নবীগঞ্জ-আউশকান্দি সড়ক নির্মাণে ব্যাপক অনিয়ম

পাথরের বদলে বালু

  নবীগঞ্জ প্রতিনিধি ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

অনিয়ম

নবীগঞ্জ-আউশকান্দি সড়কে দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর পুনর্নির্মাণ কাজ শুরু হলেও কাজের মান নিয়ে রয়েছে নানা প্রশ্ন। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানটি ব্যাপক অনিয়মের মাধ্যমে পুরোদমে চালিয়ে যাচ্ছে সংস্কার কাজ।

এ আঞ্চলিক সড়কের কাজে নিুমানের মালামালের পাশাপাশি পাথরের বদলে ব্যবহার করা হচ্ছে অতিরিক্ত বালু। আশ্চর্যজনক হলেও সত্য পূর্বের সড়ক থেকে দুই পাশে প্রায় ২ ফুট রাস্তা কমিয়ে ছোট করে হেজিং দেয়া হয়েছে। আর হেজিংয়ে ১ নম্বর ইট দেয়ার কথা থাকলেও দেয়া হচ্ছে ২-৩ নম্বরের ইট। এছাড়াও সড়কে অতিরিক্ত ধুলোবালির কারণে প্রতিনিয়ত অসুস্থ হয়ে পড়ছেন এ রাস্তায় চলাচল করা যাত্রীরা।

নিয়মিত পানি দেয়ার কথা থাকলেও মাঝেমধ্যে পানি দিয়েই দায় এড়াচ্ছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। এ ঘটনায় আলোচনা-সমালোচনার ঝড় বইছে। কিন্তু এ ঘটনায় প্রশাসন রয়েছে নীরব ভূমিকায়। তদারকির দায়িত্ব নিয়ে উঠছে নানা প্রশ্ন। অনেকেই জানান, কর্তৃপক্ষকে ম্যানেজ করেই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এ রকম অনিয়ম-দুর্নীতি করছে।

সরেজমিন দেখা যায়, নবীগঞ্জ-আউশকান্দি সড়কের কুর্শি ইউনিয়নের ফুটারমাটি এলাকাসহ সড়কের বিভিন্ন স্থানে পূর্বে সড়কের সীমানা থেকে উভয় পাশে প্রায় দুই ফুট ছোট করে ইট দিয়ে হেজিং করা হয়েছে। এছাড়াও পানি নিয়মিত না দেয়ার ফলে ধুলোবালির জন্য নষ্ট হচ্ছে জনস্বাস্থ্য। এ সড়কের যাতায়াতকারী জুমান আহমেদ নামে এক কলেজ শিক্ষার্থী জানান, প্রতিদিন কলেজে যাওয়ার সময় ধুলোবালির কারণে কলেজ ড্রেস নষ্ট হয়ে যায় এবং আমার কয়েকজন সহপাঠী অসুস্থ হয়ে পড়েছে। সৈরত মিয়া নামে এক বৃদ্ধ ব্যক্তি জানান, ‘আগের রাস্তা থাকি এ রাস্তা উভয় পাশে ছোট অই গেছে, রাস্তায় ধুলোবালির জন্য চলাচল মুশকিল হয়ে পড়েছে। এ বয়সেও ধুলোবালির মধ্য দিয়ে যাতায়াত করতে হচ্ছে। দ্রুত এর সমাধানে কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করছি।

সড়ক ও জনপথ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, গত বছরের শেষ দিকে নবীগঞ্জ-আউশকান্দি সড়কে প্রায় ২০ কিলোমিটার রাস্তা পুনর্নির্মাণের জন্য ১৯ কোটি টাকার কাজ পায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জন-জেবি।

এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের প্রকৌশলী জহিরুল ইসলাম জানান, খোঁজ নিয়ে যদি সড়কে নিুমানের মালামাল, পাথরের চেয়ে বালু বেশি এবং মাপের চেয়ে রাস্তা ছোট করা হয় তাহলে অবশ্যই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×