সারা জীবন আমি অভিনয় করে যেতে চাই। শেষ নিঃশ্বাস পর্যন্ত অভিনয়ই করতে চাই।’ তমালিকা অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র শেখ নিয়ামত আলীর ‘অন্য জীবন’। আবু সাইয়ীদের ‘কীর্ত্তণখোলা’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করে তিনি প্রথম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হন।