লালমনিরহাটে বিয়ের প্রলোভনে প্রেমিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ

  লালমনিরহাট প্রতিনিধি ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলায় প্রেমের সুবাধে এক কলেজছাত্রীকে বিয়ে রেজিস্ট্রি করার নাম করে ডেকে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ঘটনার দিন বিষয়টি জানাজানি হলে স্থানীয়রা অভিযুক্ত আরিফ হোসেন তুহিনকে আটক করে। খবর পেয়ে তুহিনের বাবা-মা উল্টো মেয়েটিকে মারধর করে তাকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়। পরে ভিকটিম কলেজছাত্রীকে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করে স্থানীয়রা। এ নিয়ে ভিকটিম বাদী হয়ে তুহিনের বিরুদ্ধে থানায় ধর্ষণের মামলা দিলেও এক প্রভাবশালী জনপ্রতিনিধির চাপে শনিবার বিকাল পর্যন্ত তা নথিভুক্ত করে পুলিশ। জানা যায়, উপজেলার ধবলসুতি এলাকার তুহিন পার্শ্ববর্তী কুচলিবাড়ি এলাকার ফুফাতো বোনের সঙ্গে বেশ কিছুদিন আগে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে।

একপর্যায়ে তুহিন তাকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে শারীরিক সম্পর্ক তৈরি করে। এই অবস্থায় মেয়েটি বিয়ের চাপ দিলে তুহিন রাজিও হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে মেয়েটিকে গোপনে বিয়ে রেজিস্ট্রি করার কথা বলে ডেকে আনে তুহিন। পরে তাকে পাটগ্রাম পৌর বালিকা বিদ্যালয়ের পাশে ইউনুচ নামে এক বাসিন্দার বাড়িতে নিয়ে যায় তুহিন। সেখানে একটি ঘরের মধ্যে মেয়েটিকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তবে ঘটনার পর বিষয়টি বুঝতে পেরে স্থানীয়রা তুহিনকে আটকিয়ে রাখে। খবর পেয়ে তুহিনের বাবা রফিকুল ইসলাম ও মা গুলশান আরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে উল্টো মেয়েটিকে মারধর করে তুহিনকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়। পাটগ্রাম পৌর বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রবিউল ইসলাম বলেন, ‘ঘটনার দিন ওই মেয়েটিকে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় স্থানীয়রা আমার কাছে নিয়ে আসে। পরে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পাটগ্রাম থানার ওসি আরজু মো. সাজ্জাদ বলেন, আত্মীয়তার সুবাধেই তাদের মাঝে প্রেমের সম্পর্ক ছিল বলে শুনেছি। কিন্তু পরিবারের পক্ষ থেকে তাদের বিয়ের বিষয়টি মেনে না নেয়ায় সমস্যা দেখা দিয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

E-mail: [email protected], [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter