আমার মন বলে আমাকে এ দেশে আসতে হবে

‘বেদের মেয়ে জোছনা’খ্যাত জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা অঞ্জু ঘোষ। তার বর্তমান আবাসস্থল কলকাতা। ৫ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশে এসেছেন। দীর্ঘ ২২ বছর পর এসেছিলেন প্রিয় কর্মস্থল এফডিসিতে। এরই মধ্যে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি তাকে আজীবন সদস্য পদ দিয়ে সম্মাননা প্রদান করেছে। আবারও আসার প্রতিশ্র“তি দিয়ে গতকাল ফের কলকাতায় পাড়ি জমিয়েছেন। দীর্ঘদিন পর বাংলাদেশে আসা ও অন্য প্রসঙ্গ নিয়ে আজকের ‘হ্যালো...’ বিভাগে কথা বলেছেন তিনি

  বিনোদন ডেস্ক ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

অঞ্জু ঘোষ
ছবি: সংগৃহীত

* শিল্পী সমিতি কর্তৃক আজীবন সদস্য পদ পেলেন। অনুভূতি কেমন?

** এ অনুভূতি কীভাবে প্রকাশ করি! বাংলাদেশের মানুষ আমাকে খুব ভালোবাসেন। বাংলা চলচ্চিত্র আমাকে আজও টানে। চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি আমাকে আজীবন সদস্য হিসেবে সম্মাননা দিয়েছে। এ আনন্দ প্রকাশ করার ভাষা আমার নেই।

* ২২ বছর আগে কলকাতায় বেড়াতে যাওয়ার পর ওখানে স্থায়ী হয়ে গেলেন কেন?

** ওখানে বেড়াতে গিয়েছিলাম মায়ের কাছে। আমাকে পেয়ে মা তো বড্ড খুশি! আমাকে আর আসতেই দেবেন না। বললেন মায়ের কাছে বাকি দিনগুলো কাটিয়ে দে। এক রকম ফেঁসে গেলাম, আর আসতে পারিনি। তারপর ওখানে ছবিতে কাজ নিয়েও ব্যস্ত হয়ে পড়ি।

* এর বাইরে বাংলাদেশ কিংবা ঢাকাই চলচ্চিত্র নিয়ে কোনো অভিমান ছিল কি?

** কোনো অভিমান নেই। অভিমান থাকবে কেন? ঢাকাই চলচ্চিত্র আমাকে অনেক দিয়েছে। দর্শকরা আজও আমাকে মনে রেখেছেন। আমার খবর পেয়ে সবাই দেখতে এলো, এতে ভালোবাসা কম কিসে? আমার সঙ্গে দেখা করতে যারা আসেন তারা আমার এক একটা ভালোবাসা। আর ভালোবাসার ওপর কোনো অভিমান নেই, ছিল না এবং থাকবেও না।

* ২২ বছর পর এফডিসিতে গিয়ে কেমন লেগেছে?

** নবম শ্রেণীতে পড়া অবস্থায় এ ইন্ডাস্ট্রিতে এসেছিলাম। অনেক বছর এখানেই কাজ করেছি। তখন কত জমজমাট ছিল! শিল্পীদের ভিড় লেগে থাকত। তখন এফডিসিজুড়ে কত ব্যস্ততা ছিল! কিন্তু এবার এসে হতাশ হয়েছি। সব বদলে গেছে। দর্শকরা যেন হলে গিয়ে ছবি দেখে এ জন্য সবাইকে চেষ্টা করতে হবে।

* কলকাতায় আপনার জীবন-যাপন নিয়ে কিন্তু অনেক কথাই প্রচলিত আছে?

** আমি অনলাইন নিউজ থেকে জেনেছি, অনেকেই ভাবছেন বা লিখছেন আমার নাকি করুণ অবস্থা। কষ্টে দিন কাটেসহ নানা বিশেষণ। আসলে বিষয়টি এমন নয়। আমি কলকাতায় খুব ভালো আছি। আমার বাড়ি আছে, আমার মা আছেন। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন।

* ‘বেদের মেয়ে জোছনা’ সবচেয়ে ব্যবসাসফল ছবি। এটি দর্শক এত গভীরভাবে নেয়ার পেছনে আপনার দৃষ্টিতে বিশেষ কোনো কারণ আছে?

** ছবিটি অনেকবার আমি দেখেছি। এতে মাটির টান, মানুষের মনের কথাগুলো তুলে ধরা হয়েছিল। ফোক ঘরানার এ ছবিটিতে আকাশ-পাতাল ব্যবধান, কিন্তু স্বচ্ছ এক প্রেমের কাহিনী তুলে ধরা হয়েছিল। সে কারণে হয়তো দর্শক এত গভীরভাবে ছবিটিকে নিয়েছিল। যে ছবিতে মা মাটি ও মানুষের কথা থাকবে মানুষ সে ছবি অবশ্যই দেখবে। এছাড়া আর কোনো কারণ নেই বলে আমি মনে করি।

* বাংলাদেশে তাহলে আর কখনই ফেরা হবে না?

** আমি আসব। এবার এসে মানুষের ভালোবাসায় আমি সিক্ত। আমার মন বলে আমাকে এদেশে আসতে হবে। মাঝে মাঝে এ দেশে বেড়াতে আসব। সবার ভালোবাসা নিতে আসব।

হাসান সাইদুল

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter